সাধারণতন্ত্র দিবসের প্যারেডে নজর কাড়ল লাদাখ এবং উত্তর প্রদেশের রাম মন্দির ট্যাবলো

সাধারণতন্ত্র দিবসের প্যারেডে নজর কাড়ল লাদাখ এবং উত্তর প্রদেশের রাম মন্দির ট্যাবলো
photo/news 18

সাংস্কৃতিক ট্যাবলোর মধ্যে প্রথম আবির্ভাবেই নজর কাড়ল লাদাখ। কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলটির বিখ্যাত থিসকে বৌদ্ধ মঠ তুলে ধরার পাশাপাশি লাদাখের শিল্প, স্থাপত্য, ভাষা, উপভাষা, রীতিনীতি, পোশাকের ব্যবহার দেখানো হল।

  • Share this:

    #নয়াদিল্ল: দেশের ৭২ তম সাধারণতন্ত্র দিবস একটু আলাদা হবে জানাই ছিল। করোনা মহামারির কারণে অনুষ্ঠান যে অনেকটাই কাটছাঁট করা হবে সে চিত্র পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল আগেই। অন্যবার যা আকর্ষণের মূল কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে থাকে সেই বাইক স্টান্ট ছিল না এবার। মানুষের সংখ্যা কমিয়ে চার ভাগের এক ভাগ করে দেওয়া হয়েছিল। নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছিল রাজধানী। নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় রাজপথে মাছি গলার রাস্তা ছিল না। কিন্তু সাংস্কৃতিক ট্যাবলোর মধ্যে প্রথম আবির্ভাবেই নজর কাড়ল লাদাখ। কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলটির বিখ্যাত থিসকে বৌদ্ধ মঠ তুলে ধরার পাশাপাশি লাদাখের শিল্প, স্থাপত্য, ভাষা, উপভাষা, রীতিনীতি, পোশাকের ব্যবহার দেখানো হল।

    এছাড়াও জোর দেওয়া হয়েছিল এই অঞ্চলের উৎসব, সাহিত্য এবং সঙ্গীতের ওপর। লাদাখ যে বিশ্বের পর্যটন মানচিত্রে একটি অন্যতম জায়গা এবং ভবিষ্যতে এখানে জৈব চাষ উৎপাদনের যে ভাবনা সরকারের রয়েছে তাও তুলে ধরা হয়েছে। উত্তরপ্রদেশের ট্যাবলোর আকর্ষণের মূল কেন্দ্রবিন্দু ছিল অযোধ্যার রাম মন্দির। মাঝের ঝকঝকে অংশে অযোধ্যার বিখ্যাত দীপোৎসব প্রদর্শিত হয়। যেখানে লক্ষ লক্ষ মাটির প্রদীপ জ্বলানো হয়। চোদ্দো বছরের বনবাস কাটিয়ে ভগবান শ্রী রামের ঘরে ফেরার দিন হিসেবে উদযাপন করা হয় এই দিনটি।

    রামায়ণের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ অংশ যা আজও চলার পথে মানুষের জীবনের শিক্ষনীয়, জায়গা করে নিয়েছিল ট্যাবলোয়। এছাড়াও উত্তর প্রদেশের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য এবং থিম তুলে ধরা হয়। মানুষ করতালি দিয়ে অভিবাদন জানান এই ট্যাবলোকে। ভারতের আত্মার প্রতীক যেন এই দুই ট্যাবলো। নিউ নর্মাল পরিস্থিতিতে সব সাবধানতা বজায় রেখেই হল যাবতীয় অনুষ্ঠান। অন্যবারের তুলনায় আরম্ভর কম হলেও নিখুঁত পরিকল্পনা এবং আন্তরিকতার ঘাটতি ছিল না।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: