corona virus btn
corona virus btn
Loading

নালার উপর দিয়েই চলছে ঝুঁকির পারাপার, সেতু তৈরির দাবিতে অনড় হলদিবাড়ির রাঙ্গাপানি কলোনির বাসিন্দারা

নালার উপর দিয়েই চলছে ঝুঁকির পারাপার, সেতু তৈরির দাবিতে অনড় হলদিবাড়ির রাঙ্গাপানি কলোনির বাসিন্দারা
Photo: Siddhartha Sarkar
  • Share this:

#হলদিবাড়ি: এক একটা ভোট আসে ৷ নিজেদের সমস্যাগুলি নিয়ে সরব হন সাধারণ মানুষ ৷ এই আশায়, যে যদি তাঁদের সমস্যার সমাধান হয় ৷ বেশ কিছু ক্ষেত্রে তা কাজে দিলেও অনেক সময়ই তা হয়ে ওঠে না ৷ যেমন লোকসভা ভোটের আগে বুড়িতিস্তা নদীর বড়ো নালার উপর পাকা সেতু তৈরি হোক, এই দাবিতেই সরব হয়েছেন সেখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা  ৷

হলদিবাড়ি ব্লকের রাঙ্গাপানি কলোনির বাসিন্দারা অনেক ঝুঁকি নিয়েই নালা পারাপার করে থাকেন ৷ ছাত্র-ছাত্রীরাও এভাবেই নালা পেরিয়ে প্রতিদিন স্কুলে যায় ৷ কারণ বিকল্প পথ যেটা রয়েছে, সেটা অনেকটাই বেশি পথ অতিক্রম করতে হয় ৷

অন্য পথে যেতে হলে বাসিন্দাদের ভাওলাগঞ্জ হয়ে প্রায় আড়াই কিলোমিটার পথ পায়ে হেঁটে অতিক্রম করতে হয় ৷ সমস্যাটা সবচেয়ে বেশি হয় বর্ষাকালে ৷ কারণ ওইসময় এই ঝুঁকির পারাপার অত্যন্ত সমস্যার এবং ভয়ের কারণ ৷ কাজেই বুড়ি তিস্তার বড়ো নালার উপর সেতু না থাকায় ভালমতোই সমস্যায় পড়েছেন দক্ষিণ বড় হলদিবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত রাঙ্গাপানি কলোনির বাসিন্দারা ৷ অনেকদিন ধরেই তাঁরা সেতু তৈরির দাবিতে সরব হয়েছেন ৷ সেতু তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ গ্রাম পঞ্চায়েতের পক্ষে যে দেওয়া সম্ভব নয়, সেটা স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে ৷ এর জন্য চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদের কাছে আবেদন করাও হয়েছে ৷

 এদিকে বুড়ি তিস্তার উপরেই মেখলিগঞ্জ পর্যন্ত সাড়ে ৩ কিমি-এর সেতু তৈরির কাজও এখন অনেকটাই সম্পূর্ণ ৷ আর এক বছরের মধ্যেই এই সেতু তৈরি হয়ে যাবে বলে দাবি করা হচ্ছে ৷ তখন মেখলিগঞ্জ পর্যন্ত যাতায়াত আরও সহজ হবে ৷ Photo: Siddhartha Sarkar এদিকে বুড়ি তিস্তার উপরেই মেখলিগঞ্জ পর্যন্ত সাড়ে ৩ কিমি-এর সেতু তৈরির কাজও এখন অনেকটাই সম্পূর্ণ ৷ আর এক বছরের মধ্যেই এই সেতু তৈরি হয়ে যাবে বলে দাবি করা হচ্ছে ৷ তখন মেখলিগঞ্জ পর্যন্ত যাতায়াত আরও সহজ হবে ৷ Photo: Siddhartha Sarkar

রাঙ্গাপানি কলোনিতে প্রায় ৯৬ পরিবারের বাস ৷ তাঁদের প্রত্যেকদিনই এভাবে কষ্ট করে নালা পেরিয়ে যাতায়াত করতে হয় ৷ তাঁদের দ্রুত সমস্যার সমাধান হয় কী না, সেটাই দেখার ৷

First published: April 16, 2019, 12:33 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर