এক বৈশাখে লাল আর সাদায়

এক বৈশাখে লাল আর সাদায়
ছবি: অয়ন নাথ ৷
  • Share this:

#কলকাতা: ইংরেজি নতুন বছরকে স্বাগত জানানোর জন্য কতোই না প্ল্যান ৷ নতুন বছর আসছে বলে কথা! সেলিব্রেশনটাও হওয়া চাই দমদার ৷ তবে নতুন বছর তো সামনেই আসছে ৷ হাতে আর মাত্র কয়েকটা দিন, তারপরেই চলে আসবে নতুন বাংলা বছর ৷ এ নিয়ে মাথা ব্যথা ক’জনের ? নতুন বাংলা বছরের আগমনকে কেন্দ্র করে যদি একটু প্রস্তুতি নেওয়া যায় তাতে ক্ষতি কী? ক্ষতি তো কিছুই নেই ৷ বরং আনন্দটা বাড়বে কয়েক গুণ ৷ আর বাংলা নববর্ষকে সামনে রেখে বাঙালি সবচেয়ে বেশি প্রস্তুতি নেন পোশাক নিয়েই। এই পোশাকগুলো সরবরাহ করে আমাদের দেশি ফ্যাশন হাউসগুলো। তারাও তাদের পোশাকের নকশা করার ক্ষেত্রে ঋতু বা মৌসুমকে প্রাধান্য দিচ্ছে। এই ফ্যাশন হাউসগুলো বৈশাখী উৎসবকে কেন্দ্র করেও প্রতি বছরই পোশাকে নানা পরিবর্তন নিয়ে আসে।

4

এরই ধারাবাহিকতায় এ বছরও রঙে যেমন এসেছে বৈচিত্র্য তেমনি পরিবর্তন এসেছে কাটিং ও কাজে। বাঙালির বর্ষবরণ শুরু হয় লাল-সাদা দিয়ে। ফ্যাশনে এর কি কোনও ব্যাখ্যা আছে?তবে এর উত্তর কিছুটা দূরহ হলেও পাওয়া যায় বেশ কিছু ধারণা। প্রকৃতিতে বৈশাখের নিজস্ব একটা রঙ আছে, তার প্রকাশ ঘটলে বদলে যায় বাঙালির রূপ।বৈশাখের চিরায়ত রঙ লাল-সাদা’র চল কেন বা কবে থেকে, এ বিষয়ে রয়েছে মতভেদ।

আরও  পড়ুন: পয়লা বৈশাখে ছেলেদের সাজ নিয়ে এক্সক্লুসিভ সাজেশন দিচ্ছেন ডিজাইনার অভিষেক দত্ত

Loading...

কারও কারও মতে, ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটে বৈশাখের প্রধান আয়োজন হালখাতা! যার মোড়কের অংশ লাল এবং ভেতরের পাতার রঙ সাদা, সেখান থেকে লাল-সাদা আসতে পারে! আবার অনেকে মনে করেন, আগেকার দিনে হিন্দু নারীরা লাল পাড়ের সাদা শাড়ি পরে বিভিন্ন পূজা-পার্বণে অংশ নিতেন, সেখান থেকেও আসতে পারে লাল-সাদা। যদিও এ সব কারণের পিছনে গ্রহণযোগ্য তেমন যুক্তি পাওয়া যায় না। কারণ, সাধারণভাবেই অনেক সম্ভ্রান্ত পরিবারে মেয়েদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে লাল পেড়ে সাদা শাড়ি পরিধানের প্রচলন ছিল। বাস্তবতা হল, ধীরে-ধীরে তা উৎসবের পোশাকে পরিণত হয়েছে।

3

বৈশাখের রঙ লাল-সাদা হওয়ার কারণ যাই হোক, তা শুরু থেকে সর্বজনীনভাবে মান্য হয়ে আসছে। পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্ত তো বটেই, পয়লা বৈশাখের দিন বাংলাদেশের রাজপথ রেঙে ওঠে লাল আর সাদা রঙে ৷ বৈশাখী অনুষ্ঠানে লাল আর সাদা রংয়ের পাশাপাশি এখন জায়গা নিচ্ছে অন্যান্য রংও ৷ ২০০০ সাল নাগাদ এই ট্রেন্ডটা ঢুকতে শুরু করেছিল বলে মত ফ্যাশনবোদ্ধাদের ৷ এই দুই রংয়ের সঙ্গে সংযোজিত হয় কোড়া, হলুদ, অফ হোয়াইট, কমলা, বাসন্তী, নীল, বেগুনি, সবুজ, টিয়া,

কালো, ম্যাজেন্টা, লাইমগ্রিন, ফিরোজা, ইটলাল ইত্যাদি রঙ ৷ তবে গত বছর থেকে ফের উৎসবের দিনগুলোতে ফিরে এসেছে লাল-সাদা রঙ ৷ মনে করা হচ্ছে ট্রাডিশনাল লুকের দিকেই ঝোঁকার প্রবণতা একটু বেড়েছে ৷ সাদা এবং লালের বিভিন্ন শেডের খেলায় মেতে উঠেছেন ফ্যাশন ডিজাইনাররা ৷ সম্প্রতি বাঙালি ফ্যাশন ডিজাইনার সব্যসাচী মুখোপাধ্যায় তাঁর নতুন সামার কালেকশন এনেছেন ৷

2

সেখানেও লাল এবং সাদা বিভিন্ন শেডের সমাহার চোখে পড়েছে ৷ আসলে বাঙালি বৈশাখের উৎসবে লাল-সাদাকেই বেশি পছন্দ করে। ফলে এর প্রাধান্য বেড়েছে এবং এটিই শেষ পর্যন্ত টিকে আছে। এ দিনটি উদযাপন পিছনে রয়েছে বাঙালিয়ানার ষোলকলা পূর্ণ করার বাসনা ৷ আর সেই বাসনা পূরণে সবার আগে চাই লোকজ ঐতিহ্যের পোশাক।

মডেল: রিয়া দত্ত ও আনসার আলি খান ৷

ছবি: অয়ন নাথ ৷

মেক আপ ও হেয়ার : রূপা রায় ৷

First published: 10:10:08 AM Apr 13, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर