করোনা সংক্রমণ হলে অন্তত ৫ মাসের জন্য শরীরে গড়ে ওঠে প্রতিরোধের ক্ষমতা! বলছে সমীক্ষা

করোনা সংক্রমণ হলে অন্তত ৫ মাসের জন্য শরীরে গড়ে ওঠে প্রতিরোধের ক্ষমতা! বলছে সমীক্ষা

সম্প্রতি ব্রিটেনের স্বাস্থ্যকর্মীদের গবেষণায় উঠে এল এক নতুন তথ্য। তাঁদের দাবি, একবার কারও শরীরে ভাইরাসের সংক্রমণ হলে, তাঁর শরীর অন্তত পাঁচ মাসের জন্য ভাইরাসের আক্রমণ প্রতিরোধ করতে সক্ষম হয়।

সম্প্রতি ব্রিটেনের স্বাস্থ্যকর্মীদের গবেষণায় উঠে এল এক নতুন তথ্য। তাঁদের দাবি, একবার কারও শরীরে ভাইরাসের সংক্রমণ হলে, তাঁর শরীর অন্তত পাঁচ মাসের জন্য ভাইরাসের আক্রমণ প্রতিরোধ করতে সক্ষম হয়।

  • Share this:

    #কলকাতা: করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব টের পাওয়ার পর থেকেই, গোটা বিশ্বে চলছে ভাইরাস নিয়ে গবেষণা। নানা দেশে, নানা সংস্থার পরীক্ষা-নিরীক্ষায় বার বার উঠে এসেছে ভাইরাস সংক্রান্ত নতুন তথ্য। সম্প্রতি ব্রিটেনের স্বাস্থ্যকর্মীদের গবেষণায় উঠে এল আর এক নতুন তথ্য। তাঁদের দাবি, একবার কারও শরীরে ভাইরাসের সংক্রমণ হলে, তাঁর শরীর অন্তত পাঁচ মাসের জন্য ভাইরাসের আক্রমণ প্রতিরোধ করতে সক্ষম হয়। তবে নিজের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হওয়ার পরও তাঁরা ভাইরাস বহন করতে পারেন এবং ছড়িয়ে দিতে পারেন নিজের অজান্তেই।

    একবার সংক্রমণ হলে, পুনরায় তা হতে পারে কি না, এ নিয়ে প্রথমিক ভাবে গবেষণা করেছে পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড বা পিএইচই। সংস্থার তরফে সমীক্ষা করা হয় ৬,৬১৪ জন মানুষকে নিয়ে, যাঁরা সংক্রমণের শিকার হয়েছেন আগেই। তবে দেখা গিয়েছে এঁদের মধ্যে মাত্র ৪৪ জন ফের কোভিড পজিটিভ হয়েছেন। তবে এই সংস্থার বিজ্ঞানীদের দাবি, যাঁরা ২০২০ সালের শুরুর দিকে করোনায় ভুগেছিলেন, এখন ফের সংক্রমণের আশঙ্কা রয়েছে তাঁদের। শুধু তাই নয়, এ বিষয়েও তাঁরা সতর্ক করছেন যে একবার যাঁদের সংক্রমণ হয়ে ন্যাচরাল ইমিউনিটি গড়ে উঠেছে, তাঁরা হয় তো নাক এবং গলায় বহন করছেন করোনার নতুন স্ট্রেন, যা ছড়িয়ে পড়তে পারে অন্যদের মধ্যেও।

    পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড-এর গবেষণার প্রধান সুজান হপকিনস-এর মতে, “আমরা সকলেই এখন জেনে গিয়েছি যে, ভাইরাসের সংক্রমণ হলে শরীরে তৈরি হয় অ্যান্টিবডি। তবে ঠিক কতদিনের জন্য এই অ্যান্টিবডি রোধ করতে পারবে ফের সংক্রমণ, তা এখনও পুরোপুরি পরিষ্কার নয়।” তিনি আরও বলেন, “একবার করোনা সংক্রমণ হলে বেশ কিছুদিনের জন্য এ বিষয়ে কিছুটা নিশ্চিন্ত থাকা যেতে পারে যে ফের মারাত্মক সংক্রমণ হবে না। তবে সেই ব্যক্তির থেকে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি থেকেই যায়।”

    Published by:Antara Dey
    First published:

    লেটেস্ট খবর