• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • 24 PARGANAS IN SOUTH 24 PARGANA BOYFRIEND DIED BY HITTING OF TRAIN GIRL FRIEND GETS INJURED PBD

Bengali News| South 24 Pargana: চোখের সামনে প্রেমিককে ট্রেনের ধাক্কা, মৃত্যু! প্রেমিকার যা হল...

ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু

শনিবার রাতের সময়, ডায়মন্ড হারবার ষ্টেশন( Daimond Harbar rail station) থেকে বেশ কিছুটা দূরে ঘটনাটা ঘটে৷

  • Share this:

    #ডায়মন্ড হারবার: চলছিল দুই প্রেমিক-প্রেমিকার নিখাদ ভালবাসার গল্প৷ কিন্তু সেই প্রেমালাপ শেষ হল মর্মান্তিক এক ঘটনার মধ্যে দিয়ে৷ ঘটনাস্থলে প্রমিকার চোখের সামনে রক্তাক্ত অবস্থায় মৃত্যু হল প্রমিকের৷ আর প্রেমিকাও হলে আহত৷ ঘটনা শিয়ালদাহ দক্ষিণ শাখার (Sealdah south section) ডায়মন্ড হারবার (Diamond Harbour) ও গুরুদাশনগর রেল ষ্টেশন মধ্যবর্তী এলাকার (Rail Station)৷ এরফলে এলাকায় চূড়ান্ত শোকের ছায়া নেমে এসেছে৷

    আরও পড়ুন Gold Sale: সোনার গয়নায় হলমার্কের পাশাপাশি QR কোড চালু করতে চলেছে কেন্দ্র, সমস্যায় ছোট ব্যবসায়ীরা

    শনিবার রাতের সময়, ডায়মন্ড হারবার ষ্টেশন থেকে বেশ কিছুটা দূরে রেললাইনে বসে গল্প করছিল মাসুম শেখ ও তনুজা খাতুন৷ মাসুমের বয়স ১৮ এবং তনুজার বয়স ১৭৷ কুলপি থানা এলাকার বকচর গ্রামের বাসিন্দা তারা৷ একে অপরের সঙ্গে গল্প করতে এতটাই মশগুল ছিলেন দু’জনে যে বুঝতেই পারেননি কখন সামনে চলে এসেছে ট্রেন৷ মোহভঙ্গ হয়ে যতক্ষণে বুঝতে পেরেছেন ট্রেন আসছে, ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে৷ শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার ডাউন ডায়মন্ড হারবার লোকাল ট্রেন এসে ধাক্কা মারে দুজনকে (Train hits couple sitting on Rail Line)। ট্রেনের ধাক্কায় লাগে মাসুম ও তনুজার৷ ঘটনাস্থলেই রক্তাক্ত হয় মৃত্যুর মুখে ঢোলে পড়েন ১৮ বছরের মাসুম৷ তনুজা মারাত্মক জখম হয়৷ এমনই জানিয়েছে রেল পুলিশ৷

    আরও পড়ুন Habra News: ATM-এর মাধ্যমে টাকা রাখতে গিয়ে উধাও প্রায় ৭৫ হাজার টাকা! ব্যাঙ্কের জালিয়াতি অভিযোগ ব্যবসায়ী

    ঘটনার খবর পেয়েই ঘটনাস্থল আসে রেল পুলিশ (Rail Police)৷ দুজনকে উদ্ধার করে ডায়মন্ড হারবার জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানে পৌঁছলে চিকিৎসকরা মাসুম শেখকে মৃত বলে জানিয়ে দেয়৷ তনুজার গুরুতর জখম হওয়ায় তার চিকিৎসা শুরু হয়৷ বর্তমানে ডায়মন্ড হারবার মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে তনুজা খাতুন আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন। ঘটনার জেরে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়।

    Published by:Pooja Basu
    First published: