প্রযুক্তির বিপদ! Google Map-এর দেখানো পথে বিশ্বাস করতে মরতে বসেছিলেন দুই বন্ধু!

প্রযুক্তিতে বিশ্বাস করে বিপত্তি

রাজস্থানের মেনারের কাছে তাঁরা যখন পৌঁছন তখন তাঁরা Google Map-এ অন্য একটি রাস্তার সন্ধান পান।

  • Share this:

#উদয়পুর: অচেনা জায়গায় গিয়েছেন বা যাওয়ার পরিকল্পনা আছে? তাহলে আপনার মাথায় যে বিষয়টি প্রথমে আসবে তা হলো রুট বা রাস্তা। কোন রাস্তা দিয়ে যাবেন, বা কোনটি দিয়ে গেলে সুবিধা হবে এসব চিন্তা করতে করতেই অর্ধেক সময় কেটে যায়। ঠিক তখনই মুশকিল আসান হিসেবে আসে Google Map। কোনও স্মার্ট সিটি হোক বা সুন্দরবন বা পুরুলিয়ার কোনও প্রত্যন্ত গ্রাম হোক, গাড়ির ড্যাশবোর্ডে Google Map অন করে শুরু হয় পথচলা। যেন মনে হয় অত্যন্ত দক্ষ কেউ পথ দেখিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু সেই অ্যাপ যখন অদক্ষতার পরিচয় দেবে তখন কী হবে? ভেবে দেখেছেন? গন্তব্যে পৌঁছন তো দূরের কথা, আদৌ সেখানে পৌঁছতে পারবেন কি না সে বিষয়ে বাড়বে সন্দেহ। ঠিক এরকমই এক ঘটনার সাক্ষী দুই পর্যটক। একজন জার্মানির এবং অপরজন এসেছিলেন উত্তরাখণ্ড থেকে। তাঁদের যাত্রার অভিমুখ ছিল রাজস্থানের উদয়পুর। Google Map-এর নির্দেশ অনুযায়ী পথ চলায় তাঁদের ভ্রমণের পরিকল্পনা একপ্রকার মাঠেই মারা যাওয়ার উপক্রম হয়েছিল।

কার্টক (Cartoq) নামে একটি ওয়েবসাইটে একটি খবর প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে ওই দুই ট্রাভেলারের সঙ্গে যে ঘটনা ঘটেছে তা বিবরণ দেওয়া হয়েছে।

ঠিক কী হয়েছে?

একটি গ্র্যান্ড আই ২০ (i20)-তে করে ওই দুই পর্যটক উদয়পুর যাচ্ছিলেন। রাজস্থানের মেনারের কাছে তাঁরা যখন পৌঁছন তখন তাঁরা Google Map-এ অন্য একটি রাস্তার সন্ধান পান। ওই রাস্তাটি ধরলে আরও তাড়াতাড়ি গন্তব্যে পৌঁছবেন। এমনই দেখাচ্ছিল অ্যাপটিতে। সেই মতো Google Map-এর সন্ধান দেওয়া নতুন রাস্তা ধরেন তাঁরা। আর তাতেই বিপত্তি।

শুরুর দিকে রাস্তাটি মোটামুটি ঠিকঠাক থাকলেও যত এগোচ্ছিলেন তত রাস্তাটি খারাপ হচ্ছিল। সিঙ্গল লেনের ওই রাস্তাটি হাঁটারও অযোগ্য বলে জানা গিয়েছে। কোথাও জল কাদা জমে রয়েছে, কোথাও আবার গর্তে ভর্তি। এক জায়গায় গিয়ে গাড়িটি আটকে যায়। সেটি আর সামনের দিকে এগোতে পারেনি।

এ রপর ওই দুই পর্যটক খবর দেন তাঁদের এক বন্ধুকে। তিনি এসে একটি ট্রাক্টর ও দড়ি জোগাড় করে গাড়িটিকে টেনে তোলে। প্রায় দুপুর ১টা নাগাদ গাড়িটি আটকে পড়ে এবং সেটিকে সম্পূর্ণ ভাবে উদ্ধার করা হয় সন্ধে ৬টা নাগাদ।

তবে এটাই প্রথম নয়, ইতিপূর্বেও কয়েকদিন আগে একটি ট্রাক্টর আটকে গিয়েছিল ওই রাস্তায়। সেই রাস্তাকে কী ভাবে সঠিক বলে দাবি করে Google Map, সমালোচনা এখন তা নিয়েই!

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: