Home /News /technology /
সেন্সর বিফলে যাওয়ায় পথ-হারা উপগ্রহ! উৎক্ষেপণ ‘আংশিক ভাবে সফল’, বলল ইসরো

সেন্সর বিফলে যাওয়ায় পথ-হারা উপগ্রহ! উৎক্ষেপণ ‘আংশিক ভাবে সফল’, বলল ইসরো

এসএসএলভি-ডি১ (SSLV-D1) উপগ্রহগুলিকে ৩৫৬ কিলোমিটার বৃত্তাকার কক্ষপথের পরিবর্তে ৩৫৬ কিলোমিটার x ৭৬ কিলোমিটার উপবৃত্তাকার কক্ষপথে স্থাপন করেছে। ফলে সেই উপগ্রহ বা স্যাটেলাইট আর ব্যবহারযোগ্য নেই।

  • Share this:

#শ্রীহরিকোটা: পথ ভুলেই বাধার গেরোয় পড়েছিল মহাকাশে নয়া রকেট উৎক্ষেপণ! তবে রবিবার স্মল স্যাটেলাইট লঞ্চ ভেহিকেল বা এসএসএলভি (SSLV)-র প্রথম উৎক্ষেপণকে আংশিক ভাবে সফল বলে জানিয়েছে ইসরো (ISRO)। এর ৩টি কঠিন জ্বালানি ভিত্তিক প্রপালশন পর্যায় খুবই স্বল্প কাজ করছে। কিন্তু এসএসএলভি-র মাধ্যমে উৎক্ষেপণ করা দুটি উপগ্রহই সেন্সর বিফল হওয়ার কারণে ভুল কক্ষপথে প্রবেশ করছে।

ভারতীয় মহাকাশ সংস্থা একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে যে, "এসএসএলভি-ডি১ (SSLV-D1) উপগ্রহগুলিকে ৩৫৬ কিলোমিটার বৃত্তাকার কক্ষপথের পরিবর্তে ৩৫৬ কিলোমিটার x ৭৬ কিলোমিটার উপবৃত্তাকার কক্ষপথে স্থাপন করেছে। ফলে সেই উপগ্রহ বা স্যাটেলাইট আর ব্যবহারযোগ্য নেই। সমস্যাটি সঠিক ভাবে চিহ্নিত করা গিয়েছে। সেন্সর বিফল হওয়ার কারণেই স্যাটেলাইটের ক্ষেত্রে এই বিচ্যুতি দেখা গিয়েছে। একটি কমিটি এই বিষয়ে বিশ্লেষণ করে তবেই সুপারিশ করবে। আর সেই সুপারিশগুলি বাস্তবায়নের জন্য ইসরো শীঘ্রই এসএসএলভি-ডি২ (SSLV-D2) নিয়ে আসবে।

প্রথম তিন ধাপে দুর্দান্ত পারফরমেন্স রকেটের: ইসরো-প্রধান

রবিবার বিকেলে একটি ভিডিও বিবৃতিতে ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা (ইসরো)-র চেয়ারম্যান এস. সোমনাথ (S. Somnath) বলেন, “এসএসএলভি-ডি১ প্রথম পর্যায়ে এবং পরে দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ে দারুণ পারফর্ম করে করেছিল। তবে এসএসএলভি-ডি১ ৩৫৬ কিলোমিটার উচ্চতায় পৃথিবীর কক্ষপথে পৌঁছেছিল। সেই সময় দুটি উপগ্রহ এর থেকে আলাদা হয়ে যায়। আর পরে আমরা স্যাটেলাইট স্থাপনে একটি অসঙ্গতি লক্ষ করেছি।

আরও পড়ুন: মোবাইল চার্জ দেওয়ার জন্য কত টাকার বিদ্যুৎ খরচ হয়! মাসের হিসাব কোথায় দাঁড়াচ্ছে

ইসরো চেয়ারম্যান আরও ব্যাখ্যা করেছেন যে, যখন একটি স্যাটেলাইটকে এই ধরনের কক্ষপথে স্থাপন করা হয়, তখন তারা সেখানে বেশিক্ষণ থাকতে পারে না এবং পড়ে যায়। এস সোমনাথ বলেন, স্যাটেলাইটগুলো আগেই নির্ধারিত কক্ষপথের নিচে নেমে গিয়েছে। ফলে সেগুলো আর ব্যবহারের যোগ্য নেই। তিনি বলেন যে, সমস্যাটি যথাযথ ভাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এর পাশাপাশি এর একটি পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণ করা হবে। ইসরো প্রধান বলেছেন যে, বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সুপারিশ যা-ই হোক না-কেন, দেরি না-করে তা কার্যকর করা হবে।

এসএসএলভি-ডি১-এ যে নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে, তা সফল হয়েছে।

এস সোমনাথ এসএসএলভি-ডি১ সম্পর্কে বলেছিলেন যে, এই রকেটটিতে অন্তর্ভুক্ত অন্যান্য নতুন জিনিসগুলি সত্যিই ভাল পারফর্ম করেছে, যার মধ্যে রয়েছে প্রপালশন পর্যায়। এ-ছাড়া এর সম্পূর্ণ হার্ডওয়্যার, এরোডায়নামিক ডিজাইন, নতুন প্রজন্ম এবং কম দামী ইলেকট্রনিক্স সিস্টেম, কন্ট্রোল সিস্টেম, নতুন সেপারেশন সিস্টেম, সম্পূর্ণ আর্কিটেকচার এবং রকেটের সম্পূর্ণ আর্কিটেকচার দুর্দান্ত। এতে আমরা ভীষণই খুশি।

আরও পড়ুন: নিজের একটা QR কোড বানাবেন? সুবিধেগুলো জানলে ইচ্ছে হবেই হবে

এস সোমনাথ বলেছেন, আমাদের আশা, কয়েকটি ছোটখাটো উন্নতি এবং পর্যাপ্ত সংখ্যক ট্রায়ালের মাধ্যমে সেই উন্নতিগুলি বাস্তবায়ন ও যাচাই করার পরে আমরা শীঘ্রই এসএসএলভি-ডি২ (SSLV-D2) নিয়ে আসব। এসএসএলভি (SSLV)-র দ্বিতীয় উড়ানের মাধ্যমে আমরা এটা প্রমাণ করতে সম্পূর্ণ রূপে সফল হব যে, এটি ভারত এবং সারা বিশ্বে বাণিজ্যিক ব্যবহারের জন্য পছন্দসই কক্ষপথে উপগ্রহ স্থাপন করতে সক্ষম।

Published by:Teesta Barman
First published:

Tags: ISRO

পরবর্তী খবর