Home /News /national /
#Yearender2018 : সমকাম অপরাধ নয়, সুপ্রিম কোর্টের যুগান্তকারী রায়

#Yearender2018 : সমকাম অপরাধ নয়, সুপ্রিম কোর্টের যুগান্তকারী রায়

প্রতীকী ছবি ৷

প্রতীকী ছবি ৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: এ বছরের ৬ সেপ্টেম্বর ৷ ঐতিহাসিক মামলার রায় দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। জানিয়ে দিয়েছিল সমকাম অপরাধ নয়। এর আগে ২০১৩ সালে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দেয় ৩৭৭ (Section 377) খারিজ হচ্ছে না। এ বছর সেটিই হয়ে গেল, রায় ঘোষণা করে প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র জানিয়ে দিয়েছিলেন, সমকাম অপরাধ নয়।

    ব্রিটিশ আমলে তৈরি এই আইন অনুযায়ী অস্বাভাবিক যৌনতা অপরাধ। এই ধারা খারিজ করা দাবিতে ফের মামলা হয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রর নেতৃত্বে পাঁচ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ এই মামলাটি শুনেছে। এই বেঞ্চে প্রধান বিচারপতি ছাড়াও আছেন বিচারপতি আর এফ নরিমান, এ এম খানউইলকার, ডিওয়াই চন্দ্রচূড় এবং ইন্দু মালহোত্রা। জুলাই থেকে শুরু হয়েছে বিচার প্রক্রিয়া । আবেদনকারীরা ব্যক্তিগত অধিকারের পক্ষে সওয়াল করেছেন। ৩৭৭ ধারা (Section 377) অনুযায়ী অস্বাভাবিক যৌনতা অপরাধ। সমকামিতাকে এরই অংশ হিসেবে ধরা হয়। সমকামও অপরাধ ছিল। ১৮৬১ সালের আইন অনুযায়ী এই অপরাধে ১০ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারত। কিন্তু এখন আর তা কার্যকর রইল না। সমকামীদের দাবি এই ধারা প্রয়োগ করে তাঁদের হেনস্থা করা হয়। মামলার আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল পাঁচ জন। এই পাঁচ জন হলেন ভারতনাট্যম শিল্পী নভতেজ সিং জোহার, সাংবাদিক সুনীল মেহেরা, রিতু ডালমিয়া, হোটেল ব্যবসায়ী অমন নাথ এবং আয়েশা কুমার। শুনানিতে আবেদনকারীদের দাবি ছিল ৩৭৭ ধারা ( Section 377) সংবিধানের মূল ধারার বিরোধী। এরকম একটা ধারা বলবত থাকলে সাম্যের অধিকার লঙ্ঘিত হয়, সুবিচার পাওয়ার আশাও থাকে না। তাছাড়া সংবিধান কোনও রকম বৈষম্যকে স্বীকার করে না। শুনানির সময় বিচারপতি ইন্দু মালহোত্রা জানান, পরিবার এবং সমাজের চাপে এ ধরনের মানুষদের অন্য লিঙ্গের সঙ্গে বিয়ে করতে হয় তাতে নানা রকম জটিলতা তৈরি হয়। সুপ্রিম কোর্টের এই যুগান্তকারী রায়ের পরই মুক্তির ফুরফুরে বাতাস ঢুকতে শুরু করে এ দেশে ৷ শুরু হয় নব অধ্যায় ৷

    First published:

    Tags: Section 377, Supreme Court, Yearender 2018, Yearender2018

    পরবর্তী খবর