corona virus btn
corona virus btn
Loading

একে একে ফিরছে 'শ্রমিক স্পেশ্যাল' ট্রেন, পরিযায়ীরা ফিরতেই সংক্রমণের আতঙ্কে কাঁটা বাসিন্দারা

একে একে ফিরছে 'শ্রমিক স্পেশ্যাল' ট্রেন, পরিযায়ীরা ফিরতেই সংক্রমণের আতঙ্কে কাঁটা বাসিন্দারা

পরিযায়ীরা ফিরতেই মালদহে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কাও বেড়েছে । কারন মালদহে এখনও পর্যন্ত যে ৩৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন তাঁদের প্রত্যেকেই ভিন রাজ্য ফেরত ।

  • Share this:

#মালদহঃ ভিন রাজ্যের পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে মালদহে ফিরল 'শ্রমিক স্পেশাল' ট্রেন । আগামী কয়েকদিনের মধ্যে দেশের বিভিন্ন রাজ্য থেকে পরিযায়ী শ্রমিক ও আটকে পড়া মানুষদের নিয়ে ২৪টি ট্রেনের মালদহে পৌঁছানোর কথা । এদিন হায়দরাবাদ এবং বেঙ্গালুরু থেকে দুটি 'শ্রমিক স্পেশ্যাল' এসেছে মালদহে। প্রশাসনিক সূত্রের খবর, এখনও পর্যন্ত রেলপথ ও সড়কপথ মিলিয়ে প্রায় দশ হাজার পরিযায়ী শ্রমিক ফিরেছে মালদহে । এদিকে পরিযায়ী শ্রমিক ফিরতেই বাড়ছে সংক্রমণের আশঙ্কা ।  গত ২৪ ঘন্টায় মালদহে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮জন । এঁদের প্রত্যেকেই ভিন রাজ্য ফেরত । এরইমধ্যে সোমবার থেকে বিভিন্ন রাজ্য থেকে সরাসরি মালদহে ট্রেন এসে পৌঁছয় ।

শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনগুলির অধিকাংশই মালদহের যাত্রী। তবে, মালদহ ছাড়াও উত্তর ও দক্ষিনবঙ্গের বাসিন্দা শ্রমিকদের সংখ্যাও নেহাত কম নয় । মালদহ স্টেশন চত্বর থেকে পরিযায়ীদের নিয়ে একের পর এক বাস যাচ্ছে রাজ্যের অন্যান্য জেলাগুলির গন্তব্যে । মালদহে ভিন রাজ্য ফেরত জেলার শ্রমিকদের নাম নথিভুক্ত করে সরকারি বিভিন্ন কোয়ারেন্টাইন সেন্টার গুলিতে পাঠানো হচ্ছে । জেলাশাসক রাজর্ষি মিত্র জানিয়েছেন, সোমবার দুপুর পর্যন্ত জেলায় ফিরেছে প্রায় দশ হাজার মানুষ ভিন রাজ্য থেকে ফেরত এসেছেন ।

এদিকে পরিযায়ীরা ফিরতেই মালদহে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কাও বেড়েছে । তার মূল কারণ, মালদহে এখনও পর্যন্ত যে ৩৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন তাঁদের  প্রত্যেকেই ভিন রাজ্য ফেরত । মালদহ মেডিক্যাল কলেজ সূত্রে খবর, জেলায় এখনও পর্যন্ত আড়াই হাজারেরও বেশী লালারসের নমুনা পরীক্ষা বাকি । এরপর যে বিপুল সংখ্যায় পরিযায়ী ও আটকে থাকা মানুষ ফিরছেন তাতে সকলের নমুনা সংগ্রহ এবং পরীক্ষা অত্যন্ত দুরূহ কাজ । এই অবস্থায় আপাতত যাঁদের করোনার উপসর্গ রয়েছে তাঁদেরই আগে নমুনা সংগ্রেহের ব্যবস্থা করা হচ্ছে । বাকিদের ধাপে ধাপে পরীক্ষা করা হবে ।

Sebak Deb Sarma 

Published by: Shubhagata Dey
First published: May 18, 2020, 9:12 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर