কেন্দ্রের আর্থিক প্যাকেজের প্রশংসায় বামেরাও, ভিনরাজ্যে থাকা শ্রমিকদেরও সাহায্যের দাবি সূর্যকান্তের

কেন্দ্রের আর্থিক প্যাকেজের প্রশংসায় বামেরাও, ভিনরাজ্যে থাকা শ্রমিকদেরও সাহায্যের দাবি সূর্যকান্তের

প্রায় ৮০ কোটি মানুষ সুবিধা পাবেন। কাউকে যাতে না খেয়ে থাকতে হয়, তার নিশ্চিত করতে উদ্যোগী কেন্দ্র।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে লকডাউন। এই অবস্থায় গরিব মানুষের দিকে তাকিয়ে ১ লক্ষ ৭০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। দেশের অধিকাংশ মানুষকে বিনা পয়সায় খাদ্যশস্য সরবরাহ করবে মোদি সরকার। সঙ্গে গরিব মানুষের হাতে কিছুটা টাকা তুলে দেওয়ারও ব্যবস্থা হল। তবে লকডাউনে যাদের ব্যবসা লাটে উঠেছে, তাদের জন্য কোনও ঘোষণা এদিন করেন নি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

- ৮০ কোটি মানুষের মুখে ভাত -গরিবদের জন্য কেন্দ্রের প্যাকেজ
- ১ লক্ষ ৭০ হাজার কোটির প্যাকেজ - বিপিএল পরিবারকে আর্থিক সাহায্য

করোনা মোকাবিলায় গোটা দেশে লকবন্দি। দিন আনি-দিন খাই মানুষদের রোজপারও বন্ধ। তাদের ভবিষ্যত নিয়ে আশঙ্কা বাড়ল। দেশের সেই বিপুল অংশের পাশে দাঁড়াতে আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী যে ঘোষণা করেছেন, তাতে প্রায় ৮০ কোটি মানুষ সুবিধা পাবেন। কাউকে যাতে না খেয়ে থাকতে হয়, তার নিশ্চিত করতে উদ্যোগী কেন্দ্র।

প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনায় ১০ কেজি করে চাল অথবা গম করে আগামী তিন মাস ধরে মাথাপিছু পাবেন উপভোক্তরা ৷ সঙ্গে পরিবার পিছু এক কেজি করে ডাল করে দেওয়া হবে৷ পুরোটাই দেওয়া হবে বিনামূল্যে৷ এতে উপকৃত হবে প্রায় ৮০ কোটি পরিবার ৷

প্রধানমন্ত্রী গরিবকল্যাণ অন্ন যোজনা ৷ অন্ন যোজনায় ৫ কেজি চাল-আটা, ১ কেজি ডাল ৷ ৮০ কোটি দরিদ্রকে খাবার সরবরাহ ৷ বরাদ্দ রেশনের বাইরে এই সুবিধা দেওয়া হবে ৷ করোনা মোকাবিলায় দেশ যাদের দিকে তাকিয়ে সেই চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যমন্ত্রীদের জন্যও বড় ঘোষণা এদিন কেন্দ্রের। গরিব মহিলাদের হাতে কিছু টাকা দিচ্ছে কেন্দ্র। ৩ মাস ধরে রান্নার গ্যাসও সরবরাহ করা হবে। নির্মাণকর্মী, একশো দিনের কাজে যুক্ত পরিবার, কৃষক, ক্ষুদ্র ও মাঝারি সংস্থায় কর্মরতদের জন্যও একাধিক সুবিধা ঘোষণা কেন্দ্রের।

কেন্দ্রের ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছেন বাম নেতা সূর্যকান্ত মিশ্র ৷  তিনি বলেন,বরাদ্দ বাড়িয়েছে কেন্দ্র ৷ ভিনরাজ্যে কাজ করা শ্রমিকরা সমস্যায় রয়েছে ৷ তাদের  খাদ্য, বাসস্থানের ব্যবস্থা হোক ৷ কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিক ৷ আগেই সতর্কতা নিতে হত ৷ সকলকে রেশন দিক কেন্দ্র ৷

বাজারে চাল, ডাল, সবজি বিক্রেতা, যে কয়েক কোটি মানুষ ছোট দোকান বা ব্যবসা চালান, তাদের কী হবে? লকডাউনে এই মানুষগুলোও অনিশ্চয়তার মুখে। তাদের রেহাই দিতে কোনও ঘোষণা এখনও করেনি কেন্দ্র।

First published: March 26, 2020, 6:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर