Home /News /crime /
বাড়িতেই উদ্ধার দিনমজুরের পচাগলা মৃতদেহ! চাঞ্চল্য ছড়াল এলাকায়

বাড়িতেই উদ্ধার দিনমজুরের পচাগলা মৃতদেহ! চাঞ্চল্য ছড়াল এলাকায়

এর পরেই দেহটি সমাহিত করার জন্য পরিবারের হাতে দেওয়া হয়৷ দেহ নিয়ে কবরস্থানে পৌঁছয় পরিবারটি৷ সমাহিত করার আগে নির্দিষ্ট রীতিনীতি পালনের জন্য দেহটি কবরস্থানের মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানেই এক কর্মী খেয়াল করেন, টিমেসার চোখ খোলা, তিনি নিঃশ্বাসও নিচ্ছেন৷ Representational Image

এর পরেই দেহটি সমাহিত করার জন্য পরিবারের হাতে দেওয়া হয়৷ দেহ নিয়ে কবরস্থানে পৌঁছয় পরিবারটি৷ সমাহিত করার আগে নির্দিষ্ট রীতিনীতি পালনের জন্য দেহটি কবরস্থানের মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানেই এক কর্মী খেয়াল করেন, টিমেসার চোখ খোলা, তিনি নিঃশ্বাসও নিচ্ছেন৷ Representational Image

ঘটনাটি ঘটেছে অশোকনগর থানার উত্তর মেনা এলাকায়।

  • Share this:

    #অশোকনগর: পচাগলা মৃতদেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল  এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে অশোকনগর থানার উত্তর মেনা এলাকায়।মৃত ব্যক্তির নাম পরিতোষ মণ্ডল(৩৬)।স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার সকালে পরিতোষ মণ্ডলের বাড়ির পাশে মাঠে কাজ করতে এসে পচা গন্ধ পায় স্থানীয় চাষিরা। পরে পাড়ার বাকিদের ঘটনাটি জানালে সবাই মিলে সেখানে পৌঁছন ৷

    পরিতোষের বাড়ির জানলা দিয়ে তাকাতেই মশারির মধ্যে পাঁচাগলা মৃতদেহ চোখে পড়ে স্থানীয়দের। সাথে সাথে খবর দেওয়া হয় অশোকনগর থানায় ৷ পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বারাসত পাঠিয়েছে।স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,পেশায় দিনমজুর পরিতোষ একাই থাকতেন নিজের বাড়িতে ৷ বাবা মা মারা গিয়েছে অনেক বছর আগেই। একমাত্র দিদি কল্পনা মজুমদারের অভিযোগ, আমার ভাইয়ের কাছে অনেক টাকা ছিল হয়তো টাকার জন্যই আমার ভাইকে কেউ মেরে ফেলেছে। প্রতিবেশীদের দাবি. আমফান ঝড়ের পরে পরে পরিতোষকে শেষ দেখা গিয়েছিল ৷ তারপর আর কারোর চোখে পড়েনি। পাড়ার কারো সাথে মিশতেন না তেমনভাবে ৷ একা একা ওই মাঠের পাশের বাড়িতে থাকতেন পরিতোষ মণ্ডল ৷ হয়তো বিষাক্ত সাপের কামড়েও মারা যেতে পারেন তিনি।এই ঘটনায় অশোকনগর থানার পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে।পরিতোষের মৃত্যুতে শোকের ছায়া এলাকা জুড়ে।

    তথ্য- জিয়াউল

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published:

    Tags: Deadbody

    পরবর্তী খবর