মেয়াদ শেষের আগেই পুড়ল ওষুধ, বিতর্কে সীতাহাটি প্রাথমিক স্বাস্থ‍্যকেন্দ্র

কেতুগ্রামে পোড়ানো হল ওষুধ

ফার্মাসিস্টের অবশ‍্য দাবি, ঘুন ধরা নষ্ট ওষুধ ফেলে দেওয়া হয়েছে।

  • Share this:

    #কাটোয়া: মেয়াদ শেষের আগেই পুড়িয়ে ফেলা হল প্রাথমিক স্বাস্থ‍্যকেন্দ্রের কয়েক হাজার টাকার ওষুধ। কেতুগ্রাম ২ নম্বর ব্লকের সীতাহাটি প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র চত্বরে উদ্ধার কয়েক হাজার টাকার পোড়া ওষুধ। ফার্মাসিস্টের সাফাই, ঘুন ধরে যাওয়ায় ফেলে দেওয়া হয়েছে ওষুধ। পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামের সীতাহাটি প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র। বুধবার স্বাস্থ‍্যকেন্দ্র চত্বর থেকে উদ্ধার হল কযেক হাজার টাকার পোড়া ওষুধ। কোনওটার মেয়াদ রয়েছে আরও এক বছর, কোনওটার মেয়াদ তারও বেশি। স্বাস্থ‍্যকেন্দ্রের চতুর্থ শ্রেণির এক কর্মীর দাবি, ফার্মাসিস্টের কথাতেই পোড়ানো হয়েছে ওষুধ। ফার্মাসিস্টের অবশ‍্য দাবি, ঘুন ধরা নষ্ট ওষুধ ফেলে দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কর্মীরা ওষুধ পোড়ানোয় হতবাক এলাকাবাসী থেকে পঞ্চায়েত প্রধান। ১৯৬৫ সালে রাজ‍্য সরকার সীতাহাটি প্রাথমিক স্বাস্থ‍্যকেন্দ্র চালু করেছিল। সীতাহাটি, মৌগ্রাম এলাকার প্রায় ২০টি গ্রামের ভরসা এই স্বাস্থ‍্যকেন্দ্রই। বহির্বিভাগে প্রতিদিন চিকিৎসা পরিষেবা নেন গড়ে একশো জন। পাঁচ দশকে জরাজীর্ণ অবস্থা স্বাস্থ‍্যকেন্দ্রের। পরিষেবা দিতে কাটোয়া থেকে আসেন একজন চিকিৎসক। এই অবস্থায় ওষুধ পোড়ানো কতটা যুক্তিসঙ্গত, খতিয়ে দেখবেন ব্লক স্বাস্থ‍্য আধিকারিক।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: