Remo D’souza : রেমডিসিভিরকে 'রেমো ডিসুজা'! ভাইরাল ভিডিও দেখে কী বললেন খোদ কোরিওগ্রাফার?

তাঁর নামে ওষুধ? প্রতিক্রিয়া দিলেন রেমো

চিকিৎসার জন‍্য অতি প্রয়োজনীয় রেমডিসিভির (Remdesivir) ইঞ্জেকশনের কালোবাজারি প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া দেওয়ার সময় ভুল করে রেমডিসিভিরকে ‘রেমো ডিসুজা’ (Remo D’souza) বলে বসেন ওই যুবক। নেটমাধ‍্যমে হু হু করে ভাইরাল হচ্ছে সেই ভিডিওটি।

  • Share this:

    #মুম্বই : মাসকয়েক আগেই তাঁর অসুস্থতার খবরে সংবাদ মাধ্যম থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় সকলের নজরে এসেছিলেন পরিচালক ও কোরিওগ্রাফার রেমো ডিসুজা (Remo D’souza)। এবার ফের হঠাৎ করেই সোশ‍্যাল মিডিয়ার ট্রেন্ডিং তালিকায় প্রায় শীর্ষে উঠে এসেছেন এই জনপ্রিয় কোরিওগ্রাফার। তবে এবার তাঁর শিরোনামে উঠে আসার পেছনে তাঁর নিজের কোনও হাত নেই। বিশেষ কিছু করেননি তিনি। শারীরিকভাবেও সুস্থই আছেন কোরিওগ্রাফার। তাহলে কী কারণে তাঁর নাম আবার শিরোনামে?

    এর জন‍্য সম্পূর্ণ কৃতিত্ব দিতে হয় এক যুবককে। যাঁর একটি ভিডিও সম্প্রতি নেটদুনিয়ায় বেশ ভাইরাল (viral) হয়েছে। আর সেই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পেছনে রয়েছে কোরিওগ্রাফারের নাম। বস্তুত এক সংবাদ মাধ‍্যমেকরোনা চিকিৎসার জন‍্য অতি প্রয়োজনীয় রেমডিসিভির (remdesivir) ইঞ্জেকশনের কালোবাজারি প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া দেওয়ার সময় ভুল করে রেমডিসিভিরকে ‘রেমো ডিসুজা’ বলে বসেন ওই যুবক। নেটমাধ‍্যমে হু হু করে ভাইরাল হচ্ছে সেই ভিডিওটি। চোখ এড়ায়নি কোরিওগ্রাফারের। নিজেও সেই ভিডিও শেয়ার করেছেন তিনি। তবে ভিডিওটি শেয়ার করে রেমো লিখেছেন, ‘শুধুমাত্র মজার জন‍্য’।
    View this post on Instagram

    A post shared by Remo Dsouza (@remodsouza)

    ভিডিওটি নিয়ে রেমোর সঙ্গে মশকরা করেছেন তাঁর বন্ধু ও সতীর্থরাও। জনপ্রিয় কোরিওগ্রাফার টেরেন্স লুইস লিখেছেন, ‘হাসতে হাসতে পেট ব‍্যথা হয়ে গেল। আমার ডান্স ইন্ডিয়া ডান্সের অডিশনের কথা মনে পড়ে গেল যখন প্রতিযোগীরা আমাদের নানা রকম নাম দিতো। তবে এটা পুরোটা শুনে দেখ। ও খুব অর্থপূর্ণ কথা বলেছে। আমাদের দেশের জন‍্য বলেছে ও।’

    অক্সিজেনের মতোই দেশজুড়ে ইদানিং আকাল দেখা দিয়েছে এই করোনা চিকিৎসার গুরুত্বপূর্ণ ইঞ্জেকশনটির। অসাধু ব‍্যবসায়ীরা কালোবাজারি করে ২৫ এর জায়গায় ৪০ হাজার টাকায় বিক্রি করছেন এই প্রয়োজনীয় ওষুধ। পুলিস প্রশাসন তৎপর হয়েছে কালোবাজারি রুখতে। তবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই ওষুধের নামের উচ্চারণ বেশ জটিল। একথা স্বীকার করে নিয়েছেন খোদ কোরিওগ্রাফারও। তাঁর প্রতিক্রিয়ায় রেস থ্রি-এর পরিচালক মজা করে বলেন, "আমিও এই ওষুধকে আমার নামের একটি আন্টি-ভাইরাল ওষুধ বলতেই বেশি সহজ বোধ করব।"

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: