উত্তরবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

শিলিগুড়ির রবীন্দ্র সঙ্ঘে এবারে সিঁদুর খেলা হবে না, ভার্চুয়াল অঞ্জলি হবে রবীন্দ্র সঙ্ঘ ও কলেজপাড়াতেও 

শিলিগুড়ির রবীন্দ্র সঙ্ঘে এবারে সিঁদুর খেলা হবে না, ভার্চুয়াল অঞ্জলি হবে রবীন্দ্র সঙ্ঘ ও কলেজপাড়াতেও 

কোভিড প্রোটোকল মেনে পুজো মণ্ডপে অষ্টমীর অঞ্জলির আয়োজন স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরিবর্তে রবীন্দ্র সঙ্ঘের ফেসবুক পেজে লাইভে ভার্চুয়াল অঞ্জলি হবে।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: কোভিড বিধি মেনে পুজোয় নয়া সিদ্ধান্ত শিলিগুড়ির রবীন্দ্র সঙ্ঘের উদ্যোক্তাদের। স্বাস্থ্য বিধি মেনে পুজোর আয়োজন তো এগোচ্ছিলই। গতকালে কলকাতা হাইকোর্টের রায়ের পর আরও বেশ কিছু নতুন সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুজো উদ্যোক্তারা।

এবারে বাড়ি বাড়ি গিয়ে পুজোর চাঁদা সংগ্রহ অভিযান আগেই বাতিল করেছিল। পরিবর্তে পুজো মণ্ডপের সামনে দান বাক্স রেখে দিয়েছেন উদ্যোক্তারা। যে যাঁর সাধ্য মতো সেখানে অর্থ জমা করছেন। সংগৃহীত অর্থ দিয়ে পুজো করবেন তারা। করোনা আবহে খোলামেলা মণ্ডপ তৈরি হয়েছে। মণ্ডপের ভিতরে অর্থাৎ প্রতিমার কাছে দর্শনার্থীদের প্রবেশে ‘না"’নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। রাস্তায় দাঁড়িয়েই প্রতিমা এবং মণ্ডপ দর্শন। সেইসঙ্গে কোভিড প্রোটোকল মেনে পুজো মণ্ডপে অষ্টমীর অঞ্জলির আয়োজন স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরিবর্তে রবীন্দ্র সঙ্ঘের ফেসবুক পেজে লাইভে ভার্চুয়াল অঞ্জলি হবে।

অষ্টমীর ভোগ যেমন সংগ্রহ করবে না, তেমনি ভোগ বিতরণও করবেন না তারা। সন্ধি পুজোয় শুধুমাত্র রবীন্দ্র সঙ্ঘের স্বেচ্ছাসেবক সদস্যরা অংশ নেবেন। কোনও দর্শনার্থীর প্রবেশ হবে না। হাইকোর্টের রায়কে মান্যতা দিয়েই পুজো মণ্ডপে দর্শনার্থীদের জন্যে থাকছে ‘নো এন্ট্রি’ বোর্ড। শুধুমাত্র সঙ্ঘের কয়েকজন সদস্য আর ঢাকি থাকবে। আর সিঁদুর খেলাও এবারে আর হবে না বলে সঙ্ঘের পুজো কমিটির সম্পাদক উদিয়ন দাশগুপ্ত জানিয়ে দিয়েছেন। তিনি এও জানিয়েছেন, পুজো হবে সম্পূর্ণ স্বাস্থ্য বিধি মেনে। কলেজপাড়া পুজা কমিটিও বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। হাইকোর্টের রায়ের পর নতুন করে কোনো নির্দেশিকা না পাওয়ায় উদ্যোক্তারা মণ্ডপে প্রবেশে এক্ষুনিই ‘না’ বলছেন না। আর তাই থাকছে থার্মাল চেকিংয়ের ব্যবস্থা। সদস্যরা ফেস শিল্ড ব্যবহার করবে। মণ্ডপে প্রবেশ করতে হবে স্যানিটাইজার টানেলের মধ্য দিয়ে। দূরত্ব বিধি পালনের জন্যে গণ্ডি কেটে দেওয়া হয়েছে। একসঙ্গে ২০ জনের বেশি দর্শনার্থীর প্রবেশ নয়। পুজো কমিটির সদস্য সায়ন চৌধুরী জানান, এখনও প্রশাসন থেকে কোনও লিখিত নির্দেশ পাইনি। পেলে দর্শনার্থীদের প্রবেশের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হবে। তবে অষ্টমীর অঞ্জলি হবে ভার্চুয়াল। সিঁদুর খেলা হবে ৫-৬ জন করে ছোটো ছোটো গ্রুপে।

Partha Pratim Sarkar

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: October 20, 2020, 8:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर