corona virus btn
corona virus btn
Loading

'মৃতদেহ গায়েব' করছে রাজ্য, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুললেন দিলীপ

'মৃতদেহ গায়েব' করছে রাজ্য, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুললেন দিলীপ
বিজেপি রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষ

খড়্গপুরের সাংসদের দাবি, এই ধরনের ভিডিও যাতে কেউ রেকর্ড করতে না পারেন তার জন্য হাসপাতালে মোবাইল নিয়েও প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না৷

  • Share this:
 

#কলকাতা: করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা লুকোতে মৃতদেহ গায়েব করে দিচ্ছে রাজ্য সরকার৷ এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুললেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ তাঁর দাবি, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে এমন অনেকের পরিজনই মৃতদেহ কোথায় সৎকার করা হচ্ছে তা জানতে পারছেন না৷

এ দিন সাংবাদিক বৈঠকে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দাবি করেন, 'একাধিক মৃতদেহ হাসপাতালে হাসপাতালে পড়ে আছে৷ লুকিয়ে পোড়াতে গিয়ে বা কবর দিতে গিয়ে অনেক জায়গায় পুলিশকে সাধারণ মানুষের বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয়েছে তার ভিডিও আমরা পেয়েছি৷ কালকে উলুবেড়িয়াতে এক জায়গায় মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল৷ সাধারণ মানুষ এবং হাসপাতালের কর্মীদের বিরোধিতায় শেষ পর্যন্ত মৃতদেহ সেখান থেকে তুলে নিতে বাধ্য হয় পুলিশ৷'

খড়্গপুরের সাংসদের দাবি, এই ধরনের ভিডিও যাতে কেউ রেকর্ড করতে না পারেন তার জন্য হাসপাতালে মোবাইল নিয়েও প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না৷ ফলে হাসপাতালে ভর্তি রোগীরা পরিবারের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখতে পারছেন না বলে অভিযোগ দিলীপের৷ তাঁর দাবি, 'একাধিক জায়গায় পরিজনরা জানতে পারছেন না তাঁদের রোগীকে কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে৷ কোন হাসপাতালে মারা গেলেন, কোথায় পোড়ানো হলো, কোনও খবর নেই৷ বুঝতে পারছিনা এই ধরনের মৃতদেহ গায়েব করা, রোগীদের গায়েব করা, মানুষকে কষ্ট দেওয়ার কী উদ্দেশ্য থাকতে পারে৷'

প্রসঙ্গত এ দিনই রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা নবান্নে জানিয়েছেন, রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ৫৭ জনের মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখেছে বিশেষজ্ঞ কমিটি৷ তার মধ্য ১৮ জনের মৃত্যুর কারণ করোনা বলে জানানো হয়েছে৷ বাকিদের শরীরে করোনা সংক্রমণের প্রমাণ পেলেও তাঁদের অন্য রোগে মৃত্যু হয়েছে বলে মত দিয়েছে রাজ্য সরকারের তৈরি করা অডিট কমিটি৷

দিলীপবাবুর অভিযোগ, বিজেপি-র একাধিক মন্ত্রী এবং সাংসদদের বাড়িতে কোয়ারেন্টিন নোটিশ লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে৷ তাঁর পাল্টা দাবি, আগে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো উচিত৷ কারণ তিনি লকডাউনের মধ্যেই রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন৷ দিলীপবাবু জানিয়েছেন, রাজ্যের হাসপাতালগুলির পরিস্থিতি, ভেঙে পড়া স্বাস্থ্য ব্যবস্থা এবং রেশন ব্যবস্থার বেনিয়ম নিয়ে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের কাছে অভিযোগ জানাচ্ছেন তাঁরা৷

First published: April 24, 2020, 10:41 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर