corona virus btn
corona virus btn
Loading

PM CARES: ভেন্টিলেটর কিনতে, পরিযায়ী শ্রমিকদের দেখভালে বরাদ্দ ৩ হাজার কোটি

PM CARES: ভেন্টিলেটর কিনতে, পরিযায়ী শ্রমিকদের দেখভালে বরাদ্দ ৩ হাজার কোটি
প্রথমবার অর্থ বরাদ্দ করল PM CARES ফান্ড৷PHOTO- FILE

পরিযায়ী শ্রমিকদের দেখভাল এবং তাঁদের পরিবহণের জন্য জেলাশাসক ও পুরসভাগুলির মাধ্যমে ১০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হবে৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: PM CARES ফান্ডের ৩১০০ কোটি টাকা ভেন্টিলেটর কিনতে, পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য এবং করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধ তৈরি করার জন্য বরাদ্দ করল প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন ট্রাস্ট৷ PM CARES ফান্ড গঠনের ৫০ দিন পর এই ঘোষণা করল প্রধানমন্ত্রীর দফতর৷ করোনা সংক্রমণ রুখতে প্রধানমন্ত্রীর তৈরি এই তহবিলের টাকা কোন খাতে লাগানো হচ্ছে, তা নিয়ে বার বারই প্রশ্ন তুলেছে বিরোধীরা৷

এ দিন প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, PM CARES ফান্ড থেকে ২০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হবে ভেন্টিলেটর কেনার জন্য৷ এ ছাড়াও এক হাজার কোটি খরচ করা হবে পরিযায়ী শ্রমিকদের স্বার্থে৷ করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক তৈরি করার জন্য আরও ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হবে৷

গত ২৭ মার্চ PM CARES ফান্ডের ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ এই তহবিল পরিচালনার জন্য একটি ট্রাস্ট গঠন করেন তিনি৷ প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এই ট্রাস্টের অন্যান্য সদস্যরা হলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী অমিত শাহ এবর অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ৷ প্রথম লকডাউন ঘোষণার পর পরই এই তহবিল গঠনের ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী৷ এই প্রথম সেই তহবিল থেকে কোনও অর্থ বরাদ্দের ঘোষণা করা হলো৷

জানা গিয়েছে, ২০০০ কোটি টাকা দিয়ে দেশে তৈরি প্রায় ৫০ হাজার ভেন্টিলেটর কেনা হবে৷ যা করোনা রোগীদের আরও ভাল চিকিৎসার জন্য দেশের বিভিন্ন রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের সরকারি হাসপাতালগুলিকে দেওয়া হবে৷

পরিযায়ী শ্রমিকদের দেখভাল এবং তাঁদের পরিবহণের জন্য জেলাশাসক ও পুরসভাগুলির মাধ্যমে ১০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হবে৷ পরিযায়ী শ্রমিকদের খাওয়াদাওয়া, আশ্রয় দেওয়া, চিকিৎসা এবং পরিবহণের পিছনে এই অর্থ খরচ করা হবে৷

রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা কমিশনারের মাধ্যমে এই অর্থ বরাদ্দ করা হবে৷ সংশ্লিষ্ট রাজ্যের জনসংখ্যা এবং করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বিচার করে আর্থিক বরাদ্দের পরিমাণ স্থির করা হবে৷

Published by: SUJOY PAL
First published: May 13, 2020, 9:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर