হোম /খবর /করোনা ভাইরাস /
করোনা যোদ্ধাদের কুর্নিশ জানাতে গিয়ে বড় ভুল, আবেগতাড়িত হয়ে স্বতঃফূর্ত মিছিল

করোনা যোদ্ধাদের কুর্নিশ জানাতে গিয়ে বড় ভুল, আবেগতাড়িত হয়ে রাস্তায় নেমে স্বতঃফূর্ত ‘মিছিল’ মালদহে

কাঁসর, ঘন্টা ,শঙ্খ বাজিয়ে উলুধ্বনি মিলিয়ে যেন উৎসবের মেজাজ। সর্তকতা ভেঙে অনেক জায়গায় জমায়েতে সামিল হয়ে যান ৫০ থেকে ১০০ মানুষ।

  • Share this:

#মালদহ: করোনা হিরোদের অভিনন্দন জানাতে গিয়ে আবেগতাড়িত হয়ে অনেক জায়গায় স্বতঃফূর্ত ‘মিছিল’ করে বসলেন এলাকার বাসিন্দারা।রবিবার বিকেলে এমনই উদ্বেগজনক ছবি ধরা পড়ল মালদহের বেশ কিছু এলাকায়। কাঁসর, ঘন্টা, শঙ্খ বাজিয়ে উলুধ্বনি মিলিয়ে যেন উৎসবের মেজাজ। সর্তকতা ভেঙে অনেক জায়গায় জমায়েতে সামিল হয়ে যান ৫০ থেকে ১০০ মানুষ। পরিস্থিতি সামলাতে অনেকে জায়গায় সক্রিয় হতে হয় পুলিশকে।

কথা ছিল, করোনা সংক্রমন ঠেকাতে গৃহবন্দী থাকবেন মানুষ। যাতে কোনও ভাবেই একে অন্যের সংস্পর্শে এসে বিপদের আশঙ্কা না বাড়ান। আরও বলা হয়েছিল, একান্তই জরুরী প্রয়োজনে যাঁরা জনতা কারফিউ-এর মধ্যেও মানুষের জন্য পরিষেবামূলক কাজ করবেন, তাঁদের সম্মান জানাতে বিকেল পাঁচটায় বাড়ির ছাদে কিংবা বারান্দায় দাঁড়িয়ে কাঁসর ঘন্টা বাজিয়ে কিংবা নূন্যতম হাততালি দিয়ে বার্তা দেবেন সচেতন মানুষ।

বহু জায়গাতে নিয়ম মেনে সময়মতো বাড়ির বাইরে বারান্দা বা ছাদে দাঁড়িয়ে অথাৎ অন্যের সংস্পর্শ এড়িয়ে অনেকেই এই কাজ করেন। কিন্তু, বহুক্ষেত্রেই ধরা পড়ে এর উল্টো ছবি। সকাল থেকে গৃহবন্দী লোকজন বিকেল পাঁচটা বাজতেই আচমকাই রাস্তায় নেমে পড়েন। এভাবে একে অন্যের দেখে রীতিমতো জমায়েত তৈরি হয়। আবেগতাড়িত হয়ে অনেক পাড়ায় লোকজন মিছিল বের করে ফেলেন। যা করোনা পরিস্থিতিতে অত্যন্ত বিপদ্দজনক। কারণ এভাবে বহু মানুষই একে অন্যের সংস্পর্শে চলে এসেছেন। বাড়িতে থেকে বা নিরাপদ দূরত্বে থেকে কুর্নিশ জানানোর মূল উদ্দেশ্যই অনেকক্ষেত্রে ব্যহত হয়েছে এই অনিয়ন্ত্রিত আবেগে। পরে অবশ্য খবর পেয়ে বেশীর জায়গা থেকে পুলিশ হইচই, জমায়েত সরিয়ে দেয়।

Published by:Simli Raha
First published:

Tags: Coronavirus, Janta Curfew, Maldah, Social gathering