• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • Kolkata Market In Corona : সংক্রমণ ঠেকাতে ৪ দিন বন্ধ থাকবে শহরের ব্যস্ততম বাজার গুলি! দেখে নিন তালিকা...

Kolkata Market In Corona : সংক্রমণ ঠেকাতে ৪ দিন বন্ধ থাকবে শহরের ব্যস্ততম বাজার গুলি! দেখে নিন তালিকা...

প্রতীকী ছবি৷

প্রতীকী ছবি৷

সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে শহরের বেশ কয়েকটি প্রধান অ-অপরিহার্য পণ্য বাজার (Kolkata Non Essential goods market) বন্ধ রাখা হবে চার দিন।

  • Share this:

    #কলকাতা : শহরে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। গোষ্ঠী সংক্রমণের চেন (Coronavirus chain) ভাঙতে এবার কলকাতার বেশ কিছু বাজার (Kolkata Market) বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিল কনফেডারেশন অব ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রেড এসোসিয়েশন। সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে শহরের বেশ কয়েকটি প্রধান অ-অপরিহার্য পণ্য  বাজার (Kolkata Non Essential goods market) বন্ধ রাখা হবে চার দিন। এমনটাই জানিয়েছেন ফেডারেশনের কর্তারা।

    নিত্য ও অপরিহার্য দ্রব্যের বাজারগুলি খোলা থাকলেও বৃহস্পতিবার থেকে রবিবার  পর্যন্ত বন্ধ রাখা হবে চাঁদনী চক, প্রিন্সেপ স্ট্রিট, এজরা স্ট্রিট, ম্যাংগো লেন ও ক্যানিং স্ট্রিট ছাড়াও বেশ কিছু এই ধরণের বাজার। যদিও পোস্তা বাজার ও অন্যান্য কিছু বাজার যেগুলিতে খাদ্য দ্রব্য ও অন্যান্য অপরিহার্য সামগ্রীও পাওয়া সেগুলি কার্যকরী থাকবে।

    বুধবারই এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে কনফেডারেশন অব ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রেড এসোসিয়েশন ( CWBTA )। সংগঠনের প্রধান সুশীল পোদ্দার এদিন জানান, "আমাদের সকল ব্যবসায়ী সদস্যদের কাছে আমাদের আবেদন তারা যেন আগামী চারদিন অর্থাৎ বৃহস্পতিবার থেকে রবিবার পর্যন্ত তাঁদের দোকান পাট বন্ধ রাখেন।" তিনি আরও বলেই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ যে হারে বাড়ছে তাতে গোষ্ঠী সংক্রমণ অর্থাৎ 'চেইন' ভাঙাটা খুবিই জরুরি। সেদিক বিবেচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্যবসায়ী সংগঠন।

    প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহেই করোনাজনিত পরিস্থিতির জেরে উত্তর ২৪ পরগনার বরানগরে নির্দিষ্ট সময়ের পর বাজার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় প্রশাসন। ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেট, বরানগর থানা ও বরানগর পুরসভার এক বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, আপাতত সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টো পর্যন্ত বরানগরে বাজার ও দোকানপাট খোলা থাকবে। তারপর আর বাজার, দোকান খোলা রাখা যাবে না। মাইকে করে প্রচার শুরু করে কর্তৃপক্ষ। এবার একই পথে হাঁটার সিদ্ধান্ত শহরের ব্যস্ততম বাজারগুলিরও।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: