#Coronavirus: কলকাতার করোনা আক্রান্তের শুধু মা নন. ডাক্তার বাবাও পরিচয় দিলেন দায়িত্বহীনতার

#Coronavirus: কলকাতার করোনা আক্রান্তের শুধু মা নন. ডাক্তার বাবাও পরিচয় দিলেন দায়িত্বহীনতার

এ কেমন শিক্ষিত পরিবার!

  • Share this:

#কলকাতা : করোনা  আক্রান্তের মায়ের দায়িত্বজ্ঞানহীনতার ছবি আগেই সামনে এসেছিল এবার সামনে এল চিকিৎসক বাবারও দায়িত্বজ্ঞানহীনতা ৷ আক্রান্তের বাবা কৃষ্ণনগরের চিকিৎসক ৷ রবিবার বিমানবন্দরে ছেলেকে আনতে যান তিনি, এরপর বিমানবন্দর থেকে আক্রান্তের বাবা কৃষ্ণনগরে যান এমনটাই জানিয়েছেন নদিয়ার ডেপুটি CMOH-2 ৷ ডেপুটি CMOH-2 অসিতকুমার দেওয়ান জানিয়েছেন আক্রান্তের বাবার সংস্পর্শে আসেন ৮ জন ৷

সেই ৮ জনকে গৃহ পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে ৷ ৮ জনের নমুনা পজিটিভ হলে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৷ কৃষ্ণনগরে গিয়ে রোগী দেখেন আক্রান্তের বাবা ৷ওই রোগীদের খোঁজ চলছে বলেছেন ডেপুটি CMOH-2 ৷

এর আগে কোয়ারান্টাইন থেকে বেলেঘাটা আইডি আইডিতে ভর্তি  আক্রান্ত তরুণের বাবা-মা৷  করোনা আক্রান্ত লন্ডন ফেরত কলকাতার তরুণ আইডিতে ভর্তি, সঙ্গে ভর্তি  তরুণের গাড়ির চালকও৷  ১৫ ফেব্রুয়ারি আইডিতে আসেন তরুণ হাসপাতালে এলেও ভর্তি হননি ৷ তরুণ ভরতি না হওয়ার কথা জানান সুপার ৷ এরপরের দিন এম আর বাঙুরেও যান করোনা আক্রান্ত তরুণ৷ সেখানও তাঁকে হাসাপাতালে ভর্তি হওয়ার কথা বলা হলে তিনি এড়িয়ে যান৷ এদিকে বাঙুরের চিকিৎসককেও আইডিতে পাঠান হল সঙ্গী স্বাস্থ্যকর্মীও বেলেঘাটা আইডিতে ভর্তি৷

এই তরুণ লন্ডন থেকে ফেরার পর একাধিক জায়গায় যান ৷ যারমধ্যে রয়েছে নবান্ন, দক্ষিণ কলকাতার শপিং মল থেকে শুরু করে রেস্তোরাঁ ৷ সব মিলিয়ে আতঙ্ক সীমা ছাড়ালেও খতিয়ে দেখা হচ্ছে ঠিক কত মানুষ তাঁর সংস্পর্শে এসেছে৷

এদিকে বহু সতর্কতা সত্ত্বেও মঙ্গলবারই রাজ্যে ঢুকেই পড়ল করোনা । কলকাতায় করোনার হানায় চূড়ান্ত সতর্ক রাজ্য । গতকালই কলকাতায খোঁজ মিলেছে প্রথম আক্রান্তের । নজরে রয়েছেন আক্রান্ত তরুণ । সদ্য ইংল্যান্ড থেকে ফেরেন তিনি ৷ তাঁকে ভর্তি করা হয়েছে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ৷ স্বাস্থ্য দফতর সূত্রের খবর যে, তাঁর শরীরে নভেল করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব মিলেছে ৷ শারীরিক পরীক্ষায় তা পজেটিভ পাওয়া যায় ৷ যদিও প্রাথমিক যে সব উপসর্গ দেখা যাওয়ার কথা, তা তাঁর শরীরে দেখা যায়নি ৷

এরপরেই সমস্ত রকম সাবধানতা নিতে ওই তরুণের সহযাত্রীদের নামের তলিকা চেয়ে পাঠিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর । ইংল্যান্ড থেকে ফেরার সময় দিল্লি হয়ে ফিরেছেন ওই তরুণ । ফলে দিল্লিতে নামা বিমানযাত্রীদের তালিকাও চেয়ে পাঠানো হয়েছে। তরুণের আসনের আগে-পরের ৩ সারির সকলকেই পাঠানো হয়েছে কোয়ারান্টিনে । খোঁজ চলছে কেবিন ক্রু, পাইলট ও কো পাইলটের । বিমানবন্দরের বাস চালকেরও খোঁজ নেওয়া হচ্ছে । সংক্রমণ ঠেকাতে যাত্রী, বিমানকর্মীদের গৃহ পর্যবেক্ষণে রাখা হবে ।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, দক্ষিণ কলকাতার বাসিন্দা ওই তরুণের বাবা, মা ও গাড়ির চালককেও হাসপাতালে ভর্তি করে রাখা হয়েছে। সকলেই কোয়ারেন্টাইনে। ওই তরুণ আর কার কার সংস্পর্শে এসেছেন তার খোঁজ চলছে। জানা গিয়েছে কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় পর্যায়ে রয়েছেন ওই তরুণ। হাসপাতাল সূত্রে খবর, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কলেরা অ্যান্ড এন্টেরিক ডিজিসেস (নাইসেড)-এ তরুণের লালারসের নমুনা পাঠানো হয়েছিল। মঙ্গলবার রাতে সেই রিপোর্ট আসে। সেই রিপোর্টে জানা যায় তা পজিটিভ। জানা গিয়েছে, ইংল্যান্ডে গিয়ে ওই তরুণ একটি পার্টিতে অংশ নেন। সেই পার্টিতে কয়েকজন করোনাভাইরাস আক্রান্ত ছিলেন। তার থেকেই তরুণের শরীরে ভাইরাস এসেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

First published: March 18, 2020, 8:15 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर