corona virus btn
corona virus btn
Loading

বন্দে ভারত মিশনের সময়সীমা বেড়ে হল ৩ জুন

বন্দে ভারত মিশনের সময়সীমা বেড়ে হল ৩ জুন
প্রতীকী চিত্র৷

বন্দে ভারত মিশনের দ্বিতীয় পর্যায়ে দেশের ১৬টি রাজ্যের বাসিন্দাদের ফেরত আনা হবে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বন্দে ভারত মিশনের দ্বিতীয় পর্যায়ের সময়সীমা বাড়ল। এর আগে সময়সীমা ছিল আগামী ১৬ মে থেকে ২২ মে পর্যন্ত। নতুন সূচি অনুযায়ী তা বাড়ানো হল ৩ জুন পর্যন্ত। বিদেশ থেকে আসা ভারতীয়দের বিপুল সংখ্যায় আবেদন দেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক সূত্রে খবর।

আগামী ১৬ তারিখ থেকে দ্বিতীয় পর্যায়ে বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয়দের ফিরিয়ে আনার যে কর্মকাণ্ড শুরু হয়েছে, তাতে ৩৯টি দেশ  থেকে ভারতীয়দের ফেরত আনা হবে। ৩ জুন পর্যন্ত এই পর্যায়ের মিশনে যাবে ১৪৯ টি ফ্লাইট। এই পর্যায়ে দেশের ১৬টি রাজ্যের বাসিন্দাদের ফেরত আনা হবে। এই তালিকার শীর্ষে রয়েছে দিল্লি, কেরল, কর্ণাটক, তেলেঙ্গনা, গুজরাত, রাজস্থান এবং অন্ধ্রপ্রদেশ।

প্রথম ধাপে বিশ্বের ১২টি দেশে আটকে থাকা ভারতীয়দের ফিরিয়েছে বিদেশমন্ত্রক। প্রথম সাত দিনে যাঁদের ফেরানো হয়েছে, তাঁদের সিংহভাগই কেরল, তামিলনাড়ু এবং দিল্লির বাসিন্দা। এই তিন রাজ্যে মোট ৩৭টি ফ্লাইট ঢুকছিল। এ ছাড়া, মহারাষ্ট্র, তেলেঙ্গানায় আসে ৭টি করে ফ্লাইট। গুজরাতে ৫টি, জম্মু ও কাশ্মীরে এবং কর্ণাটকে তিনটি করে আর উত্তরপ্রদেশে একটি ফ্লাইট ঢোকে।

প্রথম ধাপে যে সব দেশ থেকে ভারতীয়দের ফেরত আনা হয়েছে, তার বাইরে এ বারের পর্যায়ে ভারতীয়দের আনা হবে ইউরেশিয়া অঞ্চলের দেশ কাজাখস্তান, তাজাকিস্তান, কিরঘিজস্তান, ইউক্রেন, জর্জিয়া, আর্মেনিয়া এবং রাশিয়া থেকে। এছাড়া, বাংলাদেশ, নেপাল-সহ দক্ষিণ, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, আরবের বিভিন্ন দেশ-সহ এশিয়া মহাদেশের নানা জায়গায় আটকে থাকা ভারতীয়দের ফেরানো হবে বন্দে ভারত মিশনের দ্বিতীয় পর্যায়ে। একটি ফ্লাইট যাবে পশ্চিম আফ্রিকার লাগোসেও।

বন্দে ভারত মিশনের আওতায় দেশে ফেরার জন্য ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে প্রায় দেড় লক্ষ আবেদন জমা পড়েছে। এই অবস্থায় কেন্দ্র কয়েক ধাপে ওই সব আটকে থাকা ভারতীয়দের ফেরানোর পরিকল্পনা শুরু করেছে। এরমধ্যে তামিলনাড়ু, কেরল, দিল্লি, কর্নাটকের মতো রাজ্য থেকে বেশি সংখ্যায় আবেদন জমা পড়েছে। কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান মন্ত্রকের এক অফিসার বলেন, "এত সংখ্যায় আটকে থাকা ভারতীয়কে দেশে ফেরানো সহজ কাজ নয়। তার উপরে হাজারে হাজারে সংখ্যায় আবেদনও জমা পড়ছে। সে জন্যই দ্বিতীয় পর্যায়ের মিশনের সময়সীমা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।"

Shalini Datta

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: May 14, 2020, 10:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर