Home /News /business /
Salary Account Benefits: স্যালারি অ্যাকাউন্টের অনেক সুবিধে, সেভিংস অ্যাকাউন্টের থেকে কোথায় আলাদা জানুন!

Salary Account Benefits: স্যালারি অ্যাকাউন্টের অনেক সুবিধে, সেভিংস অ্যাকাউন্টের থেকে কোথায় আলাদা জানুন!

স্যালারি অ্যাকাউন্টের অনেক সুবিধে৷ প্রতীকী ছবি

স্যালারি অ্যাকাউন্টের অনেক সুবিধে৷ প্রতীকী ছবি

ব্যক্তিগত ঋণ, গৃহ ঋণ, গাড়ি ক্রয়ে ঋণ, শিক্ষা ঋণ ইত্যাদি ক্ষেত্রেও অতিরিক্ত ছাড় মেলে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: কোনও সংস্থায় কাজ করার সময় কর্মীদের বেতন দেওয়ার জন্য যে অ্যাকাউন্ট খোলা হয়, তাই স্যালারি অ্যাকাউন্ট (Salary Account)। প্রত্যেক কর্মীর নামে আলাদা আলাদা স্যালারি অ্যাকাউন্ট থাকে। এক্ষেত্রে বিশেষ কিছু সুবিধা পান গ্রাহকরা। বিনামূল্যে এটিএম (ATM) লেনদেনের সুযোগ থাকে। ন্যূনতম ব্যালেন্স রাখার কোনও প্রয়োজন নেই। ব্যক্তিগত ঋণ, গৃহ ঋণ, গাড়ি ক্রয়ে ঋণ, শিক্ষা ঋণ ইত্যাদি ক্ষেত্রেও অতিরিক্ত ছাড় মেলে (Salary Account Benefits)।

তবে কোনও ব্যক্তি যদি কোনও কারণে চাকরি ছেড়ে দেন এবং তিন মাস ধরে ওই অ্যাকাউন্টে বেতন না জমা পড়ে, তবে তা সাধারণ অ্যাকাউন্টে পরিণত হয়। এরপর তার চার্জও কাটা হয় সাধারণ সেভিংস অ্যাকাউন্টের মতোই।

স্যালারি অ্যাকাউন্ট কে খুলতে পারে?

কর্মচারীদের জন্য স্যালারি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন নিয়োগকর্তা। এ জন্য ব্যাঙ্কের সঙ্গে কোম্পানির গাঁটছড়া বাঁধা থাকে। প্রতি মাসে স্যালারি অ্যাকাউন্টে মাসিক বেতন দেওয়া হয়। যে ব্যাঙ্কের সঙ্গে নিয়োগকর্তার গাঁটছড়া আছে সেই ব্যাঙ্কে যদি কর্মচারীর অ্যাকাউন্ট না থাকে তাহলে সেখানে অ্যাকাউন্ট খুলতে কর্মচারীকে কোম্পানি সাহায্য করে।

সেভিংস অ্যাকাউন্টের সঙ্গে স্যালারি অ্যাকাউন্টের তফাত

১। যে কেউ সেভিংস অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। কিন্তু স্যালারি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন শুধু চাকরিজীবীরা। কোম্পানির সুপারিশেই স্যালারি অ্যাকাউন্ট খোলা হয়।

আরও পড়ুন: সস্তায় ঋণ পেতে এই কৌশল নিচ্ছেন গ্রাহকরা, আপনিও সুবিধা পেতে পারেন!

২। সেভিংস অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্স রাখতেই হবে। নাহলে অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। স্যালারি অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্স রাখার কোনও প্রয়োজন নেই।

৩। স্যালারি অ্যাকাউন্টের গ্রাহককে সেফ ডিপোজিট লকার, সুইপ-ইন, সুপার সেভার সুবিধা, বিনামূল্যে পাসবুক এবং বিনামূল্যে ইমেল স্টেটমেন্টের মতো সুবিধা ব্যাঙ্কের তরফে দেওয়া হয়। তাই একটি স্যালারি অ্যাকাউন্ট থাকলে একাধিক বেনিফিট পান গ্রাহক। যা সেভিংস অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে অর্থের বিনিময়ে নিতে হয়।

৪। সেভিংস অ্যাকাউন্ট খোলার মূল উদ্দেশ্য সঞ্চয়। স্যালারি অ্যাকাউন্টে শুধুমাত্র প্রতি মাসের বেতন আসে।

স্যালারি অ্যাকাউন্টের সুবিধা

১। স্যালারি অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্স রাখার কোনও প্রয়োজন নেই। এ জন্য কোনও জরিমানাও দিতে হবে না।

২। স্যালারি অ্যাকাউন্টে তিন মাসের বেশি বেতন জমা না পড়লে তা সেভিংস অ্যাকাউন্টে পরিবর্তিত হয়ে যায়। তখন ন্যূনতম ব্যালেন্স রাখা বাধ্যতামূলক।

আরও পড়ুন: এটিএম থেকে ছেঁড়া-ফাটা নোট পেয়েছেন? কীভাবে বদলাবেন জেনে নিন!

৩। স্যালারি অ্যাকাউন্ট করা হলে, ব্যাঙ্কের তরফে একটি পার্সোনালাইজ চেক বই অফার করা হয়। এই চেক বইয়ের প্রতি পৃষ্ঠায় গ্রাহকের নাম প্রিন্ট করা থাকে।

৪। দু’বছর বা তার বেশি সময়ের স্যালারি অ্যাকাউন্টে ওভার ড্রাফটের সুবিধে মেলে। এর পরিমাণ দু’মাসের বেতনের সমান।

৫। বিনামূল্যে এটিএম লেনদেনের সুবিধা পাওয়া যায়। মাসে কতবার এটিএম লেনদেন করা যাবে সেই চিন্তাও করতে হবে না।

৬। ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত দুর্ঘটনা বিমা পাওয়া যায়। প্রায় প্রতিটা ব্যাঙ্কেই এই সুবিধা মেলে।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Bank, Bank Account, Salary Account, Savings Account

পরবর্তী খবর