corona virus btn
corona virus btn
Loading

ভুয়ো প্রচারে কৃষকদের প্ররোচনা দিচ্ছে এয়ারটেল, ভোডাফোন! ট্রাইয়ের কাছে অভিযোগ জানাল জিও

ভুয়ো প্রচারে কৃষকদের প্ররোচনা দিচ্ছে এয়ারটেল, ভোডাফোন! ট্রাইয়ের কাছে অভিযোগ জানাল জিও

ওই চিঠিতে রিলায়েন্সের অভিযোগ, কৃষক আন্দোলনকে প্ররোচিত করছে এয়ারটেল আর ভিআই । এবং ভিতরে ভিতরে বিভাজনমূলক প্রচার শুরু করেছে তারা ।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: নিজের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী দুই সংস্থা ভারতী এয়ারটেল ও ভোডাফোন-আইডিয়া (ভিআই)-এর বিরুদ্ধে ট্রাইয়ের (Telecom Regulatory Authority of India) কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করল রিলায়েন্স জিও । ওই চিঠি অনুযায়ী, এই দুই সংস্থা কৃষি আইন ও কৃষক প্রতিবাদের সঙ্গে জিও-র নাম জুড়ে ভুয়ো অভিযোগ ছড়াচ্ছে । পাশাপাশি মিথ্যা বুঝিয়ে গ্রাহকদের নম্বর জিও-র থেকে পোর্ট  করানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ তোলে রিলায়েন্স। অন্যদিকে, জিও-র এই অভিযোগের চরম বিরোধিতা করে, অভিযোগ অস্বীকার করেছে এয়ারটেল ও ভিআই ।

জিও-র অভিযোগ, প্রত্যক্ষ হোক বা পরোক্ষ ভাবে, কৃষক আন্দোলনকে প্ররোচিত করছে এয়ারটেল আর ভিআই এবং ভিতরে ভিতরে বিভাজনমূলক প্রচার শুরু করেছে তারা । ফলে কোনও কারণ এবং অভিযোগ ছাড়াই বিপুল পরিমাণে মোবাইল নম্বর জিও থেকে পোর্ট হয়ে যাচ্ছে এয়ারটেল বা ভিআই-তে । ট্রাইয়ের কাছে পাঠানো এই চিঠিতে ওই দুই কোম্পানির মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে কঠিন শাস্তি নেওয়ার আর্জি জানিয়েছে দেশের সর্ববৃহৎ নেটওয়ার্কিং সংস্থা রিলায়েন্স জিও । এ আগেও ট্রাই’কে চিঠি দিয়ে এ ব্যাপারে সতর্ক করা হয়েছিল, বলে জানিয়েছে জিও ।

ওই চিঠিতে রিলায়েন্স আরও অভিযোগ এনে বলেছে, ওই দুই টেলিকম সংস্থার এজেন্টরা এই কাজ করছে । মিথ্যে প্রচার চালানো হচ্ছে । এমনকি কৃষকদের বোঝানো হচ্ছে জিও থেকে পোর্ট করে মোবাইল নম্বর তাদের কোম্পানিতে নিয়ে এলে তবেই কৃষক বিদ্রোহকে সমর্থন করা হবে ।

লোকসভায় কৃষি বিল পাশ হওয়ার পর থেকেই আগুন জ্বলছে গোটা দেশে । নতুন কৃষি বিলের বিরোধিতা করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভে সামিল হয়েছেন লাখ লাখ কৃষক । রাজধানী দিল্লি আংশিক অবরুদ্ধ । পঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন রাজ্যের সীমান্তে কৃষকরা বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন । এ বিষয় নিয়ে কেন্দ্র সরকার ও বিক্ষুব্ধ কৃষকদের একাধিকবার মিটিংও হয়েছে । তবে সমাধান সূত্র এখনও অধরা । এরই মধ্যে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ দেশের প্রধান টেলিকম কোম্পানির ।

অন্যদিকে, ট্রাই’কে চিঠি পাঠিয়ে জিও-র এই অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে এয়ারটেল । চিঠিতে এয়ারটেল লিখেছে, ‘‘আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বীর অবিশ্রান্ত প্রয়াশ ও প্ররোচনা সত্ত্বেও, যারা ব্যবসার জন্য যে কোনও মাত্রা পর্যন্ত যেতে পারে, হুমকি দিতে পারে, নিকৃষ্ট আচরণ করতে পারে...তবু আমরা ব্যবসার ক্ষেত্রে নিজেদের চরিত্র ধরে রাখি এবং এমন কাজ করি না যাতে আমরা বিশ্বাস রাখি না ।’’ ভিআই-এর পক্ষ থেকেও তাদের মুখপাত্র জানায়, ভোডাফোন-আইডিয়া লিমিটেড নৈতিকতার সঙ্গে ব্যবসা করে ।

তবে জিও জানিয়েছে, গ্রাহক ভাঙানোর কাজ শুধুমাত্র উত্তর ভারতে নয়, দেশের সর্বত্রই করছে এয়ারটেল আর ভোডাফোন । দেখা গিয়েছে, যে গ্রাহকরাই কোনও কারণ ছাড়া জিও থেকে নম্বর পোর্ট করিয়ে নিচ্ছেন, তাঁদের কাছে ওই দুই কোম্পানির থেকে পোর্ট করার মেসেজ গিয়েছে আগে থেকে । এই কর্মকান্ড ১৯৯৯ সালের টেলিকম ট্যারিফ আইন বিরুদ্ধ ।

প্রসঙ্গত, বিগত চার বছর পর গত সেপ্টেম্বর মাসে নতুন সাবক্রিপশন নেওয়া গ্রাহকদের সংখ্যার দৌড়ে জিওকে পিছনে ফেলেছে এয়ারটেল । তবে মাসিক মোবাইল সাবস্ক্রিপশনের নিরিখে এখনও শীর্ষে রয়েছে জিও ।

Published by: Simli Raha
First published: December 14, 2020, 11:30 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर