corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনাভাইরাসের প্রভাব, মুদির দোকানেও বিক্রি হচ্ছে মাস্ক 

করোনাভাইরাসের প্রভাব, মুদির দোকানেও বিক্রি হচ্ছে মাস্ক 

করোনাভাইরাসের আতঙ্ক এখন সর্বত্র। বিশেষ করে কলকাতায় প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্তের খবর আসার পর সবাই এখন সতর্ক

  • Share this:

#কলকাতা: কথায় বলে কারও পৌষ মাস তো কারও সর্বনাশ। করোনা ভাইরাসের জেরে মুদির দোকানেও মিলছে মাস্ক। তবে সেগুলো n95 নয়, অতি সাধারণ মানের মাস্ক। বিক্রিও হচ্ছে চড়া দামে।

করোনাভাইরাসের আতঙ্ক এখন সর্বত্র। বিশেষ করে কলকাতায় প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্তের খবর আসার পর সবাই এখন সতর্ক। সরকারের বলে দেওয়া করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নির্দেশ নামা অনুসরণ করতে গিয়েে মাস্ক এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার কেনার হিড়িক পড়ে গিয়েছে। করোনাভাইরাসের জন্য যে n95 মাস্ক ব্যবহার করতে বলা হচ্ছে, তার চাহিদা এত বেশি যে যোগান দিয়ে ওঠা সম্ভব হচ্ছে না। অ্যালকোহল যুক্ত হ্যান্ড স্যানিটাইজারও অমিল। এই সুযোগকে কাজে লাগাতে বাজারে নেমে পড়েছে একদল অসাধু ব্যবসায়ীও ।

সাধারণ মানুষের অজ্ঞতার সুবিধা নিয়ে মুদির দোকানেও বিক্রি হচ্ছে মাস্ক। বাগুইআটি বাজারে বেশ কয়েকটি মুদির দোকানে শ্যাম্পুর পাতা, পেন্সিল ব্যাটারির সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে মাস্কের প্যাকেটও। যে মাস্কগুলি বিক্রি হচ্ছে সেগুলো কোনটাই n95 নয়। অতি সাধারণ মানের, কোনওটা কাপড়, কোনটা প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি মাস্ক। তপন দাস নামে এক দোকানী বলেন, 'এখন আর ওসব দেখে লাভ নেই। করোনা কলকাতাতে ঢুকে গিয়েছে। n95 পাবেন না। এ'গুলিই এখন চলছে।' তপনবাবুর দোকানে দু'রকমের মাস্ক রয়েছে। একটার দাম ১২৫ টাকা অপরটার দাম ৬০ টাকা। তিনি বলেন, ' ২৫ পিস করে এই দু'রকম মাস্ক তুলেছিলাম। এখন চার-পাঁচটা করে পড়ে রয়েছে। আরও অর্ডার দিয়েছি।' তপন দাসের দোকান থেকে একটু এগোলেই শ্যামসুন্দর ভাণ্ডার। সেখানেও পাওয়া যাচ্ছে মাস্ক। সেই দোকানের কর্মচারী সন্তোষ জানান, ' কিছুদিন ধরেই খরিদ্দাররা মাস্কের খোঁজ করছিলেন। পরশু(মঙ্গলবার) থেকে রাখছি। লোকে কিনছেও।' তবে এই দোকানে দাম কিছুটা কম। যে মাস্কটি তপন দাসের দোকানে বিক্রি হচ্ছে ১২৫ টাকায় সেটি এই দোকানে বিক্রি হচ্ছে ১১০ টাকায়। দুটো দোকানেই হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিক্রি হচ্ছে। তবে এক্ষেত্রে দামের কোনও হেরফের নেই।

SOUJAN MONDAL

First published: March 19, 2020, 4:05 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर