corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনার প্রভাব বেঙ্গল সাফারি পার্কেও! চলছে স্প্রে, কর্মীদের হাতে গ্লাভস, মুখে মাস্ক!

করোনার প্রভাব বেঙ্গল সাফারি পার্কেও! চলছে স্প্রে, কর্মীদের হাতে গ্লাভস, মুখে মাস্ক!
  • Share this:

Partha Sarkar

#শিলিগুড়ি: করোনায় কাঁপছে গোটা বিশ্ব। কাঁপুনি আমাদের দেশেও। কড়া সতর্কতা সর্বত্র। সীমান্ত থেকে জনবহুল এলাকা। সমান নজরদারি। এবারে করোনার প্রভাব এসে পড়লো শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি পার্কেও। পার্কে প্রচুর পর্যটক আসে। তাই কড়া সতর্কতা নিয়েছে সাফারি কর্তৃপক্ষ। জু অথরিটি অব ইণ্ডিয়া একটি গাইড লাইন পাঠিয়েছে। সেই মতোই ব্যবস্থা নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। প্রতিটি কর্মীকে হ্যাণ্ড গ্লাভস এবং মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আর যারা সরাসরি পর্যটকদের সঙ্গে থাকেন তাঁদের নিয়মিত হ্যাণ্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেই মতো সাফারি পার্কের কর্মীদের হাতে গ্লাভস এবং মাস্ক পড়ে ডিউটি করতে হচ্ছে। পর্যটকদের জন্যেও হ্যাণ্ড স্যানিটাইজার রাখা হয়েছে।

করোনার জেরে পর্যটকদের সংখ্যাও এক ধাক্কায় অনেকটাই কমেছে। রবিবাসরীয় ছুটির দিনেও তেমন ভিড় দেখা যায় নি। কেননা কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের নির্দেশেই বলা হয়েছে জনসমাগম থেকে দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। আর তাই ছুটির দিন গুলোতে তুলনায় ফাঁকা বেঙ্গল সাফারি পার্ক। অন্য শনি ও রবিবারে তিল ধারনের জায়গা থাকে না এখানে। বিদেশী পর্যটকদের সরাসরি "না" বলেনি। তবে বিদেশীদের সাফারি পার্ক বেড়াতে আসার ক্ষেত্রে কড়াকড়ি বেশী নেওয়া হয়েছে। যেভাবে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। তাই এই সতর্কতা বলে সাফারি পার্ক সূত্রে জানা গিয়েছে। আগামিকাল সোমবার বিভিন্ন চিড়িয়াখানা, পুনর্বাসন কেন্দ্র এবং পার্কের আধিকারীকদের নিয়ে জরুরি বৈঠক বসবে। সেখানে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এদিকে সাফারি পার্ক সূত্রে জানা গিয়েছে, জন্তুদের খাবারের মেনুতেও পরিবর্তন আনা হয়েছে।

মাংসাশী প্রাণীদের মেনু থেকে উধাও চিকেন! পরিবর্তে রেড মিট দেওয়া হচ্ছে। সেই মিটও নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় সেদ্ধ করার পর দেওয়া হচ্ছে। সাফারি পার্ক চত্বর সংক্রমণমুক্ত রাখতেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সাফারি পার্কের প্রবেশদ্বার থেকে পর্যটকেরা যেখানে যায় সেইসব এলাকায় সংক্রমণ প্রতিষেধক রাসায়নিক স্প্রে করা হচ্ছে। এমনকী সাফারি করতে যাওয়া প্রতিটি গাড়ি, অত্যাধুনিক টয় ট্রেনের চাকাতেও রাসায়নিক স্প্রে করা হচ্ছে। কোনোরকম ঝুঁকি নিতে চাইছে না কর্তৃপক্ষ।পর্যটকেরাও একে স্বাগত জানিয়েছেন। বেড়াতে আসা এক পর্যটক মৌমিতা মল্লিক জানান, স্বাস্থ্য দপ্তরের নির্দেশ মেনে চললে সুরক্ষিত থাকা যাবে।

Published by: Simli Raha
First published: March 15, 2020, 9:39 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर