করোনা ভ্যাকসিন নিলেই মিলবে টাকা ! ব্যাঙ্ক FD-তে উচ্চ সুদের হার ! জানুন বিশদে

যাঁরা কোভিড ভ্যাকসিন পেয়েছেন তাঁদের জন্য স্থায়ী আমানতে (FD) উচ্চতর সুদের হার ঘোষণা করেছে বেশ কিছু ব্যাঙ্ক।

যাঁরা কোভিড ভ্যাকসিন পেয়েছেন তাঁদের জন্য স্থায়ী আমানতে (FD) উচ্চতর সুদের হার ঘোষণা করেছে বেশ কিছু ব্যাঙ্ক।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: গত কয়েকমাস ধরেই করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে কাঁপছে গোটা দেশ। কী ভাবে এই মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুরক্ষিত থাকা যায় তা নিয়েই দেশ জুড়ে চলছে নানান পরীক্ষা-নিরীক্ষা। সংক্রমণ ঠেকাতে শুরু হয়েছে টিকাদানের পর্ব। কিন্তু অনেকেই নানান কারণে নিজেদের এই টিকা গ্রহণ থেকে ব্রাত্য করে রেখেছেন। এবার কোভিড ১৯ টিকা গ্রহণে আগ্রহ বাড়ানোর স্বার্থে যোগ্য লোকদের কোভিড ১৯ ভ্যাকসিন দেওয়ার জন্য এক অভিনব পন্থা অবলম্বন করল সরকারী মালিকানাধীন ব্যাঙ্কগুলি।

যাঁরা কোভিড ভ্যাকসিন পেয়েছেন তাঁদের জন্য স্থায়ী আমানতে (FD) উচ্চতর সুদের হার ঘোষণা করেছে বেশ কিছু ব্যাঙ্ক। নিজেদের টিকা নেওয়ার শংসাপত্র প্রদর্শন করলেই ব্যাঙ্কগুলি তাঁদের FD-তে উচ্চতর সুদের হার প্রদান করবে। তবে এই অফারটি সীমিত সময়ের জন্য কার্যকর থাকবে।

করোনার জেরে দেশ জুড়ে মৃত্যুমিছিলের মধ্যেই সম্প্রতি দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) ২১ জুন থেকে সকলকে বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন প্রদানের অঙ্গীকার করেছেন। এই পরিস্থিতিতে দেশের সাধারণ মানুষকে ভ্যাকসিন নিতে উদ্বুদ্ধ করতে নতুন প্রয়াস ব্যাঙ্কগুলির।

যাঁরা কোভিড ভ্যাকসিনের কমপক্ষে একটি ডোজ নিয়েছেন সেই সমস্ত আবেদনকারীদের জন্য ৯৯৯ দিনের স্থায়ী আমানতের উপর ৩০ বেসিস পয়েন্ট (bps) বেশি সুদের হার দিচ্ছে কলকাতা ভিত্তিক UCO ব্যাঙ্ক। ব্যাঙ্ক এই অফারটির নাম দিয়েছে UCOVAXI-999 এবং এটি ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

যাঁরা টিকা নিয়েছেন তাঁদের জন্য প্রযোজ্য হারের চেয়ে ২৫ বেসিস পয়েন্ট (bps)-এর অতিরিক্ত সুদের হার দিচ্ছে সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক। এই ব্যাঙ্ক প্রবীণ নাগরিকদের জন্য FD গুলিতে ০.৫০ শতাংশ অতিরিক্ত সুদের হার দিচ্ছে। সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কের তরফে এই স্কিমটির নাম দেওয়া হয়েছে 'ইমিউন ইন্ডিয়া ডিপোজিট স্কিম' যার মেয়াদপূর্তি হবে ১,১১১ দিনে।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেশে পরিচালিত কোভিড ১৯ ভ্যাকসিনের সংখ্যার পরিমাণ ২৩.৬১ কোটি ছাড়িয়েছে। ১৮-৪৪ বছরের জনসংখ্যার টিকা বর্তমানে ভারতের রাজ্য এবং বেসরকারি হাসপাতাল গুলিতেও পাঠানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য কর্মীদের জন্য ভারতের কোভিড ১৯ টিকা অভিযান শুরু হয়েছে ১৬ জানুয়ারি থেকে। তার পর প্রথম সারির কর্মীদের জন্যও এই টিকা অভিযান চলে। এর কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই ৬০ বছরের উর্ধ্বেও করোনার ভ্যাকসিন প্রদানে সবুজ সঙ্কেত দেয় কেন্দ্র। এপ্রিল মাস থেকে ৪৫ বছরের উর্ধ্বে সকলকে টিকাকারণের আওতাভুক্ত করা হয়। অবশেষে মে মাসে ভারত সমস্ত প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য টিকাকরণ অভিযান শুরু করে।

Published by:Piya Banerjee
First published: