‘রোজ গোমূত্র পানে সেরে যায় কোভিডের ফুসফুস সংক্রমণ’, দাবি সাধ্বী প্রজ্ঞার

সাধ্বী প্রজ্ঞা, ফাইল চিত্র

  • Share this:

    ভোপাল : কোভিডের ফলে হওয়া ফুসফস সংক্রমণ সেরে যায় গোমূত্র সেবনে ৷ অতিমারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিধ্বস্ত দেশে আরও একবার মুখ খুলে বিপাকে প্রজ্ঞা ঠাকুর ৷ বিজেপি সাংসদের দাবি, তিনি রোজ গোমূত্র সেবন করেন ৷ তাই তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হননি ৷ গত বছর ডিসেম্বর মাসে কোভিডের উপসর্গ নিয়ে তিনি দিল্লির এইমস-এ ভর্তি হয়েছিলেন ৷ তবে তাঁর কোভিড রিপোর্ট নেগেটিভ আসে৷

    ‘‘ প্রতিদিন যদি দেশি গোমূত্র পান করা যায়, তবে তা কোভিড থেকে হওয়া ফুসফুস সংক্রমণ সারিয়ে দেয় ৷ আমি রোজ গোমূত্র পান করি ৷ তাই করোনা প্রতিরোধে আমাকে কোনও ওষুধ খেতে হয় না ৷’’ দলীয় সমাবেশে এ কথা বলেছেন প্রজ্ঞা ঠাকুর ৷ তাঁর মতে, গোমূত্র জীবনদায়ী ৷ নিজেকে সাধ্বী হিসেবে দাবি করা প্রজ্ঞার দু বছর আগে দাবি করেছিলেন দুটি গোজাত দ্রব্যের সঙ্গে গোমূত্র মিশিয়ে পান করে তাঁর ক্যানসার নিরাময় হয়েছে ৷

    এদিকে অতিমারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন ইতিমধ্যেই দাবি করেছে, কোভিড নিরাময়ের ক্ষেত্রে গোবর বা গোমূত্রের কার্যকারিতার কোনও প্রমাণিত বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই ৷ কোভিড প্রতিরোধে শারীরিক সক্ষমতা বাড়াতেও এই দুইয়ের কোনও ভূমিকার কোনও বিজ্ঞানসম্মত প্রমাণ নেই বলে চিকিৎসকদের এই সংস্থার দাবি ৷

    তবে সাধ্বী প্রজ্ঞা ঠাকুর একা নন৷ চলতি মাসের গোড়ায় উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সাংসদ সুরেন্দ্র সিংও দাবি করেছিলেন গোমূ্ত্র পান করার ফলে তিনি করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষিত আছেন ৷ অতিমারিতে সুস্থ থাকার জন্য তিনি সকলকে এক গ্লাস ঠান্ডা জলের সঙ্গে গোমূত্র পান করার পরামর্শ দেন ৷

    নিজে গোমূ্ত্র পান করার কথা জানিয়েছেন দিলীপ ঘোষও৷ কোভিড থেকে সুস্থ থাকতে তিনিও নিয়মিত গোমূত্র পান করার কথা বলেছিলেন ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: