'রাজীব-মুকুলরা দেশের জন্য সমর্পিত', অভিষেক 'বিগড়ে যাওয়া', লালমাটিতে যা বললেন জে পি নাড্ডা

'রাজীব-মুকুলরা দেশের জন্য সমর্পিত', অভিষেক 'বিগড়ে যাওয়া', লালমাটিতে যা বললেন জে পি নাড্ডা
জে পি নাড্ডা। ফাইল চিত্র

মমতার থেকেও বেশি আক্রমণের বাণ ডাকল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে লক্ষ্য করে।

  • Share this:

    #সিউড়ি: তারাপীঠে মাতৃমন্দিরে পুজো দিয়েই পরিবর্তন যাত্রার শুভসূচনা করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। ট্যাবলো বের হওয়ার আগে বীরভূমের চিলার মাঠে নাড্ডার সভায় বারংবার এল মোদির বেঁধে দেওয়া স্লোগান-অনেক হয়েছে মমতা, পরিবর্তন চাইছে জনতা। মমতার থেকেও বেশি আক্রমণের বাণ ডাকল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে লক্ষ্য করে। এক্সোডাস বা তৃণমূলীদের দলত্যাগের পিছনে তাঁকেই দায়ী করলেন নাড্ডা।

    দিন কয়েক আগেই কাঁথির সভা থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় শুভেন্দু অধিকারীর নাম না করেই কু-কথার স্রোত বইয়ে দিয়েছিলেন। সেই প্রসঙ্গের অবতারণা করে আজ জে পি নাড্ডা বলেন, ঠশুভেন্দুর বাবাকে নিয়ে কেন কথা! ওরা যা বলল আমি তা বলতে পারব না। বাংলাকে কলঙ্কিত করেছে ওরা। ঠ

    নাড্ডার কথায়, "অভিষেক বিগড়ে যাওয়া ছেলে। তাই রাজীবরা  সরে গিয়েছেন। রাজীবের নাম নিয়েই জেপি নাড্ডা বলেন, রাজীব-মুকুলদারা জানেন মা মাটি মানুষ এর সরকার মা মাটি মানুষের হয়ে থাকেনি।" জে পি নাড্ডা মনে করছেন, 'রাজীব-মুকুলরা দেশের জন্য সমর্পিত', সে কারণেই দলত্যাগের কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে তাঁদের।


    এ দিন তাঁর ডায়মন্ডহারবার সফরের কথাও তোলেন নাড্ডা। বলেন, ডায়মণ্ডহারবার, ভবানীপুর যাওয়া ভুল হয়েছিল? ভাইপোকে বলছি ওখানে আবার যাব। প্রজাতন্ত্র কী শিক্ষা দেবো।

    এ দিন নাড্ডা বিজেপির অন্য নেতাদের সুরেই বলে চলছিলেন, " প্রশাসনের রাজনীতিকরণ হয়েছে। আমাদের ১৩০ জন কার্যকর্তা মারা গিয়েছে। তাদের তর্পণ আমরা করেছি। এটা কেমন বাংলা!"

    প্রধানমন্ত্রীকে এদিন শ্যমাপ্রসাদের যোগ্য উত্তরসূরীর মর্যাদা  দেন নাড্ডা। তিনি বলেন, ভারতের সংস্কৃতি রক্ষা করতে সারাজীবন তৎপর থেকেছেন শ্যামাপ্রসাদ। তিনিই বলেছিলেন, এক দেশে দুই সংবিধান, দুই পতাকা চলবে না। তাঁর বলিদান ব্যর্থ হয়নি। ৩৭০ ধারা রদ হয়েছে মোদিজী শাহের নেতৃত্বে। তাঁর আক্ষেপ শ্যামাপ্রসাদের সেই বাংলা. দেশকে ভাবানোর বাংলা আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জমানায় বিপন্ন। তাঁর যুক্তি,ভাই ভাইয়ে লড়িয়ে দিয়েছে,শোষণ করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। এই কারণেই আমাদের পরিবর্তন যাত্রা। কীসের পরিবর্তন? নাড্ডা বললেন, "ভক্তিবাদের শাক্তমতের বাংলাকে ফিরিয়ে আনতে চাই আমরা।বাংলার মানুষকে জাগাবে এই পরিবর্তন যাত্রা।"

    এদিন নাড্ডা ঢালাও প্রশংসা করছিলেন প্রধানমন্ত্রীর। বলেন, "প্রধানমন্ত্রী খালি হাতে আসেননি। ৪৭০০ কোটি টাকার লগ্নি নিয়ে এসেছেন। ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো করিডর এসেছে বিকাশের জন্য।হাতানিয়া দোয়ানিয়ার কাজ প্রধানমন্ত্রী করেছেন, কেন তিনি আসবেন না।গোমা ডানকুনি ফ্রেট করিডরের জন্য লগ্নি বরাদ্দ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর হৃদয়ে বাংলার জন্য বিশেষ জায়গা রয়েছে।"

    Published by:Arka Deb
    First published: