Viral Video: ICU ডিউটি সেরে খুব কষ্ট হয়, নেচে ক্লান্তি দূর করছি! চিকিৎসকের নাচ ভাইরাল

ডাক্তারের নাচে, ভাইরাল ভিডিও

করোনার সঙ্গে লড়াইয়ে ডাক্তাররা যেন সব থেকে অসহায় (doctor viral video)৷

  • Share this:

    #মুম্বই: প্রতিদিন দেশে করোনা (COVID19 India Second Wave) আক্রান্ত হয়ে হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু হচ্ছে৷ নিকট আত্মীয়ের মৃত্যুতে উঠছে কান্নার রোল৷ অস্থিরতা ও চাপা শোকের পরিবেশে ক্লান্ত হয়ে উঠছে সাধারণ মানুষ৷ চারিদিকে স্বজনহারার কান্না৷ এরই মধ্যে নিরলস সেবা করে চলেছেন চিকিৎসক ও নার্সরা (Doctor Nurse treating corona patient) ৷ রাত দিন এক করে এঁরা করোনা আক্রান্তদের সারিয়ে তোলার চেষ্টা করছেন৷ কখনও রোগীকে বাঁচাতে পারছেন, কখনও হেরে যাচ্ছেন৷ প্রতিদিন যেন একটু একটু করে তাঁদেরও মনোবল কমছে৷ লড়াই চলছে কিন্তু দম যেন ফুরিয়ে আসছে৷ নিজেকে উজ্জীবিত রাখতে এক একজন বেছে নিচ্ছেন এক একটা পথ৷ চিকিৎসকরাও ব্যতিক্রম নন৷ তাই এক চিকিৎসকের নাচের ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে (Viral Video)৷ তিনি লিখেছেন যে আইসিইউ ডিউটি (ICU Duty)করে আসার পর খুব মন খারাপ হয়৷ তখন নিজের মন ভাল করতে নাচের বিকল্প কিছু হতে পারে না৷ নাচ সব দুঃখ দূর করে৷ আপনিও করুন, যা আপনার পছন্দ৷

    সত্যিই করোনার সঙ্গে লড়াইয়ে ডাক্তাররা যেন সব থেকে অসহায়৷ কারণ তাঁরা চিকিৎসা করছেন৷ আবার চোখের সামনে হাজার হাজার রোগীর মৃত্যুও দেখছেন৷ কখনও হাসপাতালে বেড না থাকায়, অসহায় হয়ে রোগীকে ফিরিয়ে দিতে হচ্ছে৷ এতে অধিকাংশ ডাক্তারই খুব মনোকষ্টে ভুগছেন৷ কারণ তাঁরা কিছু করতে পারছেন না৷ যেভাবে দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে, তাতে স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর চাপও বেড়েছে৷ নিরলস পরিশ্রম করছেন তাঁরা৷ তাঁরাও হারাচ্ছেন নিজের কাছের মানুষকে৷ এই পরিস্থিতিতে দাঁতে দাঁত চেপে শুধু কাজ করে চলেছেন দেশের স্বাস্থ্যকর্মীরা৷ এবং তাঁদের এই লড়াই তো আজ থেকে শুরু হয়নি৷ গত বছর করোনার প্রথম ঢেউ (Coronavirus India) থেকেই এই লড়াই তাঁদের চলছে৷

    আরও পড়ুন COVID19: চিতায় আগুন দিতেই উঠে বসলেন করোনা রোগী! শুরু করলেন হাউহাউ করে কান্না

    কিছুদিন আগেই বর্ধমানের এক চিকিৎসক ফেসবুক লাইভে কথা বলতে বলতে হাউহাউ করে কেঁদে ফেলেছিলেন৷ কারণ তিনি বোঝাতে পারছিলেন না, যে কতটা অসহায় বোধ করছেন তিনি৷ এটা শুধু তাঁর একার কথা নয়, এটা সব চিকিৎসকদেরই কথা৷ তাই তাঁদের নিজেদের চলৎশক্তি বজায় রাখতে কখনও গান, নাচ বেছে নিচ্ছেন তাঁরা৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: