corona virus btn
corona virus btn
Loading

নিউ ইয়র্কে বাঘের শরীরে করোনা ভাইরাস মেলার জের, আলিপুর চিড়িয়াখানার কর্মীরাও পরছেন PPE

নিউ ইয়র্কে বাঘের শরীরে করোনা ভাইরাস মেলার জের, আলিপুর চিড়িয়াখানার কর্মীরাও পরছেন PPE

আলিপুর চিড়িয়াখানার কর্মীদের মেনে চলতে হচ্ছে করোনা ভাইরাসের সতর্কতামূলক সব রকম পদক্ষেপ।

  • Share this:

#কলকাতা: এবার থেকে আলিপুর চিড়িয়াখানায় পশু-পাখিদের খাঁচায়  পিপিই পোশাক পরে ঢুকবেন কর্মীরা। নিউ ইয়র্ক চিড়িয়াখানায় বাঘের শরীরে করোনাভাইরাস মেলার পর অতিসর্তকতা মূলক এই ব্যবস্থা গ্রহণ করল রাজ্য বনদফতর। তবে শুধুমাত্র আলিপুর নয়, রাজ্যের সব চিড়িয়াখানাতেই পিপিই ব্যবহার করবেন কর্মীরা।

করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক এখন বিশ্বজুড়ে। সতর্কতা মূলক ব্যবস্থা হিসেবে একাধিক ফরমান জারি করেছে প্রতিটি দেশ। এতদিন শুধুমাত্র মানুষের শরীরে করোনা ভাইরাসের প্রভাব দেখা গেছিল। কিন্তু নিউ ইয়র্ক চিড়িয়াখানায় বাঘের শরীরে করোনা ভাইরাসের সন্ধান পাওয়ার খবর নতুন উদ্বেগের সঞ্চার হয়েছে সারা বিশ্বের কাছে।

এই খবর শোনার পর রাজ্যের বনদফতরের তরফ থেকে অতিসতর্কতামূলক একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করল রাজ্য বনদফতর। তার প্রথম পদক্ষেপ হল চিড়িয়াখানাগুলোতে পিপিই পাঠানো। এদিকে কেন্দ্রীয় জু অথরিটির তরফ থেকে রাজ্য বনদফতরের কাছে একাধিক নির্দেশিকা এসে পৌঁছেছে। বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, 'নিউ ইয়র্কের ঘটনার খবর পেয়ে নয়. আমরা ফেব্রুয়ারি মাসের শুরু থেকে করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সতর্ক হয়েছিলাম। মার্চ মাসের ১৭ তারিখ থেকে রাজ্যের সমস্ত চিড়িয়াখানায় দর্শকদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করেছিলাম। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন মানুষের শরীর থেকে করোনাভাইরাস পৌঁছচ্ছে পশুদের শরীরে। তাই আজ থেকে কিছু বিশেষ সতর্কতা গ্রহণ করা হয়েছে।'

ঠিক হয়েছে যে সকল কর্মী সরাসরি পশু পাখিদের সংস্পর্শে আসেন তারা পিপিই পড়ে খাঁচার ভেতর প্রবেশ করবেন। খাবার দিতে হোক বা পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য হোক সব সময় পড়তে হবে এই বিশেষ পোশাক। খাঁচায় ঢোকার সময় পটাশিয়াম পারম্যাঙ্গানেট মেশানো জলে পা ডুবিয়ে প্রবেশ করতে হবে। পশুপাখিদের নাইট সেল্ফ গুলোকে দিনে দু’বার করে কীটনাশক দিয়ে জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে। যে খাবার বাঘ সিংহদের দেওয়া হচ্ছে সেগুলো দেওয়ার আগে চিড়িয়াখানার ডাক্তাররা পরীক্ষা করে দেখছেন। পশু খাঁচায় থাকা সিসি টিভি ক্যামেরার মাধ্যমে ২৪ ঘণ্টা নজরদারি চালানো হচ্ছে পশুপাখিদের উপর। আলিপুর চিড়িয়াখানা হাসপাতালেও দিনে দু’বার করে স্যানিটাইজ করা হচ্ছে। বনমন্ত্রী বলেন, 'আমরা চিড়িয়াখানা জুড়ে জীবানু নাশের জন্য ভিক্রন এস স্প্রে করা হচ্ছে।'

পাশাপাশি আলিপুর চিড়িয়াখানার অন্য কর্মীদের মেনে চলতে হচ্ছে করোনা ভাইরাসের সতর্কতামূলক সব রকম পদক্ষেপ।

Soujan Mondal

First published: April 6, 2020, 6:06 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर