Home /News /coronavirus-latest-news /
কেমন করে কাটতে হবে শ্রমিক ট্রেনের টিকিট, নয়া নির্দেশিকা জারি, জেনে নিন

কেমন করে কাটতে হবে শ্রমিক ট্রেনের টিকিট, নয়া নির্দেশিকা জারি, জেনে নিন

২২ মার্চের পর ১২ মে ৷ ৫২ দিন পর তৃতীয় দফার লকডাউনের মধ্যেই চালু হচ্ছে যাত্রীবাহী ট্রেন। মঙ্গলবার থেকে দিল্লি ও পনেরোটি শহরের মধ্যে ট্রেন চালাবে রেলমন্ত্রক। বুকিং শুরু হওয়ার তিনঘণ্টার মধ্যে বিক্রি হয়ে গিয়েছে ৫৪ হাজার আসন। কিন্তু করোনা আবহে বদলে গিয়েছে ট্রেনযাত্রার সমস্ত নিয়ম ৷ থাকবে না কোনও ওয়েটিং লিস্ট, আরএসি ৷Representative image. (PTI Photo)

২২ মার্চের পর ১২ মে ৷ ৫২ দিন পর তৃতীয় দফার লকডাউনের মধ্যেই চালু হচ্ছে যাত্রীবাহী ট্রেন। মঙ্গলবার থেকে দিল্লি ও পনেরোটি শহরের মধ্যে ট্রেন চালাবে রেলমন্ত্রক। বুকিং শুরু হওয়ার তিনঘণ্টার মধ্যে বিক্রি হয়ে গিয়েছে ৫৪ হাজার আসন। কিন্তু করোনা আবহে বদলে গিয়েছে ট্রেনযাত্রার সমস্ত নিয়ম ৷ থাকবে না কোনও ওয়েটিং লিস্ট, আরএসি ৷Representative image. (PTI Photo)

করোনা ভাইরাসের মারণ প্রকোপে দিশেহারা অবস্থা পরিযায়ী শ্রমিকদের

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি : করোনা ভাইরাসের মারণ সংক্রমণে দেশে একের পর এক লকডাউন পর্ব চলছে ৷ সারা দেশে সবরকমের পরিবহণ ব্যবস্থা পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে ৷ এই অবস্থায় পরিযায়ী শ্রমিকদের অবস্থা সবচেয়ে শোচনীয় ৷ ১ মে কেন্দ্র সরকার সিদ্ধান্ত নেয় এই শ্রমিকরা যাতে নিজের নিজের বাড়ি ফিরতে পারেন তাই এঁদের জন্য বিশেষ ট্রেন চলবে ৷ সেই ট্রেনের বিষয়ে ফের এক গুচ্ছ নয়া নির্দেশিকা জারি করল মন্ত্রক ৷

    এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূ্র্ণ হল টিকিট নিয়ে সিদ্ধান্ত ৷ শ্রমিক ট্রেনের জন্য বিশেষ টিকিট দেবে রেলওয়ে ৷ যাতে নির্দিষ্ট যাত্রা শুরুর ও একদম শেষের স্টেশনের নাম প্রিন্ট করা থাকবে ৷ স্থানীয় সরকার নিজেদের ব্যবস্থাপনায় সেই নির্দিষ্ট গন্তব্যের টিকিট পরিযায়ী শ্রমিকদের হাতে তুলে দেবে ৷ তারাই টিকিটের ভাড়া সংগ্রহ করবে ৷ তারপর সেই সংগৃহীত টাকা রেলওয়েকে তুলে দেবে এমনটাই জানিয়েছে রেলওয়ে মন্ত্রক ৷

    যে রাজ্য থেকে ট্রেন শুরু হবে আর যে রাজ্য অবধি শ্রমিকরা পৌঁছবে তার সংখ্যার হিসেব নিয়ে রেলওয়েকে সেই সংখ্যা জানানো হবে ৷ তারপরে সেই প্রস্তাব অনুযায়ি ট্রেনের ব্যবস্থা করবে রেলওয়ে ৷

    ৫০০ কিলোমিটারের বেশি দূরত্বে চলবে এই ট্রেন আর শুরু আর শেষের স্টেশনেই থামবে এই বিশেষ শ্রমিক ট্রেনগুলি ৷ যে স্টেশন থেকে ট্রেনে যাত্রীরা চাপবেন সেখানে শারীরিক পরীক্ষা করা হবে আরোহীদের ৷ যাদের শরীরে করোনা ভাইরাসের লক্ষণ নেই তারাই এই ট্রেনে চাপতে পারবেন ৷

    আরও পড়ুন - ‘আমাদের ঠিক কী হবে’ পেটের দায়ে আজ ফুড ডেলিভারি করছেন স্ট্রিপ ডান্সাররা, দেখুন করুণ ছবি

    রাজ্য সরকাররা স্যানেটাইজড বাসে করে শ্রমিকদের ব্যাচে ব্যাচে রেলওয়ে স্টেশনে নিয়ে আসবেন ৷ এক একটি ট্রেনে সবচেয়ে বেশি ১২০০ জন করে পরিযায়ী শ্রমিক চাপবেন ৷ যে রাজ্য থেকে ট্রেন ছাড়বে তারা ট্রেনের যাত্রীদের জন্য খাবার প্যাকেট ও জলের ব্যবস্থা করবেন ৷ ১২ ঘণ্টার বেশি যাত্রায় একজন যাত্রী পিছু একটি করে ফুড প্যাকেট দেওয়া হবে ৷

    যাত্রীদের ়যাত্রা সূচনাকারী স্টেশনে আরোগ্য সেতু অ্যাপ নামাতে অনুরোধ করবে সংশ্লিষ্ট সরকার ৷ দেখে নিন রেলওয়ের সম্পূর্ণ নির্দেশাবলী ৷

    Published by:Debalina Datta
    First published:

    Tags: Migrant labourer, Shramik Train, Train

    পরবর্তী খবর