দীর্ঘদিনের দাবিপূরণ! বিধায়কের হাতে হল সেতুর কাজের শিলান্যাস

Bangla Editor | News18 Bangla | 06:08:19 PM IST Sep 02, 2021

ভাস্কর চক্রবর্তী, জলপাইগুড়ি: একের পর এক উন্নয়নের মুখ দেখছে রাজগঞ্জ। কোথাও সবুজ সাথী সাইকেল প্রদান, স্কুলের উন্নয়নে আশ্বাস, কোথাও আবার দীর্ঘদিনের দাবিকে মান্যতা দিয়ে শুরু হল সেতুর কাজ। ১ কোটি ৮৫ লক্ষ টাকা খরচে ডাহুক নদীর উপর সেতুর কাজের শিলান্যাস করলেন রাজগঞ্জের বিধায়ক খগেশ্বর রায়। নারকেল ফাটিয়ে সেতুর কাজের শিলান্যাস করেন তিনি। দীর্ঘ প্রায় ২৫ বছর আগে চেকরমারি এবং নবগ্রাম গ্রামের মধ্যে ডাহুক নদীর সংযোগকারী সেতু ভেঙে যাওয়ায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

দীর্ঘদিন পরে পূর্ত দপ্তরের পক্ষ থেকে সেতু তৈরির উদ্যোগ নেওয়ায় খুশি দুই গ্রামের মানুষ। চেকরমারি গ্রামের বাসিন্দারা খুশিপ্রকাশ করে জানান, বর্ষার সময় এই গ্রামের মানুষ গ্রামে যেতে পারত না। তাছাড়া নবগ্রামের মানুষকে গাডরাহাটে আসতে হলে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার রাস্তা ঘুরপথে আসতে হতো। এই সেতু নির্মিত হলে নবগ্রাম এবং নারায়ণগঞ্জের দূরত্ব অনেকটাই কমে যাবে।

বিধায়ক খগেশ্বর রায় বলেন, 'সেতু নির্মিত হলে এলাকার মানুষের যেমন সুবিধা হবে তেমনি এই এলাকায় উন্নয়ন হবে। এখানে সরকারের প্রায় ৪০ একর জমি অবস্থায় পড়ে রয়েছে। ভবিষ্যতে সেই জমিকে পর্যটনশিল্পে কাজে লাগানো হবে।'

বিশিষ্ট সমাজসেবী ও বেলাকোবা রেগুলেটেড মার্কেট এর সভাপতি মোকসেদ আলমের কথায়, 'এই এলাকা থেকে বাংলাদেশ সীমান্তের খুব সুন্দর দৃশ্য মেলে। চা বাগান ও সীমান্তের অপরূপ সৌন্দর্য দেখার জন্য অনেকেই আসেন এখানে। এলাকায় পর্যটনকেন্দ্র হিশেবে দেখলে ও এখানে শিল্প গড়ে তুললে এলাকাবাসী থেকে পর্যটক, সবাই লাভবান হবেন।'

অন্যান্যদের মধ্যে এই শিলান্যাস অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজগঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি পূর্ণিমা রায়, সন্ন্যাসীকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মল্লিকা রায়, সমাজসেবী মোকসেদ আলম, লৈক্ষমোহন রায়, রাজগঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতির কৃষি কর্মাধ্যক্ষ রওশান হাবিব এবং যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতির তহমিদার রহমান প্রমুখ। নতুন সেতুর শিলান্যাস করায় খুশি এলাকাবাসী। তাঁরা প্রশাসনের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

লেটেস্ট ভিডিও