TMC to EC : মডেল আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ, মোদি-শাহদের বিরুদ্ধে কমিশনে টিএমসি

TMC to EC : মডেল আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ, মোদি-শাহদের বিরুদ্ধে কমিশনে টিএমসি

কমিশনে চিঠি তৃণমূলের Photo- file photo

ডেরেক ও'ব্রায়েন দাবি করেছেন, রাজ্যের ভোটারদের প্রভাবিত করতে এবং তাঁদের মনে ‘ভ্রান্ত’ ধারণা তৈরি করতে BJP নানা 'মিথ্যা আখ্যান' প্রচার করে চলেছে।

  • Share this:

    #কলকাতা : ‘ইচ্ছাকৃতভাবে’ একের পর এক দলীয় নেতাদের তলব, প্রশাসনের ‘অপব্যবহার’, নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘন ইত্যাদি একগুচ্ছ অভিযোগ নিয়ে ভারতীয় জনতা পার্টির  বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হল তৃণমূল কংগ্রেস। বুধবার দলের পক্ষ থেকে একটি চিঠি দিয়ে যাবতীয় অভিযোগ জানানো হয়েছে কমিশনকে। তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ডেরেক ও ব্রায়ান বুধবার ভারতীয় নির্বাচন কমিশনকে (ইসিআই) চিঠি লিখে তাঁদের অভিযোগ বিস্তারে জানিয়েছেন। বিধানসভা নির্বাচনের ঘোষণার পর থেকে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলে চলছিল ভারতীয় জনতা পার্টি (BJP)। এবার তাদের বিরুদ্ধেই জোরালো অভিযোগ আনলো TMC। ওব্রায়েন তাঁর চিঠিতে লিখেছেন গত পাঁচ বছর ধরে বিচারাধীন মামলায় তৃণমূলের দলীয় নেতাদের "ইচ্ছাকৃতভাবে" হেনস্থা করতে কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থাগুলির অপব্যবহার করে চলেছে BJP।

    প্রসঙ্গত, ভোটের মুখে মদন মিত্র, কুণাল ঘোষ, বিবেক গুপ্ত-সহ তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক নেতাকে তলব করা হয়। তা নিয়েই এবার নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ তৃণমূল। ঘাসফুল শিবিরের দাবি, নেতাদের ‘ইচ্ছাকৃতভাবে’ বিপাকে ফেলছে বিভিন্ন কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলি। কিন্তু একই মামলায় অভিযুক্ত হলেও বিজেপি নেতাদের তলব করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। চিঠিতে অবশ্য বিজেপির কোনও নেতার নাম উল্লেখ করা হয়নি।

    শুধু এটুকুই নয়। রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক আরিজ আফতাবকে লেখা ওই চিঠিতে ডেরেক ও'ব্রায়েন দাবি করেছেন, রাজ্যের ভোটারদের প্রভাবিত করতে এবং তাঁদের মনে ‘ভ্রান্ত’ ধারণা তৈরি করতে BJP নানা 'মিথ্যা আখ্যান' প্রচার করে চলেছে। নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে যাতে কোনও ‘পক্ষপাতমূলক’ পদক্ষেপ না নেওয়া হয়, সেজন্য অবিলম্বে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা (সিবিআই), এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি), জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ), আয়কর বিভাগের মতো কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলিকে প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেওয়ার আর্জিও জানানো হয়েছে।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: