• Home
  • »
  • News
  • »
  • off-beat
  • »
  • আজ রথ, নিয়ম মেনে শুধু এই কাজগুলো করুন... অর্থকষ্ট দূর হবেই...সমৃদ্ধি আসবে

আজ রথ, নিয়ম মেনে শুধু এই কাজগুলো করুন... অর্থকষ্ট দূর হবেই...সমৃদ্ধি আসবে

রথের দিন সকালটা অন্যান্য দিনের চেয়ে আলাদা । জগন্নাথের আশীর্বাদ নিয়ে শুরু করুন দিনটা । কী কী করবেন?

রথের দিন সকালটা অন্যান্য দিনের চেয়ে আলাদা । জগন্নাথের আশীর্বাদ নিয়ে শুরু করুন দিনটা । কী কী করবেন?

রথের দিন সকালটা অন্যান্য দিনের চেয়ে আলাদা । জগন্নাথের আশীর্বাদ নিয়ে শুরু করুন দিনটা । কী কী করবেন?

  • Share this:

    #কলকাতা: জগন্নাথদেবকে মনে করা হয় স্বয়ং নায়ায়ণের অংশবিশেষ ৷ তিনিই সংসারের রক্ষা কর্তা ৷ তাই একবার জগন্নাথ দর্শনেই হাজার জন্মের ফল লাভ হয়, এমনটাই মনে করেন তাঁর ভক্তরা । শাস্ত্র অনুযায়ী, সংসারে সমৃদ্ধি, শ্রীবৃদ্ধির জন্য রথ উৎসব কিন্তু অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ৷ তাই রথের দিন সকালটা অন্যান্য দিনের চেয়ে আলাদা । জগন্নাথের আশীর্বাদ নিয়ে শুরু করুন দিনটা । কী কী করবেন?

    • এ দিন সকাল সকাল স্নান সেরে নিন ৷ বাড়ির জগন্নাথদেবের মূর্তিকে সাদা, হলুদ ফুলে সাজিয়ে তুলুন ৷ সঙ্গে সাজিয়ে তুলুন বলরাম ও সুভদ্রাকেও ৷

    • সাদা চন্দন দিয়ে জগন্নাথকে সাজাতে ভুলবেন না যেন ৷

    • এ দিন জগন্নাথ দেবের সামনে জ্বালিয়ে দিন ঘিয়ের প্রদীপ ৷ লক্ষ্য রাখুন প্রদীপটি যেন জ্বলতে থাকে ৷

    • সেই প্রদীপ থেকে জ্বালিয়ে নিন রথে রাখা প্রদীপটি ৷

    • ঠাকুর ঘর ছাড়া, ঘরের অন্য কোথাও জগন্নাথ দেবের মূর্তি থাকলে, সব মূর্তিতেই মালা, ফুল দিন ৷

    • জগন্নাথ ক্ষীর খেতে ভালেবাসেন ৷ ক্ষীর যেন থাকে জগন্নাথের প্রসাদে ৷

    • রথ টানার আগে অবশ্যই শঙ্খ ধ্বনি ও কাঁসর-ঘণ্টা বাজান ৷

    • জগন্নাথ দেবকে তুষ্ট করতে তাঁর মন্ত্রচ্চারণ করুন । ‘ নীলাচলনিবাসায় নিত্যায় পরমাত্মনে। বলভদ্র সুভদ্রাভ্যাং জগন্নাথায় তে নমঃ।’ এই মন্ত্রের অর্থ হল-‘পরমাত্মা স্বরুপ যাঁরা নিত্যকাল নীলাচলে বসবাস করেন, সেই বলদেব, সুভদ্রাও জগন্নাথদেবকে প্রণতি নিবেদন করি।’

    Published by:Simli Raha
    First published: