Delhi Pollution: ফসল পোড়ানো রুখতে ছোট চাষিদের উত্‍সাহ ভাতা দেওয়ার নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

Delhi Pollution: ফসল পোড়ানো রুখতে ছোট চাষিদের উত্‍সাহ ভাতা দেওয়ার নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের
ফসল পোড়ানো

আদালত জানায়, কেন্দ্র ও রাজ্য, দুই সরকারেরই উচিত প্রান্তিক ও ছোট চাষিদের মেশিন ব্যবহারে সাহায্য করা, যাতে তাঁদের ফসল পোড়াতে না হয়৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দিল্লি ও রাজধানী সংলগ্ন অঞ্চলের ভয়াবহ দূষণ রুখতে এ বার ছোট ও প্রান্তিক চাষিদের সহায়ক মূল্য দেওয়ার নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট, যাতে তাঁরা ফসল না পোড়ান৷ শীর্ষ আদালতের আরও নির্দেশ, যে সব চাষিরা এখনও ফসল পোড়াননি, তাঁদের প্রতি কুইন্টাল ফসল-আবর্জনায় ১০০ টাকা আর্থিক সাহায্য দেওয়া দিতে হবে ৭ দিনের মধ্যে৷ পঞ্জাব, হরিয়ানা ও উত্তরপ্রদেশের চাষিরা এই সহায়ক মূল্য পাবেন৷

ফসল পোড়ানো হচ্ছে হরিয়ানায় ফসল পোড়ানো হচ্ছে হরিয়ানায়

দিল্লি ও রাজধানী সংলগ্ন অঞ্চলে দূষণের জেরে গত সপ্তাহ থেকে জনস্বাস্থ্যে জরুরি অবস্থা জারি করেছে দিল্লি সরকার৷ বুধবার কেজরিওয়াল সরকারকে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দেয়, সরকারের উচিত চাষিদের মেশিন দিয়ে সাহায্য করা বা মেশিনের ভাড়া নিতে আর্থিক সহায়তা করা৷ আদালত জানায়, কেন্দ্র ও রাজ্য, দুই সরকারেরই উচিত প্রান্তিক ও ছোট চাষিদের মেশিন ব্যবহারে সাহায্য করা, যাতে তাঁদের ফসল পোড়াতে না হয়৷

অবিলম্বে চাষিদের ওই সহায়ক মূল্যের টাকা দেওয়ার জন্যও রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট৷ সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশ, দিল্লি, পঞ্জাব, হরিয়ানা ও উত্তরপ্রদেশ সরকার একসঙ্গে বসে আগামী ৩ মাসের মধ্যে এমন কিছু স্কিম চালু করবে, যাতে পরিবেশরক্ষা হয়৷

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অরুণ মিশ্র ও বিচারপতি দীপক গুপ্তার বেঞ্চের পর্যবেক্ষণ, 'কৃষি আমাদের দেশের মেরুদণ্ড৷ তাই ছোট ও প্রান্তিক চাষিদের স্বার্থ সর্বদা দেখা উচিত৷ রাজকোষে অর্থের অভাব, এটা কোনও সরকারের অজুহাত হতে পারে না৷ দূষণ রুখতে চাষিদের শাস্তি দেওয়াটা কোনও সমাধান নয়৷' রাজধানীতে দূষণ নিয়ে দিল্লি সরকারকে ভর্ত্‍‌সনাও করে সুপ্রিম কোর্ট৷ বলে, আদালতের তৈরি করা মনিটরিং কমিটি না-থাকলে দিল্লি তো এত দিনে শেষ হয়ে যেত! দিল্লির মুখ্য সচিবকে ধমক দিয়ে বিচারপতি বলেন, 'আপনি রাস্তার ধুলে কমাতে পারছে না, নির্মাণ নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না, আবর্জনার স্তূপ কমাতে পারছেন না, কেন এই পদে রয়েছেন?'

First published: November 6, 2019, 8:04 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर