• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • মুম্বই পৌঁছে গেল পঙ্গপালের ঝাঁক?‌ লেখিকা শোভা দে ছবি শেয়ার করলেন ট্যুইটারে

মুম্বই পৌঁছে গেল পঙ্গপালের ঝাঁক?‌ লেখিকা শোভা দে ছবি শেয়ার করলেন ট্যুইটারে

যদিও এখনও সরকারিভাবে কোনও ঘোষণা করা হয়নি, তবে গতকাল থেকেই হোয়্যাটস অ্যাপ ও একাধিক সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই মুম্বইয়ে পঙ্গপাল হামলার কথা জানিয়েছেন।

যদিও এখনও সরকারিভাবে কোনও ঘোষণা করা হয়নি, তবে গতকাল থেকেই হোয়্যাটস অ্যাপ ও একাধিক সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই মুম্বইয়ে পঙ্গপাল হামলার কথা জানিয়েছেন।

যদিও এখনও সরকারিভাবে কোনও ঘোষণা করা হয়নি, তবে গতকাল থেকেই হোয়্যাটস অ্যাপ ও একাধিক সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই মুম্বইয়ে পঙ্গপাল হামলার কথা জানিয়েছেন।

  • Share this:

    #মুম্বই:‌ রাজস্থান, গুজরাত, মধ্যপ্রদেশের পর এবার পঙ্গপাল পৌঁছে গেল মুম্বইয়ে। ক’‌দিন আগেই পাকিস্তান থেকে তিন ‌দশকের সবচেয়ে বড় পঙ্গপালের ঝাঁক এসে পড়ে দেশে। সেই নিয়ে চাপে পড়ে প্রশাসন। বুধবার রাতে উচ্চসতর্কতা জারি করা হয়েছে পঞ্জাবে। কাজ করতে শুরু করে কন্ট্রোল রুম। আর বৃহস্পতিবার ট্যুইটারে একটি ছবি শেয়ার করে বিখ্যাত লেখিকা শোভা দে লিখলেন, ‘‌পঙ্গপাল এসে পড়েছে। মুম্বইয়ে স্বাগত পঙ্গপাল জি। স্বাধীনভাবে আমাদের রাজনৈতিক কিটনাশকদের সঙ্গে মিলেমিশে যান।’‌

    যদিও এখনও সরকারিভাবে কোনও ঘোষণা করা হয়নি, তবে গতকাল থেকেই হোয়্যাটস অ্যাপ ও একাধিক সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই মুম্বইয়ে পঙ্গপাল হামলার কথা জানিয়েছেন। বান্দ্রা, জুহু ও দক্ষিণ মুম্বইয়ে পঙ্গপাল দেখা দিচ্ছে। একজন ট্যুইটারে লিখেছেন, ‘‌বান্দ্রা, জুহু ও দক্ষিণ মুম্বই থেকে একাধিক ফরোয়ার্ড করা ভিডিও পাচ্ছি, যেখানে পঙ্গপালের কথা বলা হচ্ছে। অথচ ওখানকার অনেক বাসিন্দাই বলছেন, তাঁরা কিছু দেখেননি। সত্যিই কী পঙ্গপাল এসেছে?‌’‌

    ওদিকে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এখনও পর্যন্ত রবি শষ্যের ক্ষতি করার খবর আসেনি। তবে সবজি ও ডালের ক্ষতি এরা করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। যেভাবে হোক বর্ষার আগে এই পোকার ঝাঁক দূর করতে হবে। কারণ খারিফ শষ্যের ফসল সেই সময়টা।

    প্রায় ১৭ কিলোমিটার দীর্ঘ এই পঙ্গপালের ঝাঁকের হাত থেকে বাঁচতে তৈরি হচ্ছে পঞ্জাব সরকারও। বৃহস্পতিবার পঞ্জাবেও উচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। তৈরি করা হয়েছে কন্ট্রোল রুম। কৃষিমন্ত্রী কৃষকদের বলেছেন, পঙ্গপালের গতিবিধির কোনও খবর পেলে তা জানাতে।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: