দীর্ঘ ৩ ঘণ্টা পর বিশ্বভারতীতে ঘেরাও মুক্ত বিজেপি সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত

দীর্ঘ ৩ ঘণ্টা পর বিশ্বভারতীতে ঘেরাও মুক্ত বিজেপি সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত

দীর্ঘক্ষণ ৩ ঘণ্টা ঘেরাও করে রাখা হয় বিশ্বভারতীর কোট সদস্য স্বপন দাশগুপ্তকে৷ ছাত্র সংগঠনের বক্তব্য ছিল, বিশ্বভারতীতে এই ধরনের বিষয়ে সেমিনারের কোনও প্রয়োজন নেই৷ ফলে বিজেপি সাংসদকে ঘিরে উত্তপ্ত হতে শুরু করে বিশ্বভারতী ক্যাম্পাস৷

  • Share this:

#শান্তিনিকেতন: বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে অবশেষে ঘেরাও মুক্ত বিজেপি সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত৷ নয়া নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি-র পক্ষে একটি সেমিনারে যোগ দিতে গিয়েছিলেন স্বপন দাশগুপ্ত৷ সেখানেই তাঁকে দীর্ঘক্ষণ ঘেরাও করে রাখে বাম ছাত্র সংগঠন ৷ রাত সাড়ে ৯টা নাগাদ ঘেরাও তোলে বিক্ষোভকারীরা৷ ছাত্র সংগঠন জানায়, সেমিনার বয়কট করা গিয়েছে৷ তাই বিক্ষোভ তুলে নেওয়া হচ্ছে৷

বুধবার বিশ্বভারতীর পেক্ষাগৃহে ‘The CAA-2019: Understanding and Interpretation’ শীর্ষ বিষয়ে বক্তব্য রাখার কথা ছিল বিজেপি-র রাজ্যসভা সাংসদের৷ কিন্তু বিশ্বভারতীতে পৌঁছতেই স্বপন দাশগুপ্তকে কালো পতাকা দেখিয়ে গো ব্যাক স্লোগান দিতে থাকে বিক্ষোভকারী ছাত্র-ছাত্রীরা৷

বিশ্বভারতীতে বিজেপি সাংসদকে ঘেরাও বিশ্বভারতীতে বিজেপি সাংসদকে ঘেরাও

দীর্ঘক্ষণ ৩ ঘণ্টা ঘেরাও করে রাখা হয় বিশ্বভারতীর কোট সদস্য স্বপন দাশগুপ্তকে৷ ছাত্র সংগঠনের বক্তব্য ছিল, বিশ্বভারতীতে এই ধরনের বিষয়ে সেমিনারের কোনও প্রয়োজন নেই৷ ফলে বিজেপি সাংসদকে ঘিরে উত্তপ্ত হতে শুরু করে বিশ্বভারতী ক্যাম্পাস৷

রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় ঘটনার তীব্র সমালোচনা করে ট্যুইট করেন, 'এই ঘটনা প্রমাণ করছে, রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি খুব খারাপ৷ আরও চিন্তার বিষয় হল, সরকার গা এলিয়ে বসে রয়েছে৷ অবিলম্বে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখার সময় এসেছে৷'

First published: January 8, 2020, 10:35 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर