corona virus btn
corona virus btn
Loading

‘একজনেরও যেন চাকরি না যায়’ মোদির ভাষণে ফের সামনে এল মানবিক মুখ

‘একজনেরও যেন চাকরি না যায়’ মোদির ভাষণে ফের সামনে এল মানবিক মুখ

নরেন্দ্র মোদি জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে যা বললেন...

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ভারতের মতো দেশের পক্ষে যেখানে জীবন বাঁচানোর জন্য করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করা যেমন বড় চ্যালেঞ্জ তেমনিই দেশের অর্থনীতি বাঁচিয়ে রাখাও বড় চ্যালেঞ্জ ৷ এই লড়াইতে ়েভাবে টানা ৪০ দিনের লকডাউনে বিভিন্ন সেক্টর ক্ষতিগ্রস্ত হবে তাতে ভীষণভাবেই কর্মী ছাঁটাই হওয়ার সম্ভবনা সকলের মনেই ঘুরছিল ৷

তিনি করোনার বিরুদ্ধে লড়াইের জন্য সাতটি নিয়মের ঘোষণা করেছেন ৷ সেখানেই তিনি সমস্ত কর্মীনিয়োগকারী সংস্থাদের কাছে আবেদন করেন এই অবস্থার মধ্যে ও পরে যেন কোনও একজন কর্মচারীরও চাকরি না যায় ৷ কারণ করোনা ভাইরাসের মারণ থাবার সঙ্গে যেরকম লড়াই করছে মানুষ তেমনিই নিজেদের কর্ম সংক্রান্ত নিরাপত্তা নিয়ে একইরমক ভাবে চিন্তিত ৷প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এদিন যেভাবে নিজের ভাষণে মানবিক মুখ দেখিয়েছেন তাতে সকলেই একটু হলেও হয়ত আশ্বস্ত হবেন ৷

এদিকে এর আগে করোনা যুদ্ধে ভারতবাসীর লড়াইকে কুর্নিশ করে ফের একবার জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিলেন নরেন্দ্র মোদি ৷ ১৪ এপ্রিল ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে নতুন বছর শুরুর সময় ৷ ২১ দিনের লকডাউনের শেষে নতুন করে আরও ৩ মে অবধি লকডাউন ঘোষণা করেন নরেন্দ্র মোদি ৷

এদিকে ভারত খন সারা দেশে ৫৫০ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত ছিল তখন লকডাউনের ঘোষণা করে ভারত ৷ আর তৃতীয় বিশ্বের দেশ হিসেবে বিশেষ অর্থনৈতিক ক্ষতির সামনে পড়তে হয়েছে ভারতকে ৷ কিন্তু তাও সেটা মেনে নেবে দেশ ৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়ে দিয়েছেন দেশের মানুষের জীবনের চেয়ে কোনও কিছু দামি নয় ৷

তাই ভারত সেই মানুষের জীবন বাঁচানোর ব্রত নিয়েই এগিয়ে গেছে ৷ পাশাপাশি নরেন্দ্র মোদি আরও জানিয়েছে হটস্পট চিহ্নিতকরণের কাজ চলছে ২০ এপ্রিল মাসের মধ্যে সেটা করা হবে ৷

তারপর সেই এলাকায় লকডাউন অত্যন্ত কড়া ভাবে মানা হবে ৷ কেউ বেরোতে পারবে তখনই খন প্রয়োজন অত্যন্ত বেশি হবে ৷

#LIVE – India took the major step of a lockdown with only 550 cases of coronavirus: Prime Minister Narendra Modi addresses the nation on COVID-19.#IndiaFightsCOVID19 #StayHome pic.twitter.com/wbYFKVeqMG — CNNNews18 (@CNNnews18) April 14, 2020
Published by: Debalina Datta
First published: April 14, 2020, 11:01 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर