করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন নিতে চলেছেন বারাক ওবামা! সম্প্রচার করতে চান টেলিভিশনে

কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন নিতে চলেছেন বারাক ওবামা! সম্প্রচার করতে চান টেলিভিশনে
বারাক ওবামা৷ Photo-File

সাক্ষাৎকার চলাকালীন ওবামা এ কথা স্বীকার করেন যে মানুষের মনে যথেষ্ট ভয় কাজ করছে এবং ভ্যাকসিন আসার পরেও তাঁরা দ্বিধায় ভুগবেন।

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বললেন, করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন পাওয়া গেলেই তিনি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব নিয়ে নেবেন। নিজের এই টিকাকরণ প্রক্রিয়া তিনি টেলিভিশনে সম্প্রচার করতে চান বলেও জানিয়েছেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। উদ্দেশ্য একটাই, ভ্যাকসিনের কার্যকারিতার উপর মানুষের আস্থা তৈরি করা। সিরিয়াস এক্সএম নামের একটি চ্যানেলের হোস্ট জো মেডিসনের সঙ্গে একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, 'আমি কথা দিচ্ছি যে করোনা ভাইরাসের ভ্য়াকসিন সর্বসাধারণের জন্য তৈরি হলেই আমি নিয়ে নেব।'

তিনি আরও বলেন, 'আমি নিজের টিকাকরণ প্রক্রিয়া টেলিভিশনে সম্প্রচার করতে চাই, যাতে সকলে বিশ্বাস করেন যে এই আবিষ্কারের উপর আমার সম্পূর্ণ আস্থা আছে।' প্রাক্তন প্রেসিডেন্টের মতে, করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা এবং তা সুরক্ষা নিয়ে কোনও সন্দেহ প্রকাশের জায়গাই নেই।ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব এলার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজ-এর কর্ণধার  অ্যান্টনি ফাউচি এবং ইনফেকশাস ডিজিজ-এর বিশেষজ্ঞদের প্রতি তাঁর পুরোপুরি বিশ্বাস আছে।

ওবামা বলেন, 'অ্যান্টনি ফাউচি আমার দীর্ঘদিনের পরিচিত এবং আমি তাঁর সঙ্গে কাজও করেছি। তাঁর মতো মানুষকে আমি চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করতে পারি।' তিনি বলেন, 'ডাঃ ফাউচি যদি আমাকে বলেন যে এই ভ্যাকসিন পুরোপুরি নিরাপদ এবং কোভিড থেকে বাঁচার জন্য আমার প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করবে, তাহলে আমি অবশ্যই ভ্যাকসিন নেব৷'

সাক্ষাৎকার চলাকালীন ওবামা এ কথা স্বীকার করেন যে মানুষের মনে যথেষ্ট ভয় কাজ করছে এবং ভ্যাকসিন আসার পরেও তাঁরা দ্বিধায় ভুগবেন। তিনি বলেন, 'আমি বুঝি আফ্রিকান আমেরিকান কমিউনিটির মধ্যে ভ্যাকসিনের গবেষণা এবং কার্যকারিতা নিয়ে সংশয় আছে। তার কারণও আমরা সকলেই জানি। কিন্তু এটাও সত্যি যে সেই ভ্যাকসিনের জন্যই আজ আমরা পোলিওমুক্ত হতে পেরেছি, এবং পক্স এবং হাম থেকে হওয়া শিশু মৃত্যু আটকাতে পারছি।'

Antara Dey

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 3, 2020, 3:22 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर