‘টিম বন্ডিং’-কে মূলমন্ত্র করেই এগিয়ে চলেছেন কুম্বলে

শাস্ত্রীয় জমানায় অনেকটা ফিঁকে হওয়া যাওয়া টিম বন্ডিংয়ের রুপোলি ঝলক ফের বিরাট-ধাওয়ানদের চোখে মুখে।

শাস্ত্রীয় জমানায় অনেকটা ফিঁকে হওয়া যাওয়া টিম বন্ডিংয়ের রুপোলি ঝলক ফের বিরাট-ধাওয়ানদের চোখে মুখে।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #ব্যাসেতেরে:  বিরাটদের হেড কোচের দায়িত্ব নিয়েই নিজের তৈরি রোডম্যাপ অনুযায়ী কাজ শুরু করেন জাম্বো। জুনিয়র দলের কোচ দ্রাবিড়কে সঙ্গী করে নির্বাচক, ধোনিদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন কুম্বলে। তৈরি হয় ‘বার্ডি প্রজেক্ট’। আর বৈঠক শেষে কুম্বলে নেমে পড়েন টিম বন্ডিং সেশনে। কারণ জাম্বো বুঝেছিলেন সাফল্য পেতে চাই টিমওয়ার্ক। তাই জোড় দিতে হবে বন্ডিংয়েই।

    টিম বন্ডিং-এর প্রথম পদক্ষেপেই উঠে এলো ড্রাম সেশন। মিউজিক থেরাপির সাহায্যে টিমের ঐক্য গড়তে ডাক পড়ল বসুন্ধরা দাসের ড্রামজামের। ক্যারিবিয়ান সফরে দল ছাড়াও জুনিয়র দলের ক্রিকেটার, ধোনিকে নিয়ে চলল ড্রাম বাজানোর পালা। সেশন শেষেই মনের আনন্দে নাচ-গান। সেখানে বাজাচ্ছেন কুম্বলে, আর নাচ্ছেন বিরাট। টিম ইন্ডিয়ার মিউজিক সেশনে মিলে সুর মেরা তুমহারা.....

    ড্রাম সেশনের পরই ফুটবল মাঠের স্টাইলে ভোকাল টনিক। বক্তা একদিনের অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। মাহি তখন আশির দশকের পিকে। আগামী ১৩টি টেস্টের জন্য নিজের অভিজ্ঞতা উজাড় করে দিলেন টেস্ট থেকে অবসর নেওয়া অধিনায়ক।

    মাহির টনিকের পরই অধিনায়ক সুলভ সংক্ষিপ্ত বক্তব্য কোহলির গলায়।

    যে সুরে দলকে বাঁধতে চেয়েছিলেন কুম্বলে তা যেন প্রথম রাতেই অনেকটা সম্পূর্ণ। কারণ শাস্ত্রীয় জমানায় অনেকটা ফিঁকে হওয়া যাওয়া টিম বন্ডিংয়ের রুপোলি ঝলক ফের বিরাট-ধাওয়ানদের চোখে মুখে। আর অফ-দ্য-ফিল্ড অনুশীলনেও কেটেছে একঘেয়েমি। যার টাটকা কোলাজ চোখে পড়েছে ক্যারিবিয়ানে।

    First published: