Home /News /national /
সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন অব্যাহত পাকিস্তানের, ভোর থেকে চলছে লাগাতার গুলিবর্ষণ

সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন অব্যাহত পাকিস্তানের, ভোর থেকে চলছে লাগাতার গুলিবর্ষণ

সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন অব্যাহত রেখেছে পাকিস্তান ৷ আন্তর্জাতিক নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর লাগাতার মর্টার ও গুলিবর্ষণ জারি রেখেছে পাক সেনা ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #শ্রীনগর: সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন অব্যাহত রেখেছে পাকিস্তান ৷ আন্তর্জাতিক নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর লাগাতার মর্টার ও গুলিবর্ষণ জারি রেখেছে পাক সেনা ৷ শুক্রবার সকাল ৫টা থেকে সীমান্তের ওপার থেকে চলছে নৌসেরা সেক্টরে ব্যাপক গুলিবর্ষণ ৷ বৃহস্পতিবার রাতভর নিয়ন্ত্রণরেখায় কাঠুয়া, হীরানগর, আর্নিয়া, আরএস পুরা সেক্টরে গুলি চালায় পাক রেঞ্জার্স ৷ পাক গুলিতে আহত এক শিশু ৷

    পাক সেনাকে যোগ্য জবাব দিচ্ছে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষাবাহিনী ৷ বিএসএফের পাল্টা জবাবে খানিকটা হলেও পিছু হটেছে পাকিস্তান ৷ ভারতীয় গোলায় ক্ষতিগ্রস্থ বেশ কয়েকটি পাক ছাউনি ৷

    বিএসএফ সূত্রে খবর, জম্মুর কাঠুয়ায় পাক সেনার গুলিতে জখম হয়েছে এক শিশুকন্যা ৷ তবে ভারতীয় সেনার পাল্টা জবাবি গুলিতে কাঠুয়া সীমান্তে বেশ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে পাক সেনা ৷ গতকাল রাত থেকে মোট ২৪টি আউটপোষ্টে গুলিচালিয়ে পাক রেঞ্জার্স ৷

    বুধবারও সারারাত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর বিএসএফ ছাউনি ও সীমান্ত লাগোয়া গ্রাম লক্ষ্য করে লাগাতার শেল ও গুলি ছোঁড়ে পাকিস্তান ৷ শেষ ২৪ ঘণ্টায় এই নিয়ে ১০ জন সাধারণ মানুষ ও তিন জন বিএসএফ জওয়ান আহত হলেন পাক হামলায় ৷ ভারতীয় সেনাদের গুলিতে মৃত্যু হয় এক পাকিস্তানি রেঞ্জারের ৷ আহত হয়েছে আরও একজন বলে দাবি করেছে বিএসএফ ৷

    তবে বিএসএফ-এর ডিআইজি জানিয়েছেন, পাক সেনার আক্রমণের পাল্টা জবাব দিয়েছে সীমান্ত নিরাপত্তা বাহিনী ৷ তাদের পাল্টা গুলি বর্ষণে ধুলিসাৎ পাঁচ থেকে ছয়টি পাক ছাউনি ৷ গুলির লড়াইয়ে জখম হন বিএসএফের অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব ইনস্পেক্টর এ কে উপাধ্যায় ৷

    মঙ্গলবার রাত থেকেই বিএসএফ ছাউনি ছাড়াও লাগাতার সীমান্ত লাগোয়া গ্রাম লক্ষ্য করে মর্টার সেল ছুঁড়ছে পাক সেনা ৷ সীমান্তের পার্শ্ববর্তী গ্রামগুলিকে খালি করে গ্রামবাসীদের সুরক্ষিত স্থানে সরিয়ে দিয়েছে বিএসএফ ৷

    মঙ্গলবার রাতে জম্মু-কাশ্মীরের আর্নিয়ায় পাক সেনার গুলিতে জখম হন দুই বিএসএফ জওয়ান ও একজন নাগরিক ৷ ভারতের সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর থেকে সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন অব্যাহত ৷ সীমান্তরেখার ওপার থেকে কোনও প্ররোচনা ছাড়াই প্রতিদিন ছুটে আসছে গুলি ও মর্টার ৷

    সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর থেকে এই নিয়ে প্রায় ৪০ বার সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে বিনা প্ররোচনায় গুলি চালাল পাকিস্তান।

    এর আগে রবিবার মধ্যরাতে জম্মু-কাশ্মীরের আর এস পুরা সেক্টরে পাক সেনার গুলিতে প্রাণ হারান ভারতীয় জওয়ান সুশীল কুমার। আহত হন আরও দু’জন সেনা জওয়ান ছাড়াও এক সাধারণ নাগরিক ৷

    এর আগে ১৬ অক্টোবর কাশ্মীরের রাজৌরি সেক্টরে ভারত-পাক সীমান্তে গুলি চালায় পাকিস্তানি ট্রুপ ।গুলিতে মৃত্যু হয় এক জওয়ানের। চলতি মাসের ৪ তারিখই নওসেরা সেক্টরে গুলি বর্ষণ করে পাক সেনা ৷ পাল্টা জবাব দেয় ভারতীয় সেনাবাহিনীও। যদিও, কেউ হতাহত হয়নি। মনে করা হচ্ছে, সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের বদলা নিতেই জঙ্গি অনুপ্রবেশ ঘটাতে চাইছে পাকিস্তান। তাই সংঘর্ষ বিরতি ভেঙে বারবার এমন হামলা চালানো হচ্ছে। এলাকা জুড়ে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

    ২ অক্টোবর বারামুলায় ক্যাম্পে হামলা চালায় এক দল জঙ্গি। গুরুদাসপুরে জঙ্গি অনুপ্রবেশের চেষ্টার পর , পুঞ্চেও গোলাগুলি ছোড়ে পাক সেনা। যদিও, প্রতিটি ক্ষেত্রেই জঙ্গিদের রুখে দিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

    পাক জঙ্গিদের সাম্প্রতিক গতিবিধিতে রুখতে চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করা হয়েছে আন্তর্জাতিক সীমান্ত ও নিয়ন্ত্রণরেখায়।

    First published:

    Tags: BSF, Ceasefire violation, Firing, Fresh ceasefire violation by Pakistan, India Pakistan Relation, Indian Army, LOC

    পরবর্তী খবর