• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • TRIPURA CABINET RESHUFFLE MAY OCCUR IN 31ST AUGUST BJP LEADERS FROM DELHI TO HIT THE GROUND AKD

Tripura Cabinet reshuffle| ঘুম কেড়েছে তৃণমূল আর সুদীপ শিবির, খোলনলচে বদলাতে দিল্লি থেকে ত্রিপুরা আসছেন বিজেপি নেতারা

বিপদের গন্ধ পেয়ে দিল্লি থেকে ত্রিপুরা আসছেন বিজেপির শীর্ষ নেতারা। সুদীপ রায়বর্মনকে নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে।

Tripura Cabinet reshuffle| মুখে মুখে ঘুরছে সুদীপ রায়বর্মণের নাম। কারণ বিক্ষুব্ধদের মধ্যে শীর্ষস্থানীয় তিনিই।

  • Share this:

#আগরতলা: ত্রিপুরায় ক্রমাগত তৃণমূলের উত্থানে উড়ছে ঘুম। এবার তড়িঘড়ি ত্রিপুরা সফরে আসছে বিজেপির তিন কেন্দ্রীয় নেতা। সূত্রের খবর, আগামী সোমবার আগরতলায় আসছেন রাজধানীর তিন হেভিওয়েট নেতা। অন্তত ৪ দিনের  ঠাসা কর্মসূচি রয়েছে তাদের। এই নেতারা হলেন সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক বিনোদ সোনকার, উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সাধারণ সম্পাদক সাংগঠনিক অজয় জামওয়ল এবং অসম ও ত্রিপুরা বিজেপির সাংগঠনিক সভাপতি ফণীন্দ্রনাথ শর্মা। সূত্রের খবর, এই নেতাদের উপস্থিতিতেই আগামী ৩১ অগাস্ট ত্রিপুরায় মন্ত্রীসভায় রদবদল হতে পারে ত্রিপুরার মন্ত্রীসভায়।

রাজনৈতিক মহলে চাউর, কেন তৃণমূল এতটা জায়গা দখল করার সুযোগ পাচ্ছে, দলের তলায় কী ভাবে একটু একটু করে চিড় ধরছে, সাংগঠনিক দুর্বলতা কোথায় কোথায় রয়েছে - এই সব বিষয়টি খতিয়ে দেখতেই ত্রিপুরায় আসবেন এই তিন নেতা। পাশাপাশি অনেক বিজেপি বিধায়ক তৃণমূলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন বলে খবর। তাঁরা কারা, কেন তাদের মনবদল, তা নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা হবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

উল্লেখ্য আগামী কালই ত্রিপুরায় ফিরবেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিকও। মন্ত্রী মনোনীত হওয়ার পর তিনি মাত্র একবারই ত্রিপুরায় এসেছিলেন আশীর্বাদ যাত্রা উপলক্ষে। সূত্রের খবর দলের তরফে তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ফণীন্দ্রনাথ শর্মা বিনোদ সরকার অজয় জামওয়াল এবং বিপ্লব দেবের সঙ্গে মন্ত্রিসভা রদবদল নিয়ে আলোচনার সারতে।  আপাতত জোর আলোচনা মন্ত্রিসভায় কারা ঠাঁই পাচ্ছেন তাই নিয়েই।

মোট চারজন জায়গা পাবে নতুন মন্ত্রীসভায়। বিজেপি থেকে ৩ জন আর আইপিএফটি থেকে একজন জায়গা পাবে এই নতুন মন্ত্রীসভায়। শোনা যাচ্ছে ১৭ জন বিধায়কের মধ্যে বেছে নেওয়া হবে এই তিনজনকে। এখানেই প্রশ্ন, এই ত্রয়ী কারা!

এর আগে জুন মাসে ত্রিপুরা ঘুরে গিয়েছিলেন বিএল সন্তোষ, অজয় জামওয়াল, ফণীন্দ্রনাথ শর্মারা। সে সময়ে ছোট ছোট দল করে বিজেপির বিক্ষুব্ধ বিধায়কদের সঙ্গে কথা বলেন তাঁরা। সেই কথাবার্তার রিপোর্ট বিস্তারিতভাবে জমা পড়ে জে পি নাড্ডার কাছে। মনে করা হচ্ছে, এবার মন্ত্রিসভায় রদবদলে সেই রিপোর্টের ছায়া থাকবে। মুখে মুখে ঘুরছে সুদীপ রায়বর্মণের নাম। কারণ বিক্ষুব্ধদের মধ্যে শীর্ষস্থানীয় তিনিই। অথচ তাঁর লোকখ্য়াতি প্রশ্নাতীত। মাঝে দিল্লি সফরও সেরে এসেছেন তিনি। এই অবস্থায় কি সুদীপকে ফের স্বাস্থ্য দফতরের দায়িত্ব ফিরিয়ে দিয়ে ড্যামেজ কন্ট্রোল করবে দল, সেটাই দেখার।

Published by:Arka Deb
First published: