হোম /খবর /দেশ /
মোদিকে নিয়ে তথ্যচিত্র, আচমকা লোডশেডিং... তুমুল চাপান-উতোর জেএনইউ-তে

Modi Documentary Show || JNU: মোদিকে নিয়ে তথ্যচিত্র, আচমকা 'লম্বা' লোডশেডিং! তুমুল চাপান-উতোর জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে

তুমুল চাপান-উতোর জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে!

তুমুল চাপান-উতোর জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে!

জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিসির তথ্যচিত্র দেখানো হয়। যদিও বিশ্ববিদ্যালয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়। তবে নিজেদের মোবাইল এবং ল্যাপটপে বিবিসির তথ্যচিত্র দেখেন পড়ুয়ারা। তবে পড়ুয়াদের ওপর পাথর ছোঁড়ার অভিযোগ ওঠে এভিবিপির বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন...
  • Share this:

নয়াদিল্লি: নরেন্দ্র মোদি এবং গুজরাত হিংসা নিয়ে রাজনৈতিক চাপানউতোর অব্যাহত। এরইমধ্যে আজ রাত ৯টায় জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিসির তথ্যচিত্র দেখানো হয়। যদিও এরপরেই বিশ্ববিদ্যালয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়। তবে নিজেদের মোবাইল এবং ল্যাপটপে বিবিসির তথ্যচিত্র দেখেন পড়ুয়ারা। তবে পড়ুয়াদের উপর পাথর ছোঁড়ার অভিযোগ ওঠে এভিবিপির বিরুদ্ধে। তার প্রতিবাদে আজ রাতেই বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে বিক্ষোভ মিছিল করেন এসএফআই সমর্থকরা। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য সোমবার হায়দ্রাবাদ কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিসির তথ্যচিত্র দেখানো হয়। তথ্যচিত্রটি দেখতে হাজির ছিলেন ৫০ জনের বেশি পড়ুয়া।

আজ কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি ভারত জোড়ো যাত্রায় কাশ্মীরে বলেছেন, সত্য একদিন প্রকাশ হবেই। রাহুল গান্ধি বলেন, " যদি আমাদের গীতা, উপনিষদ পড়েন, তাহলে জানতে পারবেন সত্য একদিন প্রকাশ্যে আসবেই। সংবাদমাধ্যমের মুখ বন্ধ করা যায়, ইডি, সিবিআই লাগিয়ে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান, কয়েকজন ব্যক্তির কণ্ঠরোধ করা যায়, তবে সত্যকে আটকে রাখা যায় না।" তাঁর কথায় সত্যের ধর্মই হল প্রকাশ্যে আসা।

আরও পড়ুন: সতর্ক হয়ে কথা না বললেই... ২৫জানুয়ারি 'বিশেষ' সাবধান বাণী এই রাশির জন্য! কি বলছে আপনার রাশিফল?

অন্যদিকে এদিন সাংবাদিক সম্মেলন করে রাহুল গান্ধির দিকে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন বিজেপি নেতা রবিশঙ্কর প্রসাদ। কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিং এর মন্তব্য থেকে আজ দুরত্ব তৈরি করেছেন রাহুল গান্ধি। পুলওয়মা নিয়ে দিগ্বিজয় সিং এর মন্তব্য তাঁর ব্যক্তিগত বলে জানিয়েছেন রাহুল। একইসঙ্গে তিনি জানান, ভারতের সেনাবাহিনীকে সম্মান জানান তিনি।আজ রবিশঙ্কর প্রসাদ বলেন, কেন সেনা বাহিনীকে সম্মান জানানোর কথা জানতে রাহুল গান্ধি এত দেরি করলেন কেন?

এদিকে বিবিসির তথ্যচিত্র থেকে দূরত্ব তৈরি করেছে মার্কিন প্রশাসন। মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র নিড প্রাইস প্রশ্নের জবাবে বলেছেন, "যে তথ্যচিত্রের কথা বলা হচ্ছে, সেটি সম্পর্কে আমি অবগত নই। বরং আমেরিকা ও ভারত, দুই সমৃদ্ধশালী গণতান্ত্রিক দেশের মধ্যে আদানপ্রদান হওয়া মূল্যবোধ সম্পর্কে আমি খুবই ওয়াকিবহাল।"  তিনি আরও বলেন, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক এবং বিশেষ করে দুই দেশের মানুষের সম্পর্ক-সহ ভারত-মার্কিন কূটনৈতিক সম্পর্ক সুদৃঢ় করার অনেকগুলি উপাদান রয়েছে।

রাজীব চক্রবর্তী 

Published by:Sanjukta Sarkar
First published:

Tags: JNU, Naredra Modi