corona virus btn
corona virus btn
Loading

শিলিগুড়িতে করোনার বলি আরও ১, হু হু করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা

শিলিগুড়িতে করোনার বলি আরও ১, হু হু করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা

আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় উদ্বেগ বাড়ছে শহরেও

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: এবারে শিলিগুড়িতে করোনার বলি আরও এক। আজ সকালে কোভিড সন্দেহে হাসপাতালে মৃত্যু হয় এক করোনা আক্রান্তের। তাঁর বাড়ি শিলিগুড়ি পুরসভার ৪৫ নং ওয়ার্ডের বাঘাযতীন কলোনিতে। দিন কয়েক আগে করোনার উপস্বর্গ নিয়ে ভর্তি হন উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে।

গত পরশু তাঁকে কোভিড সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় । আজই তাঁর লালারসের নমুনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। দার্জিলিঙের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রলয় আচার্য জানান, করোনা আক্রান্তে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে শিলিগুড়ির ৪৭ নং ওয়ার্ডে এক রেল কর্মীর মৃত্যু হয় মেডিক্যালে বলে উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেল কর্তৃপক্ষ জানায়। তার আগে উত্তরবঙ্গে প্রথম করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় কালিম্পঙের এক মহিলা।

জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ব্যক্তির কোনো ট্র‍্যাভেল হিস্ট্রি এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। যা যথেষ্ট ভাবাচ্ছে স্বাস্থ্য কর্তাদের। আজই তাঁর মৃতদেহ সরকারীভাবে সৎকার করা হয়। ৪৫ নং ওয়ার্ড পরিদর্শনে যান শিলিগুড়ির মহকুমা শাসক সুমন্ত সহায়। মৃতের বাড়ির চারপাশ স্যানিটাইজড করা হয়। বাঁশের ব্যরিকেড করে দেওয়া হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে। এদিকে আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়ছে হু হু করে।

দার্জিলিং জেলা ও শিলিগুড়ি পুরসভার সংযোজিত ওয়ার্ডে আক্রান্ত বাড়ছে। গত ২৪ ঘন্টায় কার্শিয়ংয়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ জন। শিলিগুড়ি পুর এলাকায় ৭, গ্রামীণ এলাকায় ৬ এবং দার্জিলিংয়ের সোনাদায় ১ জন আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্তদের কোভিড স্পেশাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিকেলেই শহরের মাঝেই মিললো দুই করোনা আক্রান্তের। রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবের ওয়ার্ড ১৭-র বাসিন্দা আক্রান্ত মহিলা সম্প্রতি কলকাতা থেকে ফেরেন। অন্যজন ১২ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা। আক্রান্ত ব্যক্তি উত্তর দিনাজপুর জেলা ফেরত।

সন্ধেয় দুটি ওয়ার্ডে স্যানিটাইজেশন করেন পুরসভার কর্মীরা। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় উদ্বেগ বাড়ছে শহরে। এই মূহূর্তে কোভিড সাস্পেক্টেড হাসপাতাল এবং উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালের আইশোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন অনেকেই।

Partha Sarkar

Published by: Arjun Neogi
First published: June 5, 2020, 8:53 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर