বাংলার সুরে মজে তিন দশক ধরে দিঘায় সমুদ্রের ধারে বাঁশি বাজাচ্ছেন পটনার ‘বাঁশিওয়ালা’

Bangla Editor | News18 Bangla | 08:02:21 PM IST Dec 09, 2018

বাঁশিকে সঙ্গী করে প্রায় তিরিশ বছর দিঘা সমুদ্রের তীরে বসবাস। সেই বাঁশির সুরই নিত্যদিনের সঙ্গী পটনার মহম্মদ নূরুদ্দিনের। রোজ সকালে সমুদ্র সৈকতে গেলেই ভেসে আসে নূরুদ্দিনের বাঁশির সুর। সকাল হতেই দিঘার সমুদ্রতীর থেকে ভেসে আসে এই মন ভোলানো সুর। বছর ষাটেকের নূরুদ্দিনের দিন কেটে যায় এই বাঁশি হাতেই। বছর তিরিশ আগে বাঁশি হাতে পটনা থেকে আসেন বাংলা। বিভিন্ন মেলায় বাঁশি বিক্রি করে সামাল্য দু’পয়সা আয়। একের পর এক মেলায় ঘুরে বেড়াতে থাকেন। একদিন এসে পৌঁছলেন দিঘায়। সমুদ্রের পাড়েই থমকে গেলেন। সুর তুললেন বাঁশিতে। দিঘায় তেমন মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই। তবু এই বাংলাতেই মজে নূরুদ্দিন। মাঝে মাঝে পরিবারের টানে ফিরে যান পটনায়। কিন্তু এই বাংলাতেই ফিরে ফিরে আসেন। ... সমুদ্রের ঢেউয়ের সামনে দাঁড়ান বাঁশি হাতে। তারপর একের পর এক গানের সুরের ঝড় তোলেন। ... জীবনের শেষ দিনটিও এভাবেই কাটাতে চান নূর। বাঁশিকেই যে সঙ্গী করেছেন তিনি।

লেটেস্ট ভিডিও