Indian Army: কত উঁচু? ১১ হাজার ফিট, শুনেই আর্তকে বাঁচাতে ঝাঁপ ভারতীয় সেনার

সত্যিই ভারতীয় সেনার জওয়ানরা বিপদে পড়া মানুষকে বাঁচাতে নিজেদের জীবন বাজি রাখতে পারেন।

সত্যিই ভারতীয় সেনার জওয়ানরা বিপদে পড়া মানুষকে বাঁচাতে নিজেদের জীবন বাজি রাখতে পারেন।

  • Share this:

    #জম্মু:

    যে কোনও বিপদে হাজির। যে কোনও! তা সে জঙ্গিদের হামলা হোক বা তুষারপাতে আটকে পড়া মানুষকে উদ্ধার! যে কোনও সময় যে কোনও বিপদে ত্রাতা হয়ে হাজির হতে পারে ভারতীয় সেনা। দেশবাসীর রক্ষায় ভারতীয় সেনার জওয়ানরা প্রাণপাত করতে পারেন। আর এই দাবি এতটুকু বাড়িয়ে বলা হয় না। সত্যিই ভারতীয় সেনার জওয়ানরা বিপদে পড়া মানুষকে বাঁচাতে নিজেদের জীবন বাজি রাখতে পারেন। এবার গোটা একটা পরিবারকে বাঁচাল ভারতীয় সেনা। প্রায় এগারো হাজার ফিট উঁচুতে আটকে ছিল সেই পরিবার। খাবার, জল কিছুই ছিল না তাঁদের কাছে। আর দিনদুয়েক কাটলে হয়তো মৃত্য়ুর কোলে ঢলে পড়তেন পরিবারের প্রতিটি সদস্য। কিন্তু ত্রাতা হয়ে হাজির ভারতীয় সেনা।

    জম্মু-কাশ্মীরের কিশতওয়াড় জেলার নাগিনসুর রিজের বকরওয়াল ডেরাতে সেই পরিবারকে উদ্ধার করতে হাজির ভারতীয় সেনা। বশির আহমেদ নামের এক ব্যক্তি ফোন করে সেনার কাছে সাহায্যের আর্জি জানান। তিনি জানান, তাঁর পরিবার প্রবল তুষারপাতে আটকে রয়েছে। খাবার ও জল সঙ্গে যা ছিল সব শেষ। সেনা সাহায্য না করলে মৃত্যু আসন্ন। তখনই সেনার তরফে জানতে চাওয়া হয়, তিনি ও তাঁর পরিবার ঠিক কত উঁচুতে আটকে রয়েছেন! বশির জানান, ১১ হাজার ফিট। এক মিনিটও সময় নষ্ট না করে ঝাঁপিয়ে পড়েন সেনা জওয়ানরা। ভান্ডারকুট চেক পোস্ট থেকে কয়েকজন সেনা জওয়ান ওই ব্যক্তি ও তাঁর পরিবারকে সাহায্যের জন্য রওনা দেন।

    স্ত্রী, তিন সন্তান ও পোষ্যদের সঙ্গে বরফে আটকে ছিলেন বশির। খাবার, জল সব শেষ। প্রতিকূল পরিস্থিতিতে বশিরের পরিবারের কাছে পৌঁছতে গোটা দিন লেগে যায় সেনা জওয়ানদের। কিন্তু শেষমেশ বশিরের পরিবারে কাছে পৌঁছে খাবার, জল দেয় ভারতীয় সেনা। খাবার ও জল ছাড়াও জরুরি ওষুধ বাকি সরঞ্জাম বশিরকে দেন জওয়ানরা। বশির জানিয়েছেন, তাঁদের মতো পশুপালকদের বছরের একটি নির্দিষ্ট সময় ওই এলাকায় আসতে হয়। প্রতিবার যে কোনও বিপদে সেনার জওয়ানরা তাঁদের পাশে থাকেন।

    Published by:Suman Majumder
    First published: