করোনা ভাইরাস

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা ভাইরাসের চিকিৎসায় অশ্বগন্ধা দিয়ে তৈরি হবে ভ্যাকসিন, দিল্লি IIT ও জাপানের AIST-র চাঞ্চল্যকর দাবি

করোনা ভাইরাসের চিকিৎসায় অশ্বগন্ধা দিয়ে তৈরি হবে ভ্যাকসিন, দিল্লি IIT ও জাপানের AIST-র চাঞ্চল্যকর দাবি
Photo- File

ভারতে হাজার বছর থেকে প্রচলিত আয়ুর্বেদের অব্যর্থ অশ্বগন্ধাই কি পৃথিবী থেকে করোনাকে সরাতে পারবে

  • Share this:

#নয়াদিল্লি :  আইআইটি দিল্লির DAILAB এবং জাপানের ন্যাশানাল ইনস্টিটিউট অফ অ্যাডভানসড ইন্ডাস্ট্রিয়াল সায়েন্স ও টেকনোলজি (AIST)  -র দাবি করোনা ভাইরাসের মোকাবিলায় বড় ভূমিকা নিতে পারে অশ্বগন্ধা ৷ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের সঙ্গে লড়তে জোরকদমে ভ্যাকসিনের খোঁজ চলছে ৷ আর সেখানেই এই অশ্বগন্ধা মিরাকেল দেখাতে চলেছে ৷

রিসার্চকারী দলের খোঁজ অনুযায়ী অশ্বগন্ধা ও প্রোপলিসের মধ্যে স্বাভাবিকভাবেই যে উপকরণ থাকে তা অ্যান্টি করোনাভাইরাস ড্রাগের ক্ষেত্রে কার্যকরী ৷ রিসার্চকারী দলের দায়িত্বে প্রাপ্ত প্রধান প্রফেসার ডি সুন্দর . DAILAB -র কো অর্ডিনেটর ও বায়োকেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ও বায়ো টেকনোলজি এই তথ্য সামনে এনেছে ৷ দিল্লি আইআইটি জানিয়েছে দ্রুত এই রিসার্চ প্রকাশিত হবে Biomolecular Structure and Dynamics-র জার্নালে৷

আইআইটি -ডি নিজেদের একটি বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে রিসার্চারদের মূল লক্ষ্য SARS-CoV-2-র প্রোটিন যেটা মূল প্রোটিয়াস বা Mpro তাকে ভেঙে ফেলা ৷  Mpro -র জন্যেই ভাইরাল রেপ্লিকেশন হচ্ছে ৷ বিজ্ঞানীরা খুঁজে পেয়েছেন উইদানোন (Wi-N) একটি স্বাভাবিক প্রপার্টি যেটা অশ্বগন্ধাতে পাওয়া যায় আর নিউজিল্যান্ডের প্রোপলিস থেকে পাওয়া ক্যাফিক অ্যাসিড ফেনেথিল ইস্টার  (CAPE) এমপ্রো-র কার্যকলাপকে আটকে দেয় ৷ বিশেষ ফল পাওয়ার জন্য সঠিক ও গুণগত মান বজায় রেখে ব্যবহার করলে তা কার্যকরী হবে ৷

প্রফেসার সুন্দর জানিয়েছেন, এমনিতেই ভারতীয় আয়ুর্বেদ অনুযায়ী অশ্বগন্ধা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে ৷ এখনকার রিসার্চ দেখিয়ে দিল এর একটা অ্যান্টি ভাইরাল প্রপার্টি রয়েছে ৷ প্রফেসার সুন্দর জানিয়েছেন, ‘চিরাচরিত মেডিসিন সিস্টেম আয়ুর্বেদে হাজার বছর ধরে চলে এসেছে ৷ এখনকার আধুনিক ওষুধের মতো এই প্রাচীন ওষুধগুলির কার্যক্ষমতা এতদিন এভাবে খতিয়ে দেখা হয়নি ৷ ’

করোনা ভাইরাস অতিমারির বিরুদ্ধে লড়াই করতে এটা সময় ও টাকা বাঁচানোর পাশাপাশি কার্যকারী ভূমিকা নেবে ৷ তারা অবশ্য জানিয়েছেন পুরো ওষুধ তৈরি করতে কিছুটা সময় লাগবে ৷

আইআইটি-র ছাত্র বিপুল কুমার এবং AIST -র ফেলো জসপ্রীত কউর ধানজাল এই নিয়েই রিসার্চে ব্যস্ত রয়েছেন ৷  

Published by: Debalina Datta
First published: May 19, 2020, 4:34 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर