মোতেরায় ফিরবে না অ্যাডিলেডের দুঃস্বপ্ন বলছেন পূজারা

মোতেরায় ফিরবে না অ্যাডিলেডের দুঃস্বপ্ন বলছেন পূজারা

অ্যাডিলেডের দুঃস্বপ্ন ফিরবে না আমেদাবাদে নিশ্চিত পূজারা

ভারতীয় ক্রিকেটের নতুন দেওয়াল বলে পরিচিত চেতেশ্বর পূজারা অবশ্য মনে করেন উইকেট যেরকমই হোক না কেন, নিজেদের ভাল খেলতে হবে।

  • Share this:

    #আহমেদাবাদ: গোলাপি বলে দিন রাতের টেস্ট খেলতে প্রস্তুত ভারত। ইতিমধ্যে অনুশীলন শুরু হয়ে গিয়েছে সিরিজের তৃতীয় টেস্টের জন্য। প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে হেরে যাওয়ার পর, দ্বিতীয় টেস্টে বড় ব্যবধানে জিতে কামব্যাক করেছে টিম ইন্ডিয়া। কিন্তু গোলাপি বলের টেস্ট যে সহজ নয় মোটেও সেটা বিলক্ষণ বুঝতে পারছেন বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মারা। ভারতের তুলনায় গোলাপি বলে খেলার অভিজ্ঞতা বেশি রয়েছে ইংল্যান্ডের। মার্ক উড, জ্যাক ক্রলীর মত ক্রিকেটাররা ইতিমধ্যে ভারতকে পরোক্ষ চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে রেখেছেন।

    মোতেরার উইকেটে বল সুইং করছে, যা ইংলিশ পেসারদের উত্তেজনা বাড়িয়ে দিয়েছে। উইকেটে ঘাসও রয়েছে। তবে সেটা খেলা শুরুর আগে পর্যন্ত থাকবে এমন গ্যারান্টি নেই। অ্যান্ডারসন, উড, ব্রডদের এমন উইকেট দিলে ভারতকে ভুগতে হবে সন্দেহ নেই। যদিও বুমরাহ, ইশান্ত এবং ফিট হলে উমেশ খেলবেন, তবুও কিছুটা হলেও অ্যাডভান্টেজ ইংল্যান্ড বলতে হবে উইকেট এমন থাকলে।

    ভারতীয় ক্রিকেটের নতুন দেওয়াল বলে পরিচিত চেতেশ্বর পূজারা অবশ্য মনে করেন উইকেট যেরকমই হোক না কেন, নিজেদের ভাল খেলতে হবে। তিনি নিশ্চিত নন এই উইকেট কেমন ব্যবহার করবে।বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলার জন্য এই দুই টেস্ট ম্যাচ ভারতের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তবে মোতেরার উইকেট মোটেও বিপদজনক নয় বলেই মনে করছেন পুজারা।

    বলেছেন, "ঘূর্ণি উইকেটে খেলায় অবশ্যই সমস্যা হয়। তবে এটা মোটেও ভয়ঙ্কর উইকেট নয়। বল ঘুরলে রান করাটা সমস্যা। বিশেষ করে বিদেশি দলগুলোর কাছে। আমরাও বিদেশে গিয়ে পেস সহায়ক উইকেটে খেলি। তিন-চার দিনেই খেলা শেষ হয়ে যায়। আমাদের এখনো প্রচুর ঘাস থাকা পেস উইকেটে খেলতে হবে। তবে এখানকার এই উইকেটে বল কতটা ঘুরবে আন্দাজ করা খুবই কঠিন। এটা খারাপ বা ভয়ঙ্কর পিচ বলে আমার মনে হয় না। তবে দ্বিতীয় ইনিংসের সময় কী হবে সেটা বলা কঠিন"।

    কিন্তু তিনি আত্মবিশ্বাসী পরিস্থিতি যেরকমই হোক অ্যাডিলেডের বিভীষিকা ফিরবে না আমেদাবাদে। প্রথমত ভারত ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েছে। তাছাড়াও অস্ট্রেলিয়ায় ছিল কোকাবুরা বল, এখানে এস জি বল। তাই সেটাও একটা ফ্যাক্টর মনে করেন পূজারা।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    লেটেস্ট খবর