• Home
  • »
  • News
  • »
  • business
  • »
  • বাতিল নোট কী সব ফিরেছে ব্যাঙ্কে? যা শুনেছিলেন, RBI যা বলল...

বাতিল নোট কী সব ফিরেছে ব্যাঙ্কে? যা শুনেছিলেন, RBI যা বলল...

Note Ban: আরবিআই-এর রিপোর্ট বলছে, মোট ১৫.৪১ লক্ষ কোটি টাকার ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট ২০৬ সালের নভেম্বরের আগে বাজারে ছিল৷ নোটবন্দির সিদ্ধান্তে প্রায় বছর ২ কাটার মুখে, এতদিনে ১৫.৩১ লক্ষ কোটি ব্যাঙ্কে ফিরেছে৷

Note Ban: আরবিআই-এর রিপোর্ট বলছে, মোট ১৫.৪১ লক্ষ কোটি টাকার ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট ২০৬ সালের নভেম্বরের আগে বাজারে ছিল৷ নোটবন্দির সিদ্ধান্তে প্রায় বছর ২ কাটার মুখে, এতদিনে ১৫.৩১ লক্ষ কোটি ব্যাঙ্কে ফিরেছে৷

Note Ban: আরবিআই-এর রিপোর্ট বলছে, মোট ১৫.৪১ লক্ষ কোটি টাকার ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট ২০৬ সালের নভেম্বরের আগে বাজারে ছিল৷ নোটবন্দির সিদ্ধান্তে প্রায় বছর ২ কাটার মুখে, এতদিনে ১৫.৩১ লক্ষ কোটি ব্যাঙ্কে ফিরেছে৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ২০১৬-র নভেম্বরে ব্যাঙ্ক, এটিএম-এর দীর্ঘ লাইনে দাঁড়ানোর সেই স্মৃতি এখনও টাটকা দেশবাসীর৷ হ্যাঁ, কথা হচ্ছে নোটবন্দির৷ ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের পর থেকে এখনও পর্যন্ত ৯৯.৩ শতাংশ বাতিল নোট ব্যাঙ্কে ফিরেছে৷ আর্থিক হিসেবে যা ১৫.৩১ লক্ষ কোটি টাকা৷ বার্ষিক রিপোর্টে এই তথ্য জানাল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া বা আরবিআই৷

    আরবিআই-এর রিপোর্ট বলছে, মোট ১৫.৪১ লক্ষ কোটি টাকার ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট ২০৬ সালের নভেম্বরের আগে বাজারে ছিল৷ নোটবন্দির সিদ্ধান্তে প্রায় বছর ২ কাটার মুখে, এতদিনে ১৫.৩১ লক্ষ কোটি ব্যাঙ্কে ফিরেছে৷ এখানেই বিরোধী দলগুলির প্রশ্ন, এতদিন পরে বাকি টাকাগুলি গেল কোথায়৷ যদিও আরবিআই একে সাফল্যই আখ্যা দিচ্ছে৷

    আরবিআই জানিয়েছে, বাজার থেকে উঠে আসা বাতিল নোট গণনার কাজ শেষ৷ এখনও পর্যন্ত ১৫,৩১০.৭৩ বিলিয়ন টাকার হিসেবে মিলেছে৷ এরপরই রে রে করে উঠেছেন বিরোধীরা৷ কংগ্রেসের অভিযোগ, মোদি যে ধ্বংসাত্মক কাজ করেছেন, এটা তারই প্রমাণ৷ কারণ, স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে প্রধানমন্ত্রী দাবি করেছিলেন, ৩ লক্ষ কোটি টাকার বাতিল সব নোট ব্যাঙ্কে ফিরেছে৷ কংগ্রেসের দলীয় মুখপাত্র রণদীপ সিং সুর্যেওয়ালার কথায়, 'এর পর কী আপনি মিথ্যে কথা বলার জন্য ক্ষমা চাইবেন না মোদিজি?'

    দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী তথা আপ সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়ালের দাবি, নোট বাতিল নিয়ে শ্বেতপত্র প্রকাশ করুক কেন্দ্র৷

    হঠাত্‍‌ ১০ টাকার কয়েন নিয়ে পোস্টার! দেখুন

    First published: