corona virus btn
corona virus btn
Loading

মুহুর্মুহু হাততালি, কাঁসর-ঘণ্টাধ্বনিতে করোনার বিরুদ্ধে একত্রে যুদ্ধ ঘোষণা দেশবাসীর

মুহুর্মুহু হাততালি, কাঁসর-ঘণ্টাধ্বনিতে করোনার বিরুদ্ধে একত্রে যুদ্ধ ঘোষণা দেশবাসীর

ছাদে বা ব্যাকনিতে দাঁড়িয়ে বাড়ির সদস্যরা কুর্নিশ জানালেন জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত মানুষদের।

  • Share this:

#কলকাতাঃ ঘড়ির কাঁটায় ঠিক বিকাল পাঁচটা। সারাদিনের ছবিটা বদলে গেল এক লহমায়। হঠাৎই বাজতে শুরু করল শঙ্খ, ঘণ্টা, কাঁসর। কোথাও আবার ফাটল   বাজি। কেউ বা বাজালেন বাঁশিও! পাড়া থেকে পাড়া যেন সরগরম হয়ে উঠল অভিনন্দনের আওয়াজে। আর ছোটদের হাতে ধরানো হল থালা, হাতা, খুন্তি।   শহর থেকে শহরতলির প্রতিটা বাড়ির ছাদে বা ব্যালকনি, আবাসনের ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে বাড়ির সদস্যরা কুর্নিশ জানালেন জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত মানুষদের।

করোনা আতঙ্কে কাঁটা গোটা বিশ্ব। করোনা সংক্রমণ রুখতে সারা দেশ স্তব্ধ করে দেওয়ার  পরিকল্পনা বাস্তবায়নের পথে। আগামীকাল অর্থাৎ সোমবার বিকালের পর  থেকে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত জরুরি পরিসেবা ছাড়া বন্ধ থাকবে সব। বন্ধ থাকবে রেল এবং মেট্রো পরিসেবা। তবে মিলবে ওষুধ, দুধ, মুদিখানা দ্রব্য,  পেট্রল-সহ অত্যাবশ্যকীয় পণ্য।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বৃহস্পতিবার জাতির উদ্দেশে ভাষণে দেশবাসীর কাছে আবেদন করেন, ২২ মার্চ সকাল সাত'টা থেকে রাত ন’টা পর্যন্ত 'জনতা কার্ফু' পালন করতে। অর্থাৎ জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত নন, এমন কেউ যেন সেদিন বাড়ি থেকে না বাইরে না যান নিজের ইচ্ছেয়। সেই সঙ্গে আবেদন করেছিলেন, এই দিন ঠিক  বিকাল পাঁচটা বাজলে বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এসে  জরুরি পরিষেবার সঙ্গে জড়িত যে সব স্বাস্থ্যকর্মী ও অন্যান্য কর্মীরা আছেন, তাঁদের হাততালি দিয়ে বা কিছু বাজিয়ে অভিবাদন জানান।

সেই আবেদন রক্ষা করেছে দেশবাসী। মুম্বই থেকে হরিয়ানা, কেরল থেকে বাংলা।  সমাজের জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত মানুষদের পাশে দাঁড়াতে এদিন বিকাল হতেই  ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে আভিবাদন জানিয়েছেন সকলে। সকাল থেকে বিভিন্ন এলাকা ছিল কার্যত শুনশান। যানবাহন প্রায় চলেনি। খুব বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বেরোননি কেউ। তবে কাঁটায় কাঁটায় বিকেল পাঁচটা বাজতেই শুরু হয়ে যায় ঘণ্টাধ্বনি-শঙ্খধ্বনি। ধর্ম, রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে শেষ কবে এভাবে পাড়ার সকলে একযোগে একই  বিষয়ে এভাবে মেতে উঠেছিলেন তা মনে করতে পারেননি অনেকেই।

First published: March 22, 2020, 6:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर