• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • Burdwan | কঠিন পদার্থ নিরাপদ নিষ্কাশন প্রকল্প চালু বর্ধমানে

Burdwan | কঠিন পদার্থ নিরাপদ নিষ্কাশন প্রকল্প চালু বর্ধমানে

Burdwan| কঠিন পদার্থ নিরাপদ নিষ্কাশন প্রকল্প চালু হল পূর্ব বর্ধমানে। জেলার বিশিষ্ট জনেরা থেকে উদ্বোধন করলেন প্রকল্পের। চলতি সপ্তাহেই উদ্বোধন হল কঠিন পদার্থ নিরাপদ নিষ্কাশন প্রকল্পের।

Burdwan| কঠিন পদার্থ নিরাপদ নিষ্কাশন প্রকল্প চালু হল পূর্ব বর্ধমানে। জেলার বিশিষ্ট জনেরা থেকে উদ্বোধন করলেন প্রকল্পের। চলতি সপ্তাহেই উদ্বোধন হল কঠিন পদার্থ নিরাপদ নিষ্কাশন প্রকল্পের।

Burdwan| কঠিন পদার্থ নিরাপদ নিষ্কাশন প্রকল্প চালু হল পূর্ব বর্ধমানে। জেলার বিশিষ্ট জনেরা থেকে উদ্বোধন করলেন প্রকল্পের। চলতি সপ্তাহেই উদ্বোধন হল কঠিন পদার্থ নিরাপদ নিষ্কাশন প্রকল্পের।

  • Share this:

    #পূর্ব বর্ধমান:  কঠিন পদার্থ নিরাপদ নিষ্কাশন প্রকল্প চালু হল পূর্ব বর্ধমানে। জেলার বিশিষ্ট জনেরা থেকে উদ্বোধন করলেন প্রকল্পের। চলতি সপ্তাহেই উদ্বোধন হল কঠিন পদার্থ নিরাপদ নিষ্কাশন প্রকল্পের। বর্ধমান (Burdwan) সদর দুই ব্লকের কুড়মুন গ্রাম পঞ্চায়েতের বলগোনা গ্রামে সূচনা হল প্রকল্পের। উপস্থিত ছিলেন , বর্ধমান দুই উন্নয়ন আধিকারিক সুবর্ণা মজুমদার, সহকারী সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক তন্ময় চক্রবর্তী, বর্ধমান জেলা পরিষদের জনস্বাস্থ‍্য কর্মাধ‍্যক্ষ বাগবুল ইসলাম সহ সমিতির সদস্যরা। চারপাশ পরিষ্কার রাখতে এই উদ্যোগ জেলা পরিষদের। বিশেষ নজরদারি চালাচ্ছে পরিষদের আধিকারিকরা। জেলায় বিভিন্ন পঞ্চায়েত এলাকায় কঠিন পদার্থ নিষ্কাশন প্রকল্প তৈরি করা হচ্ছে। কোন রকম ভাবে পরিবেশ দূষিত না হয় তার জন্য এই প্রকল্পে জোর দিচ্ছে জেলা পরিষদের আধিকারিকরা। নির্মল বাংলা প্রকল্পকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য এই প্রকল্প গ্রহণ করা হচ্ছে। মানুষকে সচেতন করে পরিবেশকে দূষণমুক্ত রাখার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে কুড়মুন গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফে জানানো হয়েছে। ‌

    এনিয়ে বিডিও সুবর্ণা মজুমদার বলেন, " প্রকল্পের দরকার আমাদের। চারিদিকে প্লাস্টিক পড়ে থাকতে দেখা যায়, সেইসব প্লাস্টিক গুলো যদি যত্রতত্র না ফেলি তাহলে পরিবেশ সুস্থ থাকবে। পাশাপাশি আমরাও  দূষণমুক্ত থাকবো। প্রচার করে মানুষকে সচেতন করা হচ্ছে। দেওয়াল লিখন হয়েছে। এমনকি মাইকিং করা হচ্ছে। প্রত্যেক বাড়িতে বালতি দেওয়া হচ্ছে। একটিতে পচনশীল বজ্র ও অন্যটিতে অপচনশীল বজ্র  ফেলতে পারবে মানুষ।" ‌

    কর্মাধ‍্যক্ষ বাগবুল ইসলাম জানান, "  নিষ্কাশন এর মূল উদ্দেশ্য হল পরিতক্ত আবর্জনা থেকে  পরিবেশকে দূষণমুক্ত রাখা। ফলে মানুষের যেমন স্বাস্থ্য ভালো থাকবে। আমরা এই বজ্র পদার্থ থেকে সার তৈরি করে সেটা ব্যবহার করতে পারব। সার পেলে উপকৃত হবেন কৃষকরা।"উল্লেখ্য, এরআগেও জেলার বেশ কয়েকটি গ্রামে এই প্রকল্প চালু হয়েছে। মেমারী এক ব্লকের আমাদপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মেরুয়া ইশমপুর গ্রামে ও দুর্গাপুর (Burdwan) গ্রাম পঞ্চায়েতের শুঁদরোপাড় এলাকায় হয় এই প্রকল্পের কাজ চলছে।

    মিশন নির্মল বাংলার অন‍্যতম এই প্রকল্পের মাধ্যমে জৈব সার উৎপাদন সহ কিছু পরিবেশ বান্ধব কর্ম করা হবে।  বাড়ি বাড়ি ঘুরে পচনশীল ও অপচনশীল বর্জ‍্য সংগ্রহ করে তা প্রক্রিয়াকরণের মাধ্যমে পুনঃব‍্যবহারযোগ‍্য দ্রব‍্য উৎপাদন করার পাশাপাশি  পরিবেশকে রক্ষা করা সম্ভব হবে। এই প্রকল্পে খুশি হয়েছেন বর্ধমানবাসী।

     Malobika Biswas

    Published by:Piya Banerjee
    First published: